bangla news

যেভাবে করোনা মোকাবিলা করছে কেরালা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৩-১৭ ১:৪১:৪৬ পিএম
সম্পূর্ণ সুরক্ষিত পোশাক পরা কেরালার স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা। ছবি: সংগৃহীত

সম্পূর্ণ সুরক্ষিত পোশাক পরা কেরালার স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা। ছবি: সংগৃহীত

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে ভারতের কেরালা রাজ্যের কার্যক্রম বেশ আশ্বাসদায়ক ও শিক্ষামূলক। প্রতিদিন তথ্য আপডেট করা এবং মহামারি সম্পর্কিত ব্যবহারিক তথ্য যথাযথভাবে ছড়িয়ে দেওয়ায়ই শুধু নয়, করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় রাজ্য সরকারের আরও অনেক উদ্যোগই কার্যকর হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৭ মার্চ) আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম হাফিংটন পোস্ট এ তথ্য জানায়।

ভারতের প্রথম তিন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়েছে কেরালায়। তারা চিকিৎসাধীন রয়েছেন। রাজ্য সরকারের যথাযথ উদ্যোগে রোগটির সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হয়েছে।

সোমবার (১৬ মার্চ) পর্যন্ত কেরালায় ২২ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এছাড়া রাজ্যজুড়ে ১০ হাজার ৯৯৪ জন পর্যবেক্ষণে রয়েছেন। তাদের মধ্যে ২৮৯ জন বিভিন্ন হাসপাতালে কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন।

এ পর্যন্ত ২ হাজার ১১৭ জনের রক্তের নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। এর মধ্যে ১ হাজার ৫১৪টির ফল নেগেটিভ এসেছে।

রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী শৈলাজা জানান, করোনা ভাইরাস মহামারি প্রতিহত করতে কেরালা সরকারের নেওয়া ব্যবস্থাগুলো হলো: কোভিড-১৯ রোগীরা কাদের সংস্পর্শে এসেছেন, তাদের শনাক্ত করার জন্য ট্র্যাকিং করা। বিদেশ থেকে আগতদের খোঁজ নেওয়ার জন্য প্রতিটি এলাকায় কর্মী নিযুক্ত রয়েছেন। সামান্য লক্ষণ দেখা দেওয়া মাত্রই তাদের নিজ বাড়িতে কোয়ারেন্টিনে রাখা হচ্ছে। প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত স্বাস্থ্যকর্মীরা তাদের সাহায্যে নিয়োজিত রয়েছেন।

হাসপাতালে আসার আগ পর্যন্ত কোভিড-১৯ রোগীরা যেসব স্থানে চলাচল করেছেন, তার ‘রুট ম্যাপ’ তৈরি করা হচ্ছে। জেলা পর্যায়ে স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের নেতৃত্বে এ জন্য আলাদা দল গঠন করা হয়েছে।

কেন্দ্রে কোয়ারেন্টিনের জন্য ১৪ দিন সময় নির্ধারণ করা হলেও কেরালায় এ সময় ২৮ দিন। এ সময়টা যেন তারা স্বস্তিতে পার করতে পারেন, সেজন্য তাদের পছন্দের খাবার বাছাই করে দেওয়া হচ্ছে; ওয়াইফাই ও কাউন্সেলিংয়ের ব্যবস্থা রয়েছে। এসময় তাদের মানসিক স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য একাধিক কলসেন্টার গঠন করা হয়েছে। তাদের উদ্বেগ ও দুশ্চিন্তা দূর করার জন্য হটলাইনের মাধ্যমে কাউন্সেলিংয়ের সুবিধা রয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৪১ ঘণ্টা, মার্চ ১৭, ২০২০
এফএম

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   ভারত করোনা ভাইরাস
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-03-17 13:41:46