ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ শ্রাবণ ১৪২৮, ০৫ আগস্ট ২০২১, ২৫ জিলহজ ১৪৪২

আন্তর্জাতিক

চীনা হিসেবে নিবন্ধন করায় নরওয়ের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে তাইওয়ানিজরা

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১২ ঘণ্টা, জুন ১৮, ২০২১
চীনা হিসেবে নিবন্ধন করায় নরওয়ের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে তাইওয়ানিজরা

পরিচয় সংকটের সাথে লড়াই করে তাইওয়ানের নাগরিকরা যারা তাইওয়ানের পরিবর্তে 'চীনা' হিসেবে নিবন্ধন করতে বাধ্য হয়েছেন, তারা নরওয়ে সরকারের বিরুদ্ধে আইনগতভাবে লড়াই করছেন। তারা এখন বিষয়টি ইউরোপীয় মানবাধিকার আদালতে নিয়ে গেছেন।

তাইপেই টাইমস জানিয়েছে, ২০১০ সালে চীনের সাথে কূটনৈতিক বিরোধের পর নরওয়ে তার তাইওয়ানের অধিবাসীদের জাতীয়তা পরিবর্তন করে ‘চীনা’ করে তুলেছিল।

জোসেফ লিউ, যিনি মানবাধিকার সম্পর্কে পড়াশোনার জন্য নরওয়েকে বেছে নিয়েছিলেন, তিনি গত চার বছর ধরে তার জাতীয় পরিচয় ব্যবহারের অধিকারের জন্য দেশের সরকারের সাথে লড়াই করছেন।

লিউ এবং অন্যান্যরা তহবিল সংগ্রহের জন্য ‘মাই নেম, মাই রাইট’ আন্দোলন শুরু করেন এবং কর্তৃপক্ষকে দেশের পদবী তাইওয়ানে ফিরিয়ে আনার জন্য চাপ দেন। অবশেষে তারা মামলাটি নরওয়ের সর্বোচ্চ আদালতে নিয়ে যায়, যেখানে তারা গত বছরের নভেম্বরে হেরে যায়।  

লিউ অভিযোগ করেছিলেন, আদালতে তাদের নিজেদের প্রতিনিধিত্ব করার সুযোগও ছিল না। বিচারক আমাদের অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে আমাদের প্রত্যাখ্যান করেছেন। আমি নরওয়ের আইন ব্যবস্থায় বেশ হতাশ।  

লিউ এবং তার দল গত মাসে ফ্রান্সের ইউরোপিয়ান কোর্ট অব হিউম্যান রাইটস (ইসিএইচআর)-এ একটি মামলা দায়ের করেছেন, যেখানে আদালতের বিশাল কেসলোডের কারণে মামলাটি গৃহীত হয়েছে কিনা তা দেখার জন্য তাদের এখন এক বছর পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।  

যদি ইসিএইচআর মামলাটি প্রত্যাখ্যান করে, বিষয়টি জাতিসংঘে নিয়ে আসার পরিকল্পনা করেছেন তারা।

তিনি বলেন, আমরা জিতছি কি না তাতে কিছু যায় আসে না, কিন্তু আমাদের কথা বলতে হবে। কিছু না বলার অর্থ হল আমরা নিঃশব্দে চীনা হিসাবে মনোনীত হওয়ার সত্যটি মেনে নিয়েছি।

বাংলাদেশ সময়: ২০০০ ঘণ্টা, জুন ১৮, ২০২১
নিউজ ডেস্ক 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa