ঢাকা, সোমবার, ১৩ আষাঢ় ১৪২৯, ২৭ জুন ২০২২, ২৭ জিলকদ ১৪৪৩

লাইফস্টাইল

সফল হতে চাইলে...

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০০০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩, ২০১৭
সফল হতে চাইলে... সঠিক পরিকল্পনা অনুযায়ী কাজ করে বেয়ে উঠুন সাফল্যের সিঁড়ি ধরে (প্রতীকী ছবি)

সফলতার মুকুট মাথায় পরতে কে না চায়? তরুণ শিক্ষার্থী থেকে শুরু করে মধ্যবয়স্ক একজন উদ্যোক্তাও চান সফলভাবে নিজের ক্যারিয়ার দাঁড় করাতে। কিন্তু অনেকেরই ধারণা, সাফল্য অর্জন বেশ কঠিন। আদতে কিন্তু কৌশল খাটিয়ে কয়েকটি ব্যাপার অনুসরণ করলেই খুব সহজে সফলতা অর্জন করা যায়। কিভাবে? যুক্তরাষ্ট্রের বহুল প্রচারিত সাময়িকী ‘সাকসেস’ দিচ্ছে সেই পরামর্শ।

প্রতিশ্রুতির দিকে মনোনিবেশ করুন
আপনি আপনার লক্ষ্যের প্রতি কতোটা অটুট? এটি আপনার জন্য কতোটা গুরুত্বপূর্ণ এবং এটি অর্জন করার জন্যে আপনি কী কী করতে চান? নিজেকে সম্পূর্ণভাবে অঙ্গীকারবদ্ধ করুন, তবেই অনুপ্রেরণা আপনার পেছনে ছুটবে।

জ্ঞান অর্জন করুন, ফলাফলের নয়
আপনি যদি আবিষ্কার, উন্নতি, খোঁজ এবং চর্চার দিকে পরিপূর্ণ মনোনিবেশ করেন তাহলে অনুপ্রেরণা সর্বদা ব্যপ্ত হবে।

আপনি যদি শুধুই ফলাফল খোঁজেন, তাহলে কখনো ফলাফল আপনার মনোপুত হবে কিংবা কখনো আপনাকে নিরাশ করবে। সুতরাং গন্তব্যের দিকে পরিপূর্ণ মনস্থির না করে যাত্রার দিকে করুন। আপনি প্রতিনিয়ত কী শিখছেন তার প্রতি নজর দিন।

যাত্রাকে আনন্দপূর্ণ করে তুলুন
আপনার গন্তব্য যেখানেই হোক না কেন, যাত্রাপথ আনন্দময় করে তুলুন। এই আনন্দের সময়টুকু স্মৃতিচারণ করতে ভালো লাগবে আপনার।

অপ্রয়োজনীয় চিন্তাকে দূরে সরিয়ে রাখুন
আপনার চিন্তা-ভাবনাই অনুভূতি সৃষ্টিতে ভূমিকা রাখে। আপনি যেমন চিন্তা আজ করবেন, কাল ঠিক তেমনই ফলাফল অর্জন করবেন। সুতরাং চিন্তা সর্বদা ইতিবাচক রাখার চেষ্টা করুন। নেতিবাচকতাকে কোনোভাবেই কাছে ভিড়তে দেবেন না।

কল্পনাশক্তি ব্যবহার করুন
নেতিবাচক চিন্তাসমূহ ঝেড়ে ফেলেছেন তো? এবার তবে কল্পনাশক্তিকে ব্যবহার করুন। আপনি যদি পুরোপুরিভাবে ইতিবাচক চিন্তাভাবনায় পরিপূর্ণ হয়ে থাকতে পারেন, তাহলে কল্পনা করা আপনার জন্য মোটেও কঠিন বিষয় নয়। এর মাধ্যমেই আপনি অনেক কিছু শিখতে, বুঝতে ও জানতে পারবেন।

নিজের প্রতি ভালো ব্যবহার বন্ধ করুন
সফল হতে হলে আপনাকে এ গুণের চর্চা অবশ্যই করতে হবে। কোনো বিশেষ মুহূর্ত কিংবা ক্ষণের অপেক্ষা না করে প্রতিটি সময়কেই কাজে লাগান। নিজেকে মেলে ধরুন সব সম্ভাবনার সামনে। কোনোভাবেই নিজের সঙ্গে আপোষ কিংবা সমঝোতা করার দরকার নেই।

যেকোন বাধা থেকে দূরে থাকুন
অর্থহীন বিষয় আপনাকে সর্বদা বিরক্ত করবে, এটাই স্বাভাবিক। এগুলোকে খুব শক্ত হাতে মোকাবেলা করতে হবে। চ্যালেঞ্জ থাকবেই মানুষের জীবনে, সেগুলো কাজে লাগিয়েই আপনি সফলতা অর্জন করতে পারবেন, অন্যথায় নয়।

অন্যের ওপর নির্ভর করবেন না
অন্য কেউ আপনার সব কাজ সম্পাদন করে দেবে, এমন আশায় বসে থাকার কোনো দরকার নেই। সবাই সবার কাজ নিয়ে ব্যস্ত থাকে। নিজের প্রয়োজ়নগুলো নিজেই মেটানো শিখুন। অন্য কেউ কখনো আপনার পথ হেঁটে দেবে না।

পরিকল্পনা করুন
জীবনে কী কী কাজ করতে চান কিংবা কী কী উদ্দেশ্য হাসিল করতে চান সেগুলোর একটি তালিকা তৈরি করুন। পরিকল্পনা ছাড়া কোনো কাজ হয় না, মনে রাখবেন।

উৎসাহ  হারিয়ে ফেলবেন না
কিছু সময় আমরা একেবারে উদ্যমী হয়ে কাজ করতে থাকি। কখনো আবার কোন গতিতে এবং কিভাবে কাজ শুরু করবো, তার কোনো দিশা খুঁজে পাই না। এমন যেন কখনো না হয়। আপনি ডায়েরি কিংবা ক্যালেন্ডার মেনে চলতে পারেন। তাহলে কখন-কী করতে হবে সেটি মাথায় ভালো কাজ করবে।

বাংলাদেশ সময়: ০১৫৯ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৪, ২০১৭
বিএটি/এইচএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa