ঢাকা, সোমবার, ১৪ আষাঢ় ১৪২৯, ২৭ জুন ২০২২, ২৭ জিলকদ ১৪৪৩

লাইফস্টাইল

মেডিটেশন কেন করবেন না?

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০৪৯ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১, ২০১৭
মেডিটেশন কেন করবেন না? মেডিটেশন

আমাদের প্রতিটি দিনই শুরু হয় ব্যস্ততা দিয়ে। দিনের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত ব্যস্ততার চাদর মুড়িয়ে সময় পার করি আমরা। যদি প্রতিদিনের শুরুটা একটু অন্যরকমভাবে মেডিটেশন কিংবা ধ্যান করে শুরু হয়, কেমন হয় বলুন তো?

অনেকে হয়তো ভাববেন যে, এতো সময় কোথায়? আমাদের আসল সমস্যা এটিই যে উপকারিতা বিচার না করে আমরা বেশ অজুহাত দেখাতেই অধিক পছন্দ করি। আগে চলুন মেডিটেশনের উপকারিতা জেনে নেই, তারপর না হয় সিদ্ধান্ত নেবেন..

স্ট্রেস কমায়
নিত্যদিনের স্ট্রেস কিংবা ধকল কমাতে মেডিটেশনের জুড়ি নেই।

প্রতিদিন ভোরে আপনি চাইলেই এটির অনুশীলন করতে পারেন, সেক্ষেত্রে সারাদিন চনমনে মেজাজে কাটবে আপনার। কিংবা ঘুমের আগে কিছুটা সময় ধ্যানের অনুশীলন করতে পারেন। দেখবেন খুব সতেজ একটি ঘুম হবে আপনার এবং পরবর্তী দিন আপনি দ্বিগুণ কর্মশক্তি নিয়ে কাজ করতে পারবেন।

মনোযোগ বাড়ায়
আপনি কর্মজীবী মানুষ কিংবা শিক্ষার্থী যা-ই হোন না কেন, মেডিটেশনের প্রাত্যহিক অনুশীলন আপনার কাজের প্রতি মনোযোগ বাড়িয়ে দেবে বহুগুণ। যেকোন কঠিন ব্যাপার খুব সহজেই বুঝতে সমর্থ হবেন এবং নিজেকে অন্য সবার চাইতে আলাদাভাবে উপস্থাপন করতে পারবেন।

সুস্থ জীবনযাপন সুনিশ্চিত করে
মেডিটেশন কিংবা ধ্যানের মাধ্যমে আপনি সুস্থ ও সুনিশ্চিত জীবনযাপন অর্জন করতে পারবেন। প্রতিদিন ঘুম থেকে উঠে এটি অনুশীলন করলে আপনি নিজের জীবনে একটি লক্ষণীয় পরিবর্তন দেখতে পাবেন। দিনের সকল কাজ পরিকল্পিত রুটিনের মাধ্যমেই সম্পাদন করতে পারবেন।

আত্ম-সচেতনতা বাড়ায়
মেডিটেশন কিংবা ধ্যানের মাধ্যমে আপনি নিজের ব্যাপারে অনেকটা সচেতন হয়ে উঠবেন। কোন ব্যাপারে আপনি আগ্রহী, আপনার লক্ষ্য কী, সেটি অর্জনে আপনার বাধা কোনটি, আপনি কী ভালোবাসেন ও কী ঘৃণা করেন; এসব ব্যাপারে স্পষ্ট ধারণা অর্জন করতে পারবেন।

সুখ সঞ্চার করে
একটু আগেই বলা হলো যে, মেডিটেশনের মাধ্যমে আপনি আত্ম-সচেতনতা অর্জন করবেন। ঠিক তেমনি এর মাধ্যমে আপনি কোন বিষয়ে সুখী হোন এবং কোন বিষয়ে মনঃক্ষুণ্ন হন সে ব্যাপারেও একটি সংকেত পেয়ে যান। আশেপাশের যেকোন বিষয় আপনি ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি দিয়ে বিচার করতে পারবেন। মেডিটেশনে পারষ্পরিক সম্প্রীতি এবং সৌহার্দ্যও বাড়ে।

বয়স ধরে রাখে
নিয়মিত মেডিটেশন এবং ব্রিদিং এক্সারসাইজ করলে আপনার ত্বকের রক্ত চলাচল বৃদ্ধি পায়। এ কারণে আপনার ত্বক স্বাস্থ্যোজ্জ্বল হয়ে ওঠে এবং বয়সের ছাপ রোধ করে। আপনি অনেক দিন যাবত সুন্দর ত্বকের অধিকারী হয়ে থাকতে পারবেন শুধুমাত্র নিয়মিত মেডিটেশন এক্সারসাইজের মাধ্যমেই।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৩২ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০১, ২০১৭
বিএটি/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa