ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ০২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

আইন ও আদালত

অপহরণ-হত্যা মামলায় দুইজনের যাবজ্জীবন

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৪২ ঘণ্টা, অক্টোবর ১২, ২০২১
অপহরণ-হত্যা মামলায় দুইজনের যাবজ্জীবন প্রতীকী ছবি

মাদারীপুর: মাদারীপুরে ২০০৫ সালে ইমরান হোসেন নামে এক যুবককে অপহরণের পর হত্যার মামলায় দুইজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসময় দোষী প্রমালিত না হওয়ায় দুইজনকে খালাস দেওয়া হয়েছে।

 

মঙ্গলবার(১২ অক্টোবর) দুপুরে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক নিতাই চন্দ্র সাহা এ রায় দেন।  

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- কালকিনি পৌরসভার ঝাউতলা এলাকার এমদাদ সরদারের ছেলে পারভেজ সরদার (২৬) ও বিভাগদী এলাকার আবু বকর সিদ্দিকের ছেলে সজীব সরদার (২৫)।

মামলার এজাহারে বলা হয়, ২০০৫ সালের ২১ মে কালকিনি থানার সামনের বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে নিখোঁজ হন উত্তর কৃষ্ণনগর এলাকার সাঈদ সরদারের ছেলে ইমরান হোসেন (১৮)। পরে ২৪ মে এনায়েতনগর ইউনিয়নের সমিতিরহাট লঞ্চঘাট এলাকায় ইমরানের রক্তাক্ত মরদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয় স্থানীয়রা।  

পুলিশ গিয়ে নিহতের পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার পাশাপাশি ইমরানের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন করে। এ ঘটনায় ২৪ মে ইমরানের বাবা সাইদ সরদার অজ্ঞাতদের আসামি করে কালকিনি থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।  

২০১৭ সালের ১৯ আগস্ট মাদারীপুর সিআইডির উপ-পরিদর্শক পরিতোষ বালা আদালতে পারভেজ সরদার, সজিব সরদার, নয়ন চৌদিকার, আসলাম সরদারের নামে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। দীর্ঘ বিচারিক প্রক্রিয়া, সাক্ষী ও যুক্তিতর্ক শেষে আদালতের বিচারক পারভেজ সরদার ও সজিব সরদারকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন। দোষ প্রমাণিত না হাওয়ায় নয়ন চৌদিকার ও আসলাম সরদারকে খালাস দেওয়া হয়। এদিকে দণ্ডপ্রাপ্ত দুইজনই গ্রেফতারের পর জামিন নিয়ে পলাতক রয়েছেন।

মাদারীপুর জজ আদালতের পিপি অ্যাডভোকেট সিদ্দিকুর রহমান সিং জানান, ঘটনার দিন আসামিরা মোটরসাইকেলে করে ইমরানকে তুলে নিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করে।  

বাংলাদেশ সময়: ১৯৪০ ঘণ্টা, অক্টোবর ১২, ২০২১
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa