ঢাকা, বুধবার, ১২ শ্রাবণ ১৪২৮, ২৮ জুলাই ২০২১, ১৭ জিলহজ ১৪৪২

আইন ও আদালত

ভল্টের টাকা আত্মসাৎ: দুদকের মামলার প্রতিবেদন ২০ সেপ্টেম্বর

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট   | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৩২ ঘণ্টা, জুন ২১, ২০২১
ভল্টের টাকা আত্মসাৎ: দুদকের মামলার প্রতিবেদন ২০ সেপ্টেম্বর

ঢাকা: ঢাকা ব্যাংকের বংশাল শাখার ভল্ট থেকে প্রায় পৌনে চার কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে দুদকের দায়ের করা মামলায় তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আগামী ২০ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য করেছেন আদালত।  

রোববার (২০ জুন) মামলার এজাহার গ্রহণ করে ঢাকার মহানগর সিনিয়র স্পেশাল জজ কেএম ইমরুল কায়েশ প্রতিবেদন দাখিলের এই দিন ধার্য করেন।


 
সোমবার (২১ জুন) আদালতে দুদকের সাধারণ নিবন্ধন শাখা থেকে এই তথ্য জানা যায়।
 
গত ১৯ জুন দুদকের ঢাকা সমন্বিত জেলা কার্যালয়-১ এ সংস্থাটির সহকারী পরিচালক মো. আতিকুল মামলাটি দায়ের করেন। মামলায় ঢাকা ব্যাংকের বংশাল শাখার সিনিয়র অফিসার (ক্যাশ ইনচার্জ) রিফাতুল হক এবং ম্যানেজার অপারেশন এমরান আহম্মেদকে আসামি করা হয়।  
 
মামলার অভিযোগে বলা হয়, ঢাকা ব্যাংকের বংশাল শাখার ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ আবু বকর সিদ্দিক গত ১৭ জুন বাদী হয়ে রিফাতুল হক ও এমরান আহম্মেদকে আসামি করে বংশাল থানার অফিসার ইনচার্জ বরাবর অভিযোগ দায়ের করেন। রিফাত ওই শাখায় ২০১৮ সালের ৩১ অক্টোবর থেকে কর্মরত আছেন। গত ১৭ জুন আইসিসি ডিভিশনের ইন্টারনাল অডিট অ্যান্ড ইন্সপেকশন ইউনিট বাৎসরিক নিরীক্ষা কার্যক্রমের অংশ হিসেবে বংশাল শাখা পরিদর্শনে যায়।  

তদন্তে ইউনিট শাখার ভল্টে মোট ৩ কোটি ৭৭ লাখ ৬৬ হাজার টাকার অসামঞ্জস্যতা পায়। তাৎক্ষণিক জিজ্ঞাসাবাদে সত্যতা স্বীকার করেন রিফাতুল হক। ২০২০ সালের আগস্ট থেকে ২০২১ সালের ১৬ জুন পর্যন্ত বিভিন্ন সময় অল্প অল্প করে টাকা সরান তিনি।
 
গত ১৮ জুন ঢাকা ব্যাংকের বংশাল শাখার ভোল্ট থেকে তিন কোটি ৭৭ লাখ টাকা গায়েব হয়ে গেছে বলে অভিযোগ ওঠে। এ ঘটনায় ইমরান ও রিফাতকে আটক করা হয়। মামলাটি দুদকের শিডিউলভুক্ত হওয়ায় গত ১৮ জুন ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৯২৮ ঘণ্টা, জুন ২১, ২০২১
কেআই/এএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa