ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৩ আষাঢ় ১৪২৯, ০৭ জুলাই ২০২২, ০৭ জিলহজ ১৪৪৩

আন্তর্জাতিক

আমাদের একজন চার্লি চ্যাপলিন দরকার: কানের অনুষ্ঠানে জেলেনস্কি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩৫৪ ঘণ্টা, মে ১৮, ২০২২
আমাদের একজন চার্লি চ্যাপলিন দরকার: কানের অনুষ্ঠানে জেলেনস্কি কান চলচ্চিত্র উৎসকে ভাষণ দেন ভলোদিমির জেলেনস্কি

পর্দা উঠেছে কান চলচ্চিত্র উৎসবের ৭৫তম আসরের। মঙ্গলবার (১৭ মে) বাংলাদেশ সময় রাত ১১টা ১৫ মিনিটে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন হয়।

ফ্রান্সের কান শহরে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে ভাষণ দিয়েছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। সেখানে যুদ্ধের বিরুদ্ধে দাঁড়াতে এখন একজন চার্লি চ্যাপলিনের প্রয়োজন বলে তিনি মন্তব্য করেছেন।

কান অনুষ্ঠানের উদ্বোধনীতে স্যাটেলাইটের মাধ্যমে সরাসরি যুক্ত হন জেলেনস্কি। তার বক্তব্যের সময় উপস্থিত সবাই তাকে দাঁড়িয়ে সম্মান জানান। দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস’র প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নিজ ভাষণে ‘দ্য গ্রেট ডিক্টেটর’ ও ‘অ্যাপোক্যালিপস নাউ’ সিনেমার উদাহরণ টানেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট। চলচ্চিত্রে যুদ্ধ ও স্বৈরশাসকদের অবস্থান তুলে ধরতে উদাহরণগুলো দেন তিনি।

কান চলচ্চিত্রের এ অনুষ্ঠানে সাবেক এ অভিনেতা রুশ আগ্রাসনের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য বিশ্বজুড়ে সবার সমর্থনের আবেদন জানান। তিনি বলেন, ইউক্রেন গণকবরে ভরে গেছে; প্রতিদিন আমার দেশের মানুষের মৃত্যু হচ্ছে। রক্তাক্ত, ক্ষত-বিক্ষত হয়ে পড়েছে আমাদের আমাদের সাজানো রঙিন দেশ। অথচ, বিশ্ব সিনেমা নিশ্চুপ! কিন্তু এমন তো হওয়ার কথা ছিল না। বিশ্ব সিনেমা কি এভাবেই নিশ্চুপ থাকবে? তারা কি ইউক্রেনের পাশে দাঁড়াবে না?

অনুষ্ঠানে বিশ্ববিখ্যাত কৌতুক অভিনেতা চার্লি চ্যাপলিনেরও উদাহরণ টানেন জেলেনস্কি। মনে করিয়ে দেন, ১৯৪০ সালে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় হিটলারের আগ্রাসী নীতির বিরুদ্ধে চার্লির রুখে দাঁড়ানোর কথা। দ্য গ্রেট ডিক্টেটর সিনেমায় হিটলার সেজে অভিনয় করেছিলেন চার্লি চ্যাপলিন। তার ওই সিনেমা বিশ্বব্যাপী যুদ্ধের বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদী রূপ হয়ে উঠেছিল। জেলেনস্কি বলেন, আমাদের এখন নতুন একজন চ্যাপলিন দরকার। যিনি প্রমাণ করবেন, আমাদের সময়ে সিনেমা নীরব নয়।

তিনি আরও বলেন, সিনেমার জন্য নীরব না থাকা আবশ্যক। যারা আমার কথা শোনে তাদের আমি বলছি, হতাশ হবেন না।

একটা সময় আসবে মানুষের ঘৃণা কেটে যাবে উল্লেখ করে ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেন, স্বৈরশাসকদের মৃত্যু হবে। তারা যে ক্ষমতা জনগণের কাছ থেকে নিয়েছিল; তা জনগণের কাছে ফিরে আসবে। স্বাধীনতা কখনই বিনষ্ট হবে না।

অনুষ্ঠানে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের নাম না নিয়ে জেলেনস্কি বলেন, আমি নিশ্চিত যে স্বৈরশাসক হেরে যাবে। এই যুদ্ধে আমরা জিতবই।

সূত্র: দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস

বাংলাদেশ সময়: ১৩৫৫ ঘণ্টা, ১৮ মে, ২০২২
এমজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa