ঢাকা, রবিবার, ২২ মাঘ ১৪২৯, ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৩ রজব ১৪৪৪

লাইফস্টাইল

অটিজম দিবস, বিশেষ শিশুর যত্ন যেমন 

লাইফস্টাইল ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২৫০ ঘণ্টা, এপ্রিল ২, ২০২১
অটিজম দিবস, বিশেষ শিশুর যত্ন যেমন 

বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস ২ এপ্রিল। অটিজম শব্দটা সম্পর্কে আগে আমাদের খুব একটা ধারণা ছিল না।

এখন জনসচেতনতা বৃদ্ধি পাওয়ায় এ সম্পর্কে জানার আগ্রহ বেড়েছে। তাছাড়া আমরা অনেকটা অবাক হয়ে লক্ষ্য করছি যে, আমাদের পরিচিতদের মধ্যে অটিস্টিক শিশুর জন্মের সংখ্যা বাড়ছে।  

অটিজম শিশুর এমন এক মানসিক রোগ, যা তার মস্তিষ্কের স্বাভাবিক বিকাশের প্রতিবন্ধকতার কারণে  হয়।   প্রতি ১০ হাজার শিশুর মধ্যে ৫জনের এমন হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। আর অটিজম আক্রান্ত ছেলেশিশুর হার মেয়েশিশুদের  তুলনায় চার-পাঁচ গুণ বেশি।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, প্রকৃতপক্ষে অটিজম কোনো রোগ নয়। এটি একটি শিশুর মস্তিষ্কের বিকাশজনিত সমস্যা। শিশুর জন্মের প্রথম দুই-তিন বছরের মধ্যেই এর লক্ষণ প্রকাশ পায়। অটিজম শিশুদের প্রতি বিশেষ মনোযোগ দরকার। কারণ, বিশেষ যত্নেই কেবল তাদের মানসিক বৃদ্ধি হয়।

শিশুদের জন্য অভিভাবকেরা যা করতে পারেন:   

•         চলমান পরিস্থিতি সম্পর্কে ধারণা দেওয়া
•         কোন বয়সে কি করা উচিত আর কি করা উচিত নয় তা শেখানো
•         রুটিন করে দেওয়া এবং সে অনুযায়ী কাজ করতে সাহায্য করা
•         ঘরের ও নিজের ছোট ছোট কাজগুলো করতে শিখিয়ে দেওয়া 
•         না সূচক কথা যতটা সম্ভব এড়িয়ে চলা
•         শিশুদের সামনে তাদের সম্পর্কে নেতিবাচক কথা না বলা
•         অ্যানার্জি বার্ন হয় এমন কাজ করানো সেক্ষেত্রে রেগুলার এক্সারসাইজ করানো
•         সামাজিক দক্ষতা বৃদ্ধির সহায়ক কাজ করানো
•         সহজ ও ছোট শব্দ ব্যবহার করে কথা বলা

শিশুর যে কাজগুলোতে আগ্রহ থাকে, সেগুলো করতে সাহায্য করা। যেমন ছবি আঁকতে পছন্দ করে অনেক অটিস্টিক বা বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশু।  
তবে মনে রাখা জরুরি প্রতিটা শিশু আলাদা হয়। তারাও আমাদেরই সন্তান, তাদেরকে অন্য সন্তানদের মতোই ভালোবাসা ও গুরুত্ব দিন, যত্ন নিন।  

বাংলাদেশ সময়: ১২৫১ ঘণ্টা, এপ্রিল ০২, ২০২১
এসআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa