ঢাকা, বুধবার, ১ শ্রাবণ ১৪৩১, ১৭ জুলাই ২০২৪, ১০ মহররম ১৪৪৬

আন্তর্জাতিক

ইলন মাস্কের বিরুদ্ধে শারীরিক সম্পর্কের প্রস্তাব দেওয়ার অভিযোগ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৫৫ ঘণ্টা, জুন ১২, ২০২৪
ইলন মাস্কের বিরুদ্ধে শারীরিক সম্পর্কের প্রস্তাব দেওয়ার অভিযোগ

যুক্তরাষ্ট্রের ধনকুবের ইলন মাস্কের বিরুদ্ধে ‘সন্তান জন্ম ও শারীরিক সম্পর্কের প্রস্তাব’ দেওয়ার মতো গুরুতর অভিযোগ করেছেন তার প্রতিষ্ঠানে চাকরি করতে আসা দুই তরুণী। এ ছাড়া আরও একাধিক তরুণী বলেছেন, ইলন তাদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হতে যৌন উত্তেজনামূলক পরিবেশ সৃষ্টি করতেন।

ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল ও দ্য ভার্জ জানিয়েছে, অভিযোগকারীরা বেশিরভাগ ইলনের স্পেসএক্সে ইন্টার্ন করতে এসেছিলেন। আবার কয়েকজন কর্মচারীও রয়েছেন।

প্রতিবেদনগুলোয় বলা হয়, ইলন তার এক তরুণী ইন্টার্নকে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের প্রস্তাব দিয়েছিলেন। আরেকজনকে তার বাচ্চা জন্ম দেওয়ার প্রস্তাব দেন। তারা টেসলায় কাজ করতেন।

ইলন মাস্কের বিরুদ্ধে ওই দুই তরুণী অভিযোগ করেছেন, টেসলার মালিক তাদের দিকে অস্বাভাবিকভাবে মনোযোগী হতেন। তাদের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তুলেছিলেন। অভিযোগকারীদের একজন ইন্টার্ন, অন্যজন কর্মচারী।

ইলন স্পেসএক্স ও টেসলায় এমন সংস্কৃতি তৈরি করেছেন যেখানে নারী কর্মীরা অস্বস্তিকর অবস্থায় পড়েন।

এর আগে ইলন মাস্কের বিরুদ্ধে নিয়মিত এলএসডি, কোকেন, উত্তেজনা সৃষ্টিকারী ওষুধ, মাশরুম ও কেটামিনসহ বিভিন্ন রকম ড্রাগ ব্যবহারের অভিযোগ ওঠে। পরিচালনা পরিষদের সদস্যদের সামনেই তিনি এসব ব্যবহার করবেন।

তার বিরুদ্ধে কর্মক্ষেত্রে অনুপযুক্ত পরিবেশ সৃষ্টি করার অভিযোগ আছে। যেমন, তিনি এমন এমন কিছু কৌতুক করতেন যার মাধ্যমে ‘যৌন সুড়সুড়ি’ দেওয়া হতো। যৌন হয়রানিও ছিল একটি সাধারণ বিষয়। পুরুষ বা অন্য কর্মীদের তুলনায় নারীদের বেতন দেওয়া হতো কম। যারা এটা নিয়ে অভিযোগ করতেন, তাদেরকে চাকরিচ্যুত করা হতো।

স্পেসএক্সের একজন ফ্লাইট অ্যাটেনডেন্ট অভিযোগ করেছেন, ইলন মাস্ক এক নারী কর্মীর সামনে নিজেকে নগ্ন করে ফেলেন। ওই নারীর সঙ্গে যৌনতার বিনিময়ে একটি ঘোড়া কিনে দেওয়ার প্রস্তাব দেন। এটি ঘটে ২০১৬ সালে।

২০১৩ সালে স্পেসএক্স থেকে পদত্যাগ করেছেন এমন আরেকজন নারী বলেন, বহুবার ইলন মাস্ক তাকে তার সন্তান ধারণ করার প্রস্তাব দিয়েছেন। বিলিয়নিয়ার মাস্কের কমপক্ষে ১০টি সন্তান আছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

মার্কিন ধনকুবেরের একটি কথা উদ্ধৃত করে অভিযোগকারী বলেন, তিনি (ইলন) বলেন বিশ্বে জনসংখ্যা কমে যাচ্ছে। এটা একটা সংকট। এ অবস্থায় উচ্চ মাত্রার আইকিউ সম্পন্ন মানুষের প্রয়োজন।

এসব প্রতিবেদনকে স্পেসএক্স ও ইলন মাস্কের আইনজীবীরা ‘রাবিশ’ বলে তা প্রত্যাখ্যান করেছেন। এই রিপোর্টে যে তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে তা অসত্য বলেও দাবি করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৫৫ ঘণ্টা, জুন ১২, ২০২৪
এমজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।