ঢাকা, শনিবার, ১৮ আষাঢ় ১৪২৯, ০২ জুলাই ২০২২, ০১ জিলহজ ১৪৪৩

আন্তর্জাতিক

ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসন শুরুর পর ৩৭৫২ বেসামরিক নিহত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৪৬ ঘণ্টা, মে ১৮, ২০২২
ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসন শুরুর পর ৩৭৫২ বেসামরিক নিহত

জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনারের (ওএইচসিএইচআর) কার্যালয় জানিয়েছে, ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসন শুরু হওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত দেশটিতে সাড়ে তিন হাজারেরও বেশি বেসামরিক মানুষ নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে সারে চার হাজারেরও বেশি মানুষ।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির লাইভ আপডেট থেকে এ তথ্য জানা গেছে। প্রতিবেদনে বলা হয়, ওএইচসিএইচআর জানিয়েছে, ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসন শুরু হওয়ার পর থেকে ৩ হাজার ৭৫২ জন বেসামরিক লোক নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে ৪ হাজার ৬২ জন।

নথিভুক্ত অধিকাংশ বেসামরিক মানুষের প্রাণহানি হয়েছে গোলাবর্ষণ, ক্ষেপণাস্ত্র এবং বিমান হামলার কারণে। সংঘর্ষে বেসামরিক মৃত্যুর প্রকৃত পরিসংখ্যান আরও বেশি বলে বিশ্বাস করে করে ওএইচসিএইচআর।

এদিকে, আজভ সাগরের উত্তর উপকূলে ইউক্রেনের শহর মারিওপোল দখলে নিয়েছে রুশ সেনারা। রাশিয়া জানিয়েছে, দখলে নেওয়ার পর ইউক্রেনের প্রায় ১ হাজার সেনা আত্মসমর্পণ করেছে। বার্তা সংস্থা এপির খবরে বলা হয়েছে, কৌশলগত বন্দর নগরীতে যুদ্ধ শেষ হয়ে গেছে। ইউক্রেনে প্রতিরোধের প্রতীক হয়ে ওঠা শহরটি প্রতিরক্ষাকারীরা পরিত্যাগ করেছে।

ইউক্রেন বলছে, যোদ্ধাদের নিজের জীবন রক্ষার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। রুশ বাহিনীকে বেঁধে রাখার মিশন শেষ হয়েছে বলেও জানায় কিয়েভ কর্মকর্তারা।

এদিকে রাশিয়া দাবি করলেও ইউক্রেন তাদের সৈন্যরা আত্মসমর্পণ করেছে; সেটি মানতে নারাজ। দেশটির কর্মকর্তারা বলেছেন, যোদ্ধারা একটি অনিশ্চিত ভাগ্যের মুখোমুখি হয়ে পড়েছে।

রাশিয়ার দাবি সত্য হয়ে থাকলে, মারিওপোল হবে রুশ সেনাদের দখলে নেওয়া প্রথম কোনো গুরুত্বপূর্ণ শহর।

রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রধান মুখপাত্র ইগোর কোনাশেনকভ বলেছেন, পুরো মারিওপোল সম্পূর্ণভাবে মুক্ত করা হয়েছে। কিছু ইউক্রেনীয় সৈন্য শহরের আজভস্তাল এলাকার একটি স্টিল কারখানায় রয়ে গেছে। তাদের ঘিরে রাখা হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, কতজন ইউক্রেনীয় সেনা ওই স্টিল কারখানার অভ্যন্তরে রয়েছেন তা পরিষ্কার নয়। শহরটি ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে।

বুধবার (১৮ মে) কোনাশেনকভ আরও জানান, ৯৫৯ ইউক্রেনীয় সেনারা আজভস্তাল প্ল্যান্ট ছেড়ে গেছে। এলাকাটিতে ২ হাজারেরও বেশি সৈন্যের অবস্থান ছিল। তিনি বলেন, যারা ভেতরে রয়ে গেছে তাদের প্রাণ বাঁচানোর একমাত্র উপায় আত্মসমর্পণ।

শহরটিতে থাকা ইউক্রেনীয় সেনাদের আত্মসমর্পণ করতে শনিবার পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়েছে মস্কো। বলা হয়েছে, এদিন স্থানীয় সময় সকাল ৬টা থেকে দুপুর ১টার মধ্যে স্টিল কারখানা ছেড়ে চলে যেতে হবে ইউক্রেনীয় সেনাদের।

সূত্র: বিবিসি, এপি

বাংলাদেশ সময়: ১৭৪০ ঘণ্টা, ১৮ মে, ২০২২
এমজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa