ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১২ মাঘ ১৪২৮, ২৭ জানুয়ারি ২০২২, ২৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

ফিচার

১০ বছর বয়সেই চালক, গতি তোলে ৭০!

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০০০ ঘণ্টা, মে ১৯, ২০১৭
১০ বছর বয়সেই চালক, গতি তোলে ৭০! ১০ বছর বয়সেই লেগুনার চালক হয়ে গেছে রুবেল, ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: ‘‘ওস্তাদ টান দেন, গাড়ি ভরসে’’। মধ্যবয়সী এক ব্যক্তি শিশুকে এ কথা বললো। ঘনিষ্ঠ কোনো সম্পর্কে হাসি-ঠাট্টায় ছোটদেরও তো কতো কিছু বলা যায়- তাও আবার হাতে যখন তার স্টিয়ারিং।

নগর জীবনের ব্যস্ততার ঘেরাটোপে বিষয়টিকে সাধারণ ভেবে উড়িয়ে দেবেন যে কেউ! কিন্তু কাহিনী তো সবে শুরু!

চলতে লাগলো গাড়ি।

মূলত এক কালের টেম্পু এখন হয়েছে লেগুনা।

গাড়িটি সে জাতেরই। রং হলুদ (ঢাকা মেট্রো ছ- ১৪-১৪৫৩)। রুট রাজধানীর মিরপুর-২ নম্বর থেকে মহাখালী। সাঁই করে টান দিতেই দমকা বাতাসে ভোরে যাবে মন; তবে চালকটি কিন্তু সেই স্টিয়ারিং হাতের শিশুটিই! এতেই আঁতকে ওঠা! ১০ বছর বয়সী চালক যখন গাড়িতে সাঁ করে টান লাগান তখন যে কারোই মনে-মননে জাগতে পারে শঙ্কা; যাত্রীরা বিড় বিড় করে সে কথাই বলছিলেন।

রুবেল হোসেন। বয়স ১০ কী ১২। এখন সে রীতিমতো ড্রাইভার। লেগুনা চালানোর তরিকা অনুযায়ী একদিন বাদে বাদে কাজে নামে সে। এভাবে মাসে ১৫ দিন; বড়জোর ২০ দিন গাড়ি চালানো পড়ে।
১০ বছর বয়সেই লেগুনার চালক হয়ে গেছে রুবেল, ছবি: বাংলানিউজ‘‘সকাল থেইকা গাড়ি চালাই। হাজার চারেক টেকা আয় হয়। আমার রেট ৮০০; কখনও ৬০০-৭০০ টেকাও নিয়া থাকি। একদিন চালাইলে পরদিন রেস্ট; ওইদিন শুধু ঘুমাই,’’ বাংলানিউজকে রুবেল।

শীর্ণকায় শরীর ও চেহারা। শিশু বদন অধিক পরিশ্রমে হয়েছে তামাটে। এতো খাটুনি সইতে হয় যে কথা কমে গেছে রুবেলের। শিশু শ্রমের বেড়াজালে আটকা এই শিশু সমাজের অন্য আর আট দশটা শিশু শ্রমিকেরই প্রতিচ্ছবি। তার হেল্পারও আট কি নয় বছর বয়সী; নাম রাজু। রাজুর মতে, তার ওস্তাদ খুবই ভালো চালক। দুর্ঘটনার কোনো ভয় নেই তাদের।

সড়ক পরিবহন আইন-২০১৭-এর খসড়া অনুযায়ী, ড্রাইভিং লাইসেন্স পেতে কম করে অষ্টম শ্রেণি পাসের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। গাড়ি চালনার জন্য বয়স কমপক্ষে ১৮ বছর হতে হবে, তবে পেশাদার চালকদের জন্য ২১।

প্রশ্ন ছিল এতো কম বয়সে চালক হলে, পুলিশে ধরে না? ‘‘মামলাও খাইসি বহু। বেশি ধরা খাইসি মহাখালীর আশপাশে। কী আর হয়; টেকা দিলেই ছাইড়া দেয়। ’’

বাড়ি মিরপুর ৬০ ফিট, পাকা মসজিদ এলাকায়। অভাবের সংসারে হয়নি পড়ালেখা; জানালো পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত স্কুলে যাওয়া। আর গাড়ির লাইনে সে বছর দুই। প্রথম বছরে হেল্পারি করলেও এখন দ্বিতীয় বছরে পাক্কা চালক।

‘‘লেগুনায় সর্বোচ্চ গতি তুলসি ৭০-এর মতো। অনেক জোরে টানতে ভালো লাগে; কিন্তু সব রোডেই তো জ্যাম। তাই আস্তেই চালাই। এখন ঢাকার লেগুনার লাইনে আমরা পোলাপানরাই নেতৃত্বে! ছোট দেইখ্যা পুলিশ ধরলে টেকা দিয়া বাইরাই। ’’

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫৬ ঘণ্টা, মে ১৯, ২০১৭
আইএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa