ঢাকা, বুধবার, ২৫ মাঘ ১৪২৯, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৬ রজব ১৪৪৪

জাতীয়

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় দুই গ্রামবাসী সংঘর্ষ, নিহত ১, আহত ১০

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮২৬ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩, ২০২২
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় দুই গ্রামবাসী সংঘর্ষ, নিহত ১, আহত ১০

ব্রাহ্মণবাড়িয়া: তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষে শীতল মিয়া (৬৫) নামে একজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন উভয়পক্ষের অন্তত ১০ জন।

শনিবার (৩ নভেম্বর) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত উপজেলার বড়িকান্দি ইউনিয়নের মুক্তারামপুর গ্রামে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

নিহত শীতল মুক্তারামপুর গ্রামের পশ্চিম পাড়ার বাসিন্দা। আহতদের পরিচয় জানা যায়নি।  

পুলিশ ও স্থানীয়ররা জানান, শুক্রবার (২ ডিসেম্বর) সন্ধ্যার দিকে মুক্তারামপুর গ্রামে ধরাভাঙ্গা রোডে পিকআপভ্যান থেকে জিপি উত্তোলনকে কেন্দ্র করে কবির মিয়ার ছেলে ইব্রাহিম মিয়ার সঙ্গে পাশের ধরাভাঙ্গা গ্রামের সলিমগঞ্জ বাজারের লাইনম্যান রহিম মিয়ার কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার জের ধরে শনিবার সকালে ধরাভাঙ্গা গ্রামের চেয়ারম্যানের ছেলে মানিক ও খোকন মিয়াকে মারধর করা হয়। এ খবর ধরাভাঙ্গা গ্রামের ছড়িয়ে পড়লে লোকজন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে মুক্তারামপুর গ্রামে হামলা চালায়। এ সময় মুক্তারামপুর গ্রামের পশ্চিমপাড়ার মৃত কানু মিয়ার ছেলে শীতল মিয়াকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। সংঘর্ষে উভয়পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। আহতদের নবীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

নবীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুদ্দিন আনোয়ার বাংলানিউজকে বলেন, বর্তমানে পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। ফের সংঘর্ষ এড়াতে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রাখা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮২৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৩, ২০২২
এসআরএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa