ঢাকা, শনিবার, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৫ মে ২০২৪, ১৬ জিলকদ ১৪৪৫

পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্য

লাউয়াছড়ায় সীমানা নির্ধারণের কার্যক্রম শুরু

ডিভিশনাল সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০৪৬ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৪, ২০১৭
লাউয়াছড়ায় সীমানা নির্ধারণের কার্যক্রম শুরু লাউয়াছড়ার সীমানা নির্ধারণে চলছে মাপজোক, ছবি: বাংলানিউজ

মৌলভীবাজার: লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে সীমানা নির্ধারণের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এর ফলে ১২৫০ হেক্টরের সংরক্ষিত এ বনটি নিরাপত্তা বলয়ের মাঝে চলে আসছে।

মঙ্গলবার (২৪ অক্টোবর) দুপুরে বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ এবং কমলগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের যৌথ উদ্যোগে এই কার্যক্রম শুরু হয় হীড বাংলাদেশ সংলগ্ন এলাকা থেকে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের সহকারী বন সংরক্ষক (এসিএফ) তবিবুর রহমান, কমলগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) নজরুল ইসলাম, সিলেট বন বিভাগের সার্ভেয়ার আবুল  কালাম আজাদ, কমলগঞ্জ উপজেলা সার্ভেয়ার মোহাম্মদ আবদুল সায়েম মামুন, ফুলবাড়ি চা বাগানের সার্ভেয়ার বিজয় কৃষ্ণ দে, স্থানীয় সার্ভেয়ার তারিকুল বারীসহ বন্যপ্রাণী বিভাগের অন্যান্য কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা।

নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়, লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে বদরুল আলম জেনার ১ একর, জমসেদ আলী ২ একর, সমেদ মিয়া ২ একর জায়গা অবৈধ দখলে রেখে লেবুসহ অন্যান্য কৃষিজাত পণ্য চাষ করে চলেছেন।

এছাড়া হীড বাংলাদেশ লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের প্রায় শতাধিক একর জায়গা অবৈধভাবে দখল করে রেখেছে বলে জানা যায়।

কমলগঞ্জ উপজেলা সার্ভেয়ার মোহাম্মদ আবদুল সায়েম মামুন বাংলানিউজকে বলেন, এই কাজটি সম্পন্ন হতে প্রায় এক সপ্তাহ লাগতে পারে। সীমানা নির্ধারণ করে এখন আমরা শুধু বাঁশের খুঁটি গেথে যাবো। পরবর্তীতে ওই বাঁশের খুঁটি তুলে সেখানে সিমেন্টের পিলার স্থাপন করা হবে।

মৌলভীবাজার বন্যপ্রাণী রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক (এসিএফ) তবিবুর রহমান বলেন, আমরা আমাদের ১২৫০ হেক্টর জায়গা খুঁজে নিতে চাইছি। মহামূল্যবান বন্যপ্রাণীদের কথা বিবেচনা করে আমরা আমাদের এই জায়গায় বিভিন্ন ফলদ বৃক্ষরোপণসহ নানামুখী পদক্ষেপের মাধ্যমে লাউয়াছড়াকে জীববৈচিত্র্যের শ্রেষ্ঠ অরণ্য হিসেবে গড়ে তুলতে চাই।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৪৭ ঘণ্টা, ২৪ অক্টোবর, ২০১৭
বিবিবি/আরআই

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।