ঢাকা, মঙ্গলবার, ১০ কার্তিক ১৪২৮, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

আন্তর্জাতিক

দক্ষিণ কোরিয়ায় ৭০০০ বছর পুরনো বৈঠা আবিষ্কার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৪৫৭ ঘণ্টা, আগস্ট ১৭, ২০১০
দক্ষিণ কোরিয়ায় ৭০০০ বছর পুরনো বৈঠা আবিষ্কার

সিউল: দক্ষিণ কোরিয়ার প্রত্নতত্ত্ববিদরা মঙ্গলবার ৭০০০ বছর আগের নিওলিথিক যুগের কাঠের তৈরি একটি নৌকার বৈঠা আবিষ্কার করেছেন। এ সময় বৈঠাটি ভালো অবস্থা পাওয়া গেছে বলেও জানান তারা।



জিমহায়ে জাতীয় জাদুঘর কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সিউল থেকে ২৪০ কিলোমিটার দূরে চাংনিয়ং অঞ্চলের মাটি খুঁড়ে বৈঠাটি পাওয়া গেছে।

জাদুঘরের গবেষক ইউন অন-শিক বলেন, “এটি বিরল আবিষ্কার। কেবল দক্ষিণ কোরিয়াতেই না, সারা বিশ্বেই এটি বিরল। ”

তিনি আরও বলেন, “চীনের প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শনগুলোর সঙ্গে পরীক্ষা করে দেখতে হবে এটাই পৃথিবীর সবচেয়ে পুরনো পানির প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন কিনা। ”

২০০৫ সালে একটি প্রাচীন নৌকা বা এরকম একটি প্রত্নতাত্ত্বিক নির্দশন চীনের ঝেজিয়াং প্রদেশে পাওয়া গেছে। মনে করা হয়, এটি ৮০০০ বছর পুরনো।

দক্ষিণ কোরিয়ায় বৈঠাটি সম্পূর্ণ অবস্থায় পাওয়া গেছে এবং এর দৈর্ঘ্য প্রায় ছয় ফুট।

ইউন বলেন, “বৈঠাটি বেশ ভালো অবস্থায় পাওয়া গেছে। কারণ কাদার স্তরগুলো অক্সিজেন প্রতিরোধী হিসেবে কাজ করেছে। ফলে বৈঠাটির য় হয়নি। ” পাইন গাছের কাঠ থেকে বৈঠাটি তৈরি বলেও জানান।

এই আবিষ্কার থেকে ধারণা করা হচ্ছে, নিওলিথিক সময়ে নৌকাযোগে জাপান ও কোরীয় উপদ্বীপের সঙ্গে এক ধরনের বাণিজ্য চলতো।

এদিকে, ১৯৯৯ সালে জাপানের প্রত্নতত্ত্ববিদরা ৬০০০ বছর পুরনো একটি বৈঠা আবিষ্কার করেন। এটি জাপান সাগরে পাওয়া যায়।

বাংলাদেশ স্থানীয় সময়: ১৬২৬ ঘণ্টা, আগস্ট ১৭, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa