ঢাকা, বুধবার, ১৩ আশ্বিন ১৪২৯, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

ফুটবল

ফুটবল ছাড়ার ঘোষণা দিল সাইফ স্পোর্টিং 

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, স্পোর্টস | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭১৯ ঘণ্টা, আগস্ট ৩, ২০২২
ফুটবল ছাড়ার ঘোষণা দিল সাইফ স্পোর্টিং 

সব ধরনের ফুটবল থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব লিমিটেড।

আজ বুধবার ক্লাবটির চেয়ারম্যান ও সাইফ পাওয়ার টেকের প্রধান নির্বাহী তরফদার মোহাম্মদ রুহুল আমিন সাংবাদিকদের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, 'বর্তমান বৈশ্বিক পরিস্থিতির কারণে আমাদের পক্ষে ফুটবল কার্যক্রম পরিচালনা করা সম্ভব নয়। এ কারণে সব ধরনের ফুটবল কার্যক্রম থেকে নিজেদের সরিয়ে নিচ্ছি আমরা। যে পরিমাণ ব্যয় এর বিপরীতে রিটার্ন সেভাবে আসছে না। জাতীয় ফুটবলে সেভাবে প্রভাব পড়ছে না। এর পাশাপাশি গ্রুপের ব্যবসা বাণিজ্যিক কাজে ব্যস্ততাও অনেক। দল পরিচালনায় অনেক সময় প্রয়োজন। সময় দেয়াও কঠিন হয়ে যাচ্ছে গ্রুপের পক্ষ থেকে। ’

তবে ফুটবল ছাড়লেও তারা দাবায় থাকবেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

এদিকে সাইফ স্পোর্টিংয়ের ফুটবল ছাড়ার বিষয়ে আনুষ্ঠানিক  বিবৃতি দিয়েছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। দেশের ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থার সাধারণ সম্পাদক আবু নাঈম সোহাগ স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে বলা হয়, সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব লিমিটেড আমাদের টিঠি দিয়ে জানিয়েছে তারা আপাতত ফুটবল থেকে কিছুদিন বিরতিতে থাকতে চায়। সেক্ষেত্রে প্রিমিয়ার লিগসহ দ্বিতীয় বিভাগেও সাইফের যে দল খেলতো সেটা আর হচ্ছে না। ’

‘ফুটবল থেকে সরে যাওয়ার কারণ হিসেবে সাইফ বৈশ্বিক অর্থনৈতিক পরিস্থিতির কথা উল্লেখ করেছে। তবে বর্তমানে ফুটবলের উন্নতি এবং আগামীতে ফুটবলের উন্নতির জন্য চিঠিতে তারা শুভ কামনা জানিয়েছে। ’

কোনও ক্লাব ফুটবল খেলতে না চাইলে সরে যেতে পারে। এতে কোনও সমস্যা নেই বলে জানিয়েছেন বাফুফের সাধারণ সম্পদক। তিনি বলেন, আমরা আর্ন্তজাতিক ক্লাব লাইসেন্সিংয়ের যেই নিয়ম আছে, সেটা অনুকরণ করেই চলি। যদি কোনও দল সরে যেতে চায়, তারা যেতে পারে। আর্ন্তজাতিক নিয়মে এটায় কোনও বাধা নেই। ’

সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব ফুটবল থেকে সরে যাওয়া দলের খেলোয়াড়দের এখন নতুন ঠিকানা খুঁজতে হবে। এ নিয়ে সোহাগ বলেন, 'আসলে প্রতি মৌসুমের পরই দলের ফুটবলারদের নতুন ঠিকানা খুঁজতে হয়। আমাদের এখানে প্রতি মৌসুমের জন্য চুক্তি করা হয়। এরপর নতুন মৌসুমে নতুন করে রেজিস্ট্রেশন করতে হয়। সাইফের চলে যাওয়ায় খুব একটা সমস্যা হওয়ার কথা না। ’

সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব ঘরোয়া ফুটবলে প্রথম কর্পোরেট দল হিসেবে আবির্ভূত হয়েছিল। জাতীয় দলের অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া এখানে অধিনায়কত্ব করেছেন কয়েক বছর। পাশাপাশি জাতীয় দলে তাদের একাধিক ফুটবলার রয়েছে।

ক্লাবটি ক্লাব মাস দু’য়েক আগে যুব দলের ট্রেনিং করিয়েছিল। সেই সকল কার্যক্রমও বন্ধ হয়ে যাবে। সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব এবারের লিগে নিজেদের সেরা সাফল্য পেয়েছে। এবারই সর্বোচ্চ তৃতীয় স্থান অর্জন করেছে। কিন্তু লিগ শেষ হওয়ার এক দিন পরেই সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব লিমিটেডের এই অবস্থান অবাক করেছে ফুটবলের পাশাপাশি পুরো ক্রীড়াঙ্গনকেই।

বাংলাদেশ সময়: ১৭১৯ ঘণ্টা, আগস্ট ৩, ২০২২
এআর/এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa