ঢাকা, শনিবার, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৩ আগস্ট ২০২২, ১৪ মহররম ১৪৪৪

আন্তর্জাতিক

ইরানে ভূমিকম্পে নিহত ৩, কাঁপলো আরও ৭ দেশ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৯৪০ ঘণ্টা, জুলাই ২, ২০২২
ইরানে ভূমিকম্পে নিহত ৩, কাঁপলো আরও ৭ দেশ

শনিবার ভোরে দক্ষিণ ইরানে শক্তিশালী ভূমিকম্পে অন্তত তিনজন নিহত ও ১৯ জন আহত হয়েছেন, রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা ইরনা এ খবর জানিয়েছে। স্থানীয় সময় শনিবার (২ জুলাই) ভোররাতে দেশটির হরমোজগান প্রদেশে এ ভূমিকম্প আঘাত হানে।

খবর এনডিটিভি

মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা (ইউএসজিএসসি) জানিয়েছে, হরমোজগান প্রদেশের বন্দর আব্বাস শহরের ১০০ কিলোমিটার (৬০ মাইল) দক্ষিণ-পশ্চিমে ৬.০ মাত্রার এ ভূমিকম্পটি আঘাত হানে। এর মাত্র কয়েক মিনিট আগে ৫.৭ মাত্রার আরেকটি ভূমিকম্প অনুভূত হয়।

স্থানীয়  গ্রাম ইসলামিক কাউন্সিলের একজন সদস্যের বরাত দিয়ে ইরনা জানিয়েছে, ভূমিকম্পের কেন্দ্রস্থলের কাছে সায়েহ খোশ গ্রামে তিনজন নিহত হয়েছেন। ধ্বংসস্তূপ থেকে তিন জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

এর আগে গত বছরের নভেম্বরে একই প্রদেশে ৬.৪ এবং ৬.৩ মাত্রার দুটি ভূমিকম্পে একজন নিহত হয়েছিল।

ভূ-অবস্থানগত কারণেই একটি ভূমিকম্প প্রবণ দেশ ইরান। দেশটি বেশ কয়েকটি টেকটোনিক প্লেটের প্রান্তে অবস্থিত এবং বিভিন্ন ফল্ট লাইন এরনিচ দিয়ে অতিক্রম করেছে।

বিগত কয়েক দশকের মধ্যে ইরানের সবচেয়ে মারাত্মক ভূমিকম্প আঘাত হেনেছিল ১৯৯০ সালে। রিখটার স্কেলে যার মাত্রা ছিল ৭,৪। দেশটির উত্তর অঞ্চলে আঘাত হানা সেই ভূমিকম্পে অন্তত ৪০ হাজার মানুষ মারা গিয়েছিল।

ইউএসজিএসসি জানিয়েছে, শনিবারের ভূমিকম্পে ইরানের প্রতিবেশী বাহরাইন, সৌদি আরব, ওমান, কাতার, সংযুক্ত আরব আমিরাত, পাকিস্তান এবং আফগানিস্তানও কেঁপে ওঠে। ।

গত ২২ জুন আফগানিস্তান-পাকিস্তান সীমান্তে আঘাত হেনেছিল ৬ দশমিক ১ মাত্রার প্রবল ভূমিকম্প। এতে পাকিস্তানে তেমন কোনো ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া না গেলেও আফগানিস্তানে এক হাজারের বেশি মানুষ নিহত হন। ভোররাতে মানুষজন ঘুমিয়ে থাকার সময় ভূমিকম্পটি আঘাত হানায় এবং পাহাড়ি অঞ্চলটির বেশিরভাগ ঘরবাড়ি মাটির হওয়ায় ক্ষয়ক্ষতি বেশি হয়েছিল বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বাংলাদেশ সময়: ০৯৩৯ ঘণ্টা, ২ জুলাই, ২০২২
এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa