ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৮ মে ২০২৪, ১৯ জিলকদ ১৪৪৫

জাতীয়

তীব্র রোদে খুলনার রাস্তাঘাট ফাঁকা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩৩৬ ঘণ্টা, এপ্রিল ২০, ২০২৪
তীব্র রোদে খুলনার রাস্তাঘাট ফাঁকা

খুলনা: তীব্র রোদে তেঁতে উঠেছে খুলনা অঞ্চলের জনজীবন। প্রতিদিনই যেন বাড়ছে দিনের তাপমাত্রা।

অসহনীয় গরমের কারণে বাসা থেকে বের হচ্ছে না অনেকে। শনিবার (২০ এপ্রিল) দুপুর হতে না হতেই ফাঁকা হয়ে যাচ্ছে মহানগরের প্রধান সড়কগুলো।

দীর্ঘদিন বৃষ্টি না হওয়ায় মাঠ-ঘাট ফেটে চৌচির হয়ে গেছে। পানির ভূগর্ভস্থ স্তর নিচে নেমে যাওয়ায় খুলনার বেশিরভাগ টিউবওয়েলে পানি উঠছে না। কোথাও স্বস্তির বাতাস নেই। সর্বত্র গরম আর গরম। কখনও প্রচণ্ড, আবার কখনও ভ্যাপসা। গরমের তীব্রতায় ছোট-বড় সবার হাঁসফাঁস অবস্থা। বাসা থেকে বের হওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই রোদের খরতাপে ঘর্মাক্ত হয়ে অসহনীয় অবস্থায় পড়ছেন তারা। প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের হচ্ছে না অনেকেই। ভর দুপুরে রাস্তাঘাট ফাঁকা হয়ে পড়ছে। অসহনীয় রোদ আর গরমে স্থবিরতা নেমে এসেছে স্বাভাবিক কর্মজীবনেও।

প্রচণ্ড গরমে মানুষ হাঁসফাঁস করছে। বেচাবিক্রি বেড়ে গেছে বৈদ্যুতিক পাখা ও এসির। বেড়ে গেছে ডাবের দামও। ১০০ টাকার নিচে মিলছে না ডাব। বিক্রিও বেড়ে গেছে বিভিন্ন কোম্পানির কোমল পানীয়ের।

অসহনীয় এ গরমে সবচেয়ে বেশি কষ্ট দেখা দিচ্ছে গ্রামের টিনের তৈরি বাড়িতে বসবাসকারী ব্যক্তিদের। প্রচণ্ড রোদে অনেকেই বাড়ি ছেড়ে বিভিন্ন বড় গাছের ছায়াতলে আশ্রয় নিচ্ছেন। নদী-নালা, পুকুর ও খাল-বিলে মানুষের ভিড় বেড়েছে। গ্রামের মানুষজন এসব জায়গার পানিতে নেমে শরীর ভিজিয়ে প্রচণ্ড গরম থেকে নিজেদের রক্ষার চেষ্টা করছেন।

পশ্চিম রূপসার শিপইয়ার্ড রোডের বাসিন্দা জাবের আলী বলেন, অসহ্য তাপদাহে জীবন অতিষ্ঠ।

খুলনা আবহাওয়া অফিসের সহকারী আবহাওয়াবিদ আমিরুল আজাদ বাংলানিউজকে জানান, খুলনায় তীব্র তাপদাহ বয়ে যাচ্ছে। দুপুর ১২টায় খুলনার তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৩৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৩৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ২০, ২০২৪
এমআরএম/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।