ঢাকা, শুক্রবার, ৭ মাঘ ১৪২৮, ২১ জানুয়ারি ২০২২, ১৭ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

ফিচার

চলন্ত ক্যানভাসে আঁকাআঁকি

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৭৩২ ঘণ্টা, মে ২২, ২০১৭
চলন্ত ক্যানভাসে আঁকাআঁকি চলন্ত ক্যানভাসে আঁকাআঁকি-ছবি: দীপু মালাকার

ঢাকা: চলাচলের যানবাহনের মধ্য তিন চাকার বাহন রিকশা অন্যতম। এই বাহন বাঙালির ঐতিহ্য। রিকশা ঘিরে দেশে কয়েক শ্রেণীর শ্রমজীবী রয়েছেন।

কেউ রিকশার বডি মেকার, কেউ রিকশার অলঙ্কারক, আর কেউ রিকশাচালক। এদের মধ্যে অলঙ্কারকদের সৃজনশীলতা মুগ্ধতা চড়ায় সবদিকে।

পুরো রিকশায়, বিশেষত রিকশার পেছনের বডিতে তারা প্রকৃতি, মানুষ, এমনকি সিনেমার পোস্টারসহ নানা কিছুর ছবি এঁকে থাকেন। .রিকশার ক্যানভাসে চিত্রকরদের নিখুঁত হাতের রঙ মাখানো দেখতে যেমন বেশ, তেমন জীবন্তও লাগে। .তিন চাকার এ বাহনকে নানা রঙে সাজিয়ে যাত্রীদের আকৃষ্ট করাই রিকশায় চিত্রকর্মের মূল উদ্দেশ্য। সেজন্য সবচেয়ে বেশি আঁকা হয় চলচ্চিত্র আর নায়ক-নায়িকাদের ছবি। মুক্তিযুদ্ধ, আরব্য রজনীর গল্প, কাল্পনিক নগর, ফুল-পাখির নকশাও বাড়ায় রিকশার শোভা। .১৯৯৯ সালে ঢাকার আলিয়ঁস ফ্রঁসেজে রিকশা ও বেবিট্যাক্সিতে শিল্পকর্ম নিয়ে প্রদর্শনী হয়। এখন ডিজিটাইল সাইন আর করপোরেট বিজ্ঞাপনের যুগ হলেও রিকশায় চিত্রকর্ম ধরে রেখেছেন হাতে গোনা কয়েকজন শিল্পী। .পুরান ঢাকার নারিন্দার স্বপন কুমার দাশ রং তুলির কাজ শিখেছেন বাবা রাজ কুমার দাশের কাছে। রাজ কুমার দাশ ১৯৫৩ সাল থেকে পুরান ঢাকায় রিকশায় চিত্রকর্ম শুরু করেন। র্জামানি ও ফরাসি দূতাবাসের পুরস্কারও তিনি পেয়েছেন। সে সময় বহু রিকশার পেছনে শিল্পী হিসেবে লেখা থাকতো তার নাম- আর কে দাশ। .স্বপন কুমার দাশ শৈশবে বাবার রিকশা পেইন্টিংয়ে সহযোগিতা করতে করতে হয়ে ওঠেন নিজেও শিল্পী। একটি রিকশার জন্য এক সেট ছবি এঁকে স্বপন পান ২০০ থেকে ৩০০ টাকা। সারাদিন কাজ করলে দুই থেকে তিনটি সেট ছবি আঁকতে পারেন। আবার মাঝে মাঝে বিদেশিরা এলে বেশ ভালো দামে তার পেইন্টিং বিক্রি হয়। .এ আঁকাআঁকির প্রক্রিয়া সম্পর্কে জানতে চাইলে স্বপন কুমার দাশ বাংলানিউজকে বলেন, কাস্টমারদের চাহিদা মোতাবেক চিত্রাঙ্কনের পর এই সব রিকশার পেছনের বডিতে, গদিতে আর পাদানিতে বসানো হয়। এছাড়া রিকশার গায়ের টিন বা লোহাতেও আঁকা হয় নানা ধরনের দৃশ্য। .বাংলাদেশের চিত্রকলার ইতিহাসে তো বটেই, পৃথিবীর চারুশিল্পের ইতিহাসেও বিশেষ ধরন বা শৈলী হিসেবে রিকশা পেইন্টিং বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ। প্রায় সাত দশক আগে অপ্রাতিষ্ঠানিকভাবে গড়ে ওঠা রিকশায় চিত্রশিল্প দেশে-বিদেশের শিল্পমনাদের নজর কাড়লেও প্রায় হারিয়ে যেতে বসেছে প্রযুক্তি ও কর্পোরেট আধিপত্যে। .যাওবা টিকে আছে, স্বপন কুমারদের মতো হাতে গোনা কয়েকজন শিল্পীর হাতেই।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৩২ ঘণ্টা, মে ২২, ২০১৭
এএটি/এইচএ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa