bangla news
জানান আপনার সমস্যা ও মতামত

অস্থিরতা

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৩-১২-০১ ৪:৫৬:০৮ এএম

আপনি নিজে যদি একটু খেয়াল করেন তাহলে বুঝতে পারবেন- আবেগ আপনাকে যেভাবে তাড়িত করে সেদিকেই আপনার মনোযোগ বেশি হয়। আপনার কথা থেকে এটিও স্পষ্ট যে, আবেগ নিয়ন্ত্রণ করার বিষয়টি নিয়ে আপনি এতোদিন হয়তো কিছুই ভাবেননি এবং চেষ্টাও করেননি।

প্রশ্ন: Amar Problem ta holo olpo kesutai ostir feel kori,tarahurir majay kuno decession niea nai,kuno cinta kora saray,jokhon kuno kesu feel hoi tokho oi kaj ta na korly monar majay kuv ostirota sisti hoi,ja maja maja amar kajay problem hoiea darai.Ami bultay saila o bultay pari na...Jokhon class a lecture dai tokhon monojog shohokaray suni but few time later amar mon kutai hariea jai ami boltay pari na,Hottat abar sense feray ashi..r olpotai ame ragay jai....but poray bujtay pari amar raga ta tik hoini.....Tasara ami aktu abagmoi...keno kesutai abag a joriea jai..ja amar monka olpo time ar jonno anondo dai but tar kosto ta bashe....
Ai Thakay ami ke vabay mukto hotay pari....janalay opokrito hobo...

Amar Name- Kamrul
Age-28

আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। আপনার প্রশ্নের ভেতর অনেকগুলো ভাগ আছে। যদি ভাগ করি, তবে দাঁড়ায়-
১.    আপনি অস্থির স্বভাবের, তাড়াতাড়ি সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন
২.    আপনি কিছু বিষয় ভুলে যেতে চান কিন্তু পারেন না
৩.    মনোযোগ ধরে রাখতে পারেন না
৪.    তাড়াতাড়ি রেগে যান
৫.    আপনি আবেগময়

উপরের প্রশ্নগুলো বা ভাগগুলোর উত্তর এক কথায় দেওয়া সম্ভব নয়, সেটি নিশ্চয়ই এতক্ষণে আপনিও বুঝতে পেরেছেন। কিন্তু আপনার সমস্ত বিষয়গুলোকে যদি সাজানো হয়, তবে একটা কিছু অনুমান করা যায়।

আপনি নিজে যদি একটু খেয়াল করেন তাহলে বুঝতে পারবেন- আবেগ আপনাকে যেভাবে তাড়িত করে সেদিকেই আপনার মনোযোগ বেশি হয়। আপনার কথা থেকে এটিও স্পষ্ট যে, আবেগ নিয়ন্ত্রণ করার বিষয়টি নিয়ে আপনি এতোদিন হয়তো কিছুই ভাবেননি এবং চেষ্টাও করেননি।

নিয়ন্ত্রণ কম বলেই হয়তো, তাড়াতাড়ি রেগে যান। অথবা সমান্য সমস্যাতেই যত তাড়াতাড়ি সম্ভব একটা সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন। বেশীক্ষণ কোনো সমস্যা নিয়ে পড়ে থাকার মানসিকতাও নেই বলেই হয়তো, অস্থিরতা কাজ করে, মনোযোগ ধরে রাখতে পারেন না এবং অপছন্দদের বিষয়গুলোকে ভুলে যেতে চান।

আপনার জন্য কয়েকটি বিষয় অবশ্যই মনে রাখতে হবে। আবেগ পৃথিবীর প্রতিটি মানুষেরই থাকে। থাকতে হয়। তা না হলে কেউই চলতে পারতো না, কিছুই করতে পারতো না। আবেগ দিয়েই মানুষ তাড়িত হয়ে, মোটিভেটেড হয়। সুতরাং এটি প্রয়োজনীয় সন্দেহ নেই। কিন্তু কথা হলো, কতটুকু? কখন এবং কিভাবে?

আপনি হয়তো কিছু চাইছেন, তখনই সেটা পাবার কোনো রাস্তা নিশ্চয়ই নেই। সুতরাং সঠিক সময় বা অবস্থার জন্য অপেক্ষা করতে হবে, সেটাই স্বাভাবিক। তার জন্যই প্রয়োজন আত্মনিয়ন্ত্রণ। নিজের অস্থিরতাকে কমিয়ে আনতে হবে, নিজের ভেতর যুক্তি (গ্রহণযোগ্য) তৈরি করতে হবে।

আর রাগের অনেক কারণের মাঝে, যে কারণটি সবচেয়ে প্রচলিত ও গুরুত্বপূর্ণ তা হলো, চাহিদা বা এক্সপেকটেসন। চাহিদা যত বেশি, না পাওয়ার কারণে রাগ তত বেশি। সেটিও এক ধরনের অনিয়ন্ত্রিত আবেগ।

সুতরাং এটা বোঝা গেলো যে, আপনার অস্থিরতা, তড়িঘড়ি সিদ্ধান্ত নেওয়া, রেগে যাওয়া এবং মনোযোগ ধরে রাখতে না পারা সবই অনিয়ন্ত্রিত আবেগের কারণে।

আবার বললেই আপনি আপনার আবেগকে নিয়ন্ত্রণ করে ফেলবেন এমনও নয়। তবে বিষয়টি প্রথমে বুঝে নেওয়াটা জরুরি। আবেগ নিয়ন্ত্রণের বিষয়টি অনেক কিছুর ওপর নির্ভর করে। যেমন, ছোটবেলা থেকে বেড়ে ওঠা, প্রশ্রয়-আশ্রয়ের নিয়ন্ত্রণ, অভ্যস্ততা, সময়, সম্পর্ক এমন অনেক কিছুর সাথে সম্পর্কযুক্ত। এ বয়সেও আপনি আপনার আবেগকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন।

তার আগে একটি কথা মনে রাখতে হবে, তা হলো এ অনিয়ন্ত্রিত আবেগের কারণ কি, সেটি জানা। তারপর প্রয়োজন মতো কোনো ব্যাবস্থা নেওয়া। আপনাকে অনুরোধ করবো কোনো একজন বিশেষজ্ঞের সঙ্গে সরাসরি যোগযোগ করুন।

আপনার জন্য, আরেকটি জরুরি কথা হলো, আপনি কিছু বিষয় ভুলে যেতে চান। এমন অনেক মানুষ বা রোগীকে আমরা পাই যারা কিছু কিছু ঘটনা বা স্মৃতি ভুলে যেতে চায়। অনাকাঙ্খিত আবেগ ভিতর তোলপাড় করে, তাই সে অনুভূতি মনুষের কাঙ্খিত হয় না। ক্ষত বা রক্তাক্ত কোনো কিছুই মানুষের নিজের জগতকে আনন্দিত করে না। তাই মানুষ ভুলতে চায়!!

বিজ্ঞান বড় নিষ্ঠুর! কিছুই ভোলায় না। মানুষ কিছুই ভুলতে পারেনা। ভুলতে হলে পেছনের পৃথিবীকেই ভুলে যেতে হবে। সেকি সম্ভব!! আবারো সেই আবেগের কথা আসে, ভুলতে চাওয়া নয়। বরং অনিয়ন্ত্রিত দুঃখবোধকে কিংবা রাগান্বিত অনুভূতিকে নিয়ন্ত্রণ করতে জানতে হবে। আপনার জন্য মঙ্গল কামনা।

আপনার সমস্যা ও মতামত জানান এই মেইলে- monokotha@gmail.com

বাংলাদেশ সময়: ১৫৪০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০১, ২০১৩

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2013-12-01 04:56:08