bangla news

অতিরিক্ত টুইট স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১২-০২-২৫ ৬:০৪:৩০ এএম

অনলাইন সামাজিক মাধ্যমগুলোর মধ্যে ফেসবুকের পরেই আসে টুইটারের নাম। বিশ্ব তথ্যপ্রযুক্তিতে এরইমধ্যে  সাইটটি ব্যাপক খ্যাতি অর্জন করেছে।

ঢাকা : অনলাইন সামাজিক মাধ্যমগুলোর মধ্যে ফেসবুকের পরেই আসে টুইটারের নাম। বিশ্ব তথ্যপ্রযুক্তিতে এরইমধ্যে  সাইটটি ব্যাপক খ্যাতি অর্জন করেছে।

প্রযুক্তিবিদ, প্রযুক্তিভক্তসহ বিশ্বের নামিদামি তারকা এবং গুণীব্যক্তিরা পর্যন্ত এ সাইটরে অনুরাগী হয়ে উঠেছে।

কিন্তু তাদের জন্য এক খারাপ খবরই দিল টুইটারের সহ-প্রতিষ্ঠাতা। কারণ তিনি ব্যবহারকারীদের উদ্দেশ্যে সর্তক বার্তা দিয়েছেন-অতিরিক্ত টুইট স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর।

কানাডার মনট্রিল শহরে আয়োজিত এক ব্যবসা বিষয়ক বৈঠকে আলাপচারিতায় তিনি বলেন, ব্যবহারকারীরা ঘণ্টাধিক সময় এ সাইটে ব্যয় করে। তাহলে তার স্বাস্থ্য সমস্যা দেখা দেবে।

টুইটারের সাইটটির সৃষ্টিশীল কর্মের পরিচালক পর্যায়ের আরেক কর্তা বিজ স্টোন বলেন, ব্যবহারকারীদের উচিত এখানকার তথ্যাদি জানবার আর সেগুলো পাওয়া মাত্র সাইটটিতে অযথা সময় দেওয়া ঠিক নয়। স্টোন আরও বলেন, একবারে দীর্ঘক্ষণ সময় দেওয়ার বিষয়টি ব্যবহারকারীদের স্বাস্থ্যের জন্য হুমকির আশঙ্কা হিসেবে দেখা দিচ্ছে।

স্টোন আরও বলেন, গুরুত্বপূর্ণ কাজে যাওয়ার সময় তুমি ওয়েবসাইট থেকে বিরত থাক কারণ তোমার প্রয়োজনীয় মজার কিছু বিষয় খুঁজে পেয়েছ আর তাতে কিছু একটা অর্জন করেছ।

তিনি বলেন, আমার মতে এটা খুবই স্বাস্থ্যসম্মত। এজন্য আমাদের চাওয়াটা এতটাই সুস্পষ্ট যে ব্যবহারকারীদের টুইটে অভ্যাসের সময় স্বাস্থ্যের বিষয়টি খেয়াল রাখতে হবে।

উল্লেখ্য, অনলাইন পরিসংখ্যান হিসেবে টুইটারে বর্তমান ব্যবহারকারী সংখ্যা প্রায় ৫০ কোটি।

এদিকে কানাডার মন্ট্রিলে প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানা যায়, অনলাইনের এই সোশ্যাল গুরুর শব্দ সংখ্যা বাড়ানোর কোনো চিন্তা নেই। নির্দিষ্ট ১৪০ শব্দের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে।

বাংলাদেশ সময় : ১৪৩১ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০১২

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2012-02-25 06:04:30