ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২৩ শাবান ১৪৪৫

আইন ও আদালত

নেশার টাকা না পেয়ে ভাগিনাকে হত্যা, মামার যাবজ্জীবন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৯৩০ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৮, ২০২৩
নেশার টাকা না পেয়ে ভাগিনাকে হত্যা, মামার যাবজ্জীবন

ফেনী: ফেনীতে বোনের ছেলেকে গলা কেটে হত্যা মামলায় নূর আলম (৩০) নামে এক ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

সোমবার (২৭ নভেম্বর) দুপুরে ফেনীর অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মো. রেজাউল করিমের আদালত এ রায় ঘোষণা করেন।

এ সময় সাজাপ্রাপ্ত আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

আসামি নূর আলম ফেনী সদর উপজেলার পূর্ব ফাজিলপুর গ্রামের মফিজুর রহমানের ছেলে।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১৬ সালের ২৯ আগস্ট বিকেলে নেশার টাকা না পেয়ে পঞ্চম শ্রেণিতে পড়ুয়া মনসুর আলম (১০) নামে নিজ ভাগিনাকে বাড়ির পাশে নির্জন স্থানে নিয়ে ছুরি দিয়ে গলা কেটে হত্যা করেন নূর। পরদিন স্থানীয় বোয়াইল্লা খাল পাড়ের মর্তুজার জমি থেকে শিশু মনসুরের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় ওই দিনই স্থানীয়রা নূর আলমকে আটক করে পুলিশে দেন।

একপর্যায়ে নূর আলম নিজ হাতে ভাগিনাকে খুন করার বিষয়টি স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেন। মামলাটি তদন্ত শেষে একমাত্র আসামির বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দায়ের করেন পুলিশের উপ-পরিদর্শক আজিজ আহাম্মদ।

এ মামলায় নয়জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আজ রায় ঘোষণা করা হয়। রায়ে একমাত্র আসামি নুর আলমকে নিজ ভাগিনা হত্যার দায়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ১ বছরের কারাদণ্ডাদেশ দেন আদালত।  

ফেনী আদালতের এপিপি ফরিদ আহাম্মদ হাজারী জানান, ঘটনার পর ২০১৬ সাল থেকেই নূর আলম কারাগারে ছিলেন। তার বিরুদ্ধে তোলা অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় আদালত এ রায় ঘোষণা করেছেন। রায় ঘোষণার পর তাকে জেলা কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ০৯২৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৮, ২০২৩
এসএইচডি/এফআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।