ঢাকা, শুক্রবার, ৬ বৈশাখ ১৪৩১, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৯ শাওয়াল ১৪৪৫

ইসলাম

নামাজের বৈঠকে আঙুল তোলার কারণ কী?

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১৪৩ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৪, ২০২৩
নামাজের বৈঠকে আঙুল তোলার কারণ কী?

মহান আল্লাহ তাআলার একত্ববাদের নাম তাওহিদ। আর এর প্রথম বাক্য হচ্ছে লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু মুহাম্মাদুর রাসুলুল্লাহ।

এই বাক্যটি হচ্ছে দুনিয়া ও আখিরাতে সফলতার চাবি। প্রতিটি কাজেকর্মে একজন মুমিন তাওহিদের সাক্ষ্য দেয়।

দৈনিক নামাজের মধ্যেও তাওহিদের সাক্ষ্য দিতে হয়। নামাজের মধ্যে সাক্ষ্য দেওয়ার পদ্ধতি একটু আলাদা। সংক্ষেপে আলোচনা করা হলো:

নামাজে তাশাহুদ পড়ার বিধান
সব নামাজের দ্বিতীয় রাকাতে তাশাহুদ পড়তে হয়। এটা নামাজে পাঠ করা ওয়াজিব।


ওমর (রা.) বলেন, তাশাহুদ ছাড়া নামাজ হয় না। (সুনানে বায়হাকি, হাদিস : ২৮৮৮)

আঙুল দিয়ে সাক্ষ্য প্রদান
নামাজে তাওহিদের সাক্ষ্য প্রদানের নিয়ম হলো, তাশাহুদের মধ্যে কালিমাতুশ শাহাদাতের প্রথমাংশ আশহাদু আল্লা ইলাহা বলার সময় ডান হাতের শাহাদাত আঙুল দ্বারা ইশারা করতে হয়। আর দ্বিতীয়াংশ ইল্লাল্লাহ বলার সময় ইশারা বন্ধ করে আঙুল নামিয়ে নিতে হয়। মূলত এক আঙুল দ্বারা আল্লাহ এক ও অদ্বিতীয় এ কথা বোঝানোর জন্যই ইশারা করা হয়।


ইশারা করার সময় ডান হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলির সঙ্গে মধ্যমাঙ্গুলি মিলিয়ে গোল বৃত্ত বানাতে হয়। তারপর শাহাদাত আঙুল উঁচিয়ে আল্লাহর নীরব ঘোষণা দিতে হয়।

নবীজি (সা.)-এর আমল
আব্দুল্লাহ বিন যুবাইর (রা.)থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসুলুল্লাহ (সা.) যখন দোয়া করার জন্য (তাশাহুদের বৈঠকে) বসতেন তখন ডান হাত স্বীয় ডান ঊরুর ওপর এবং বাম হাত স্বীয় বাম ঊরুর ওপর রাখতেন। আর শাহাদাত আঙুল দ্বারা ইশারা করতেন।


(এ সময়) তিনি বৃদ্ধাঙ্গুলি মধ্যমার সঙ্গে সংযুক্ত করতেন এবং বাম হাতের তালু (বাম) হাঁটুর ওপর রাখতেন। (সহিহ মুসলিম, হাদিস : ৫৭৯, সহিহ ইবনে হিব্বান : ৫/২৭০)
হাদিসে বর্ণিত হয়েছে, রাসুল (সা.) যখন দোয়া পড়তেন (অর্থাৎ তাশাহুদ পড়তেন ) তখন আঙুল দিয়ে ইশারা করতেন, কিন্তু আঙুল নাড়াতেন না। (আবু দাউদ, হাদিস : ৯৮৯, মুসনাদে আবি আওয়ানা, হাদিস : ১৫৯৪, মুসান্নাফে আব্দুর রাজ্জাক, হাদিস : ৩২৪২)

দুই হাতে ইশারা করা নিষিদ্ধ
নামাজে শুধু ডান হাতের শাহাদাত আঙুল দ্বারা ইশারা করতে হয়, দুই হাতের আঙুল দ্বারা করা নিষিদ্ধ। এ সম্পর্কে বিখ্যাত তাবেয়ি হজরত ইবরাহিম নাখয়ি (রহ.) বলেন, কোনো মুসল্লি ব্যক্তি যখন নামাজে স্বীয় (শাহাদাত) আঙুল দ্বারা ইশারা করবে, তখন তা উত্তম বলে বিবেচিত হবে। আর এটা হলো তাওহিদ তথা আল্লাহর একত্ববাদের স্বীকৃতি। তবে সে (দুই হাতের) দুই আঙুল দ্বারা ইশারা করবে না। কেননা তা মাকরুহ ও অপছন্দনীয়। (মুসান্নাফে ইবনে আবি শাইবা, হাদিস : ৮৫২৩)

শাহাদাতের সময় আঙুল নাড়ানো নিয়ে প্রায় ২০টি হাদিস পাওয়া যায়। শুধু একটি হাদিস ছাড়া কোথাও বারবার আঙুল নাড়াচাড়া করার কথা বলা হয়নি।

বাংলাদেশ সময়: ১১৪৩ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৪, ২০২৩
এফআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।