ঢাকা, রবিবার, ১০ আশ্বিন ১৪২৯, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২৭ সফর ১৪৪৪

বিনোদন

রবীন্দ্রনাথ স্মরণে ঢাবির নাটমণ্ডলে নাটক ‘ডাকঘর’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩৫৭ ঘণ্টা, আগস্ট ৬, ২০২২
রবীন্দ্রনাথ স্মরণে ঢাবির নাটমণ্ডলে নাটক ‘ডাকঘর’

ঢাকা: বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ৮১তম প্রয়াণ দিবস উপলক্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটমণ্ডল মিলনায়তনে মঞ্চায়ন হচ্ছে নাটক ‘ডাকঘর’। শুক্রবার (০৫ আগস্ট) শুরু হওয়া এ নাটক শেষ হবে শনিবার (০৬ আগস্ট) সন্ধ্যা ৭টায় মঞ্চায়নের মাধ্যমে।

আর্ট হাউসের থিয়েটার উইং ক্লাসোড্রামাতে ৬ মাসব্যাপী অভিনয় কর্মশালা শেষে ২য় আবর্তনে অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের প্রযোজনায় কবি গুরুর এ নাটক নির্দেশনা দিয়েছেন রাবেয়া রাবু।

জানা যায়, ‘ডাকঘর’ বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের একটি সাঙ্কেতিক নাটক। এখানে যা অপ্রকাশ্য তা শেষমেশ অপ্রকাশিতই থেকে যায়। এর প্রধান চরিত্র অমল। তার মা ছোটবেলায় মারা যায়, বাবাও চলে যান কিছুদিন পরই। এরপর নিঃসন্তান দম্পতি মাধব দত্ত তাকে পোষ্যপুত্র হিসেবে গ্রহণ করেন। কিন্তু এক অজানা রোগে অমল আক্রান্ত হলে কবিরাজ তাকে ঘরের বাইরে যেতে নিষেধ করেন। কিন্তু কিশোর মনের দুরন্ত সত্ত্বা ঘরে বসে থাকার বিপক্ষে। তবুও তাকে ঘরেই থাকতে হবে। শেষটায় বহু অনুনয় করে পিসি মশাই মাধব দত্তের কাছে রাস্তার ধারের ঘরে বসে থাকার অনুমতি মেলে।  

এরপর সেখানে অমল সারাদিন বসে কখনও দইওয়ালা, কখনও প্রহরী, কখনও গাঁয়ের মোড়ল, কখনও ফুল তুলতে যাওয়া মালিনীর মেয়ে সুধা, আবার কখনও দুরন্ত গ্রামের ছেলেদের সঙ্গে কথা ফেরি করে। প্রহরীর সঙ্গে সংলাপকালীন বড় বাড়ির নিশানা দেখতে পায়, জিজ্ঞেস করে সে ঘরে কেন নিশানা দেয়া? প্রহরী তখন তাকে ডাকঘর ও ডাক হরকরার সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেয়। তাদের কাজ সম্পর্কে অমলকে জানায়।

নাটকটিতে অভিনয় করেছেন- অমল চরিত্রে ইফ্ফাত নওশিন জয়ী, মাধব দত্ত চরিত্রে হৃদয় ঘোষ রাজীব, কবিরাজ চরিত্রে সুলতান মাহমুদ, প্রহরী চরিত্রে মোঃ আশিকুজ্জামান, সুধা চরিত্রে ইসরাত জাহান বুশরা, ডাকহরকরা চরিত্রে মোঃ মন্জু হোসেন, ফটিক চরিত্রে মুনিরা মাহজাবিন মিমো, মাখন চরিত্রে রায়া নোশিন মাহ্পারা, বাঘা চরিত্রে সুমিত রায়, বৌ চরিত্রে বহ্নিশিখা ঠাকুর।

এই নাটকে রাবেয়া রাবু নির্দেশনায় সহযোগী নির্দেশক হিসেবে কাজ করছেন রাগীব নাঈম, মঞ্চ পরিকল্পনা ও প্রয়োগ করেছেন নাভেদ রহমান, রাগীব নাঈম। পোশাক পরিকল্পনা করেছেন রাবেয়া রাবু ও মুনিরা মাহজাবিন মিমো। শব্দ পরিকল্পনা ও প্রয়োগ করেছেন তানভীর নাহিদ খান, রাবেয়া রাবু এবং আলোকসজ্জা পরিকল্পনা ও প্রয়োগে ছিলেন রাগীব নাঈম, মনিরুজ্জামান রিপন।

এছাড়াও পোস্টার ডিজাইন এবং সম্পাদনায় চারু পিন্টু, তত্ত্বাবধানে রয়েছেন মনিরুজ্জামান রিপন, তানভীর নাহিদ খান, নাভেদ রহমান, সাফওয়ান মাহমুদ।

‘আত্মা, সত্তা ও চিত্তের বিকাশ’ স্লোগানকে সামনে রেখে ২০২০ সালে যাত্রা শুরু করে আর্ট হাউস। মূলত শিল্পের প্রায়োগিক বিচরণ যে উঠানে মিলিত হয়েছে তার নাম আর্ট হাউস এবং আর্ট হাউস সেই নিমিত্তেই কাজ করে যাচ্ছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৫৭ ঘণ্টা, আগস্ট ০৬, ২০২২
এনএটি/জেআইএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa