ঢাকা, রবিবার, ১৮ আষাঢ় ১৪২৯, ০৩ জুলাই ২০২২, ০২ জিলহজ ১৪৪৩

আইন ও আদালত

গার্মেন্টসকর্মীকে হত্যার পর মাটিচাপা: রিকশাচালক রিমান্ডে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯০৬ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৮, ২০২২
গার্মেন্টসকর্মীকে হত্যার পর মাটিচাপা: রিকশাচালক রিমান্ডে

ঢাকা: গার্মেন্টসকর্মী শারমিন বেগমকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর মাটিচাপা দেওয়ার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় রিকশাচালক সুমন মালির তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।  

সোমবার (১৮ এপ্রিল) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট রাজেশ চৌধুরী রিমান্ডের এ আদেশ দেন।

এদিন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা খিলক্ষেত থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোশাররফ হোসেন আসামিকে আদালতে হাজির করে পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। আসামিপক্ষে অ্যাডভোকেট বিজন চন্দ্র ধর রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন আবেদন করেন। শুনানি শেষে আদালত আসামির তিন দিনের রিমান্ডের আদেশ দেন।

সিএমএম আদালতে খিলক্ষেত থানার সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা মো. সেলিম খান এ তথ্য জানান।

গত ১৬ এপ্রিল সকালে রাজধানীর খিলক্ষেত থানা এলাকার ৩০০ ফিট রাস্তার পাশে মাটিচাপা অবস্থায় শারমিন বেগমের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। গত রোববার হত্যাকাণ্ডের অন্যতম আসামি রিকশাচালক সুমন মালিকে গ্রেফতার করে র‌্যাব।

র‌্যাব জানায়, সুমন পেশায় একজন রিকশাচালক। ভিকটিম শারমিন খিলক্ষেতে এলাকার একটি গার্মেন্টস ফ্যাক্টরিতে চাকরি করতেন। সুমন বেশ কিছুদিন ধরে শারমিনের গার্মেন্টস ও বাসায় আসা-যাওয়ার পথে তাকে অনুসরণ করতো। এরই ধারাবাহিকতায় ১০/১২ দিন আগে শারমিনের সঙ্গে তার প্রথম পরিচয় হয়। চার-পাঁচ দিন ধরে শারমিনের সঙ্গে মোবাইলে কথা হয়। গত ১৩ এপ্রিল ভিকটিমকে তার রিকশায় নিয়ে বিভিন্ন জায়গায় ঘোরাঘুরি করে।  

গত ১৫ এপ্রিল ঘোরাঘুরির কথা বলে ভিকটিমকে তার বাসা থেকে খিলক্ষেত থানার ৩০০ ফিট এলাকায় ডেকে নিয়ে কৌশলে ধর্ষণ করে। ভিকটিমকে ধর্ষণের কথা গোপন করতে বললে সে অস্বীকৃতি জানায়। ধর্ষণের ঘটনা সে পুলিশে নালিশ করবে বলে সুমনকে জানায়। এতে সুমন ক্ষিপ্ত হয়ে ভিকটিমের গলার ওড়না পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে রাস্তার পাশে মাটিচাপা দিয়ে পালিয়ে যায়।

এ ঘটনায় শারমিনের ভাই আজিজুল গত রোববার খিলক্ষেত থানায় মামলা দায়ের করেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৯০৪ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৮, ২০২২
কেআই/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa