ঢাকা, সোমবার, ১৮ আশ্বিন ১৪২৯, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

নির্বাচন ও ইসি

বিএনপিকে চায়ের দাওয়াত দিলেন ইসি আহসান হাবিব

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৩২ ঘণ্টা, জুলাই ১৮, ২০২২
বিএনপিকে চায়ের দাওয়াত দিলেন ইসি আহসান হাবিব

ঢাকা: বিএনপি ও সমমনাদের উদ্দেশ্যে সংলাপে অংশ নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে নির্বাচন কমিশনার (ইসি) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) মো. আহসান হাবিব খান বলেছেন, আসেন, দেখেন, চা খান। সিদ্ধান্ত আপনাদের।

তবে আপনাদের সহযোগিতা আমাদের দরকার।

সোমবার (১৮ জুলাই) নির্বাচন ভবনে বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তিজোটের সঙ্গে আয়োজিত সংলাপে অংশ নিয়ে তিনি এ কথা বলেন।
 
আহসান হাবিব খান বলেন, যেসব জায়গায় আমরা কিছুটা পিছিয়ে আছি, সেসব জায়গায় এগিয়ে যেতে আরপিও সংশোধনের ব্যবস্থা নিচ্ছি। এজন্য আপনাদের সহযোগিতা দরকার। আমাদের কাজ হচ্ছে রেফারির ভূমিকা নেওয়া। আমাদের ৩৯টি টিম রয়েছে। খেলবে তো তারা। তারা যদি সুন্দর স্বচ্ছভাবে খেলে, তাহলে সেমিফাইনালে, ফাইনালে এসে যে জয়ী হবে সেটা গ্রহণযোগ্য হবে। কারো প্রতি ইসির পক্ষপাতিত্ব বা সহযোগিতার প্রশ্নই আসে না। আপনারা চোখ-কান খোলা রাখেন। কর্মীদের নির্দেশ দেবেন আমাদের কোনো পক্ষপাতিত্ব আছে কিনা তা দেখার জন্য।  

তিনি বলেন, আপনাদের আস্থা অর্জন করাই আমাদের মুখ্য উদ্দেশ্য। আমি জানি আমি ভালো, আমি জানি আমি সৎ। কিন্তু আপনাদের তো সন্দেহ আছে। মিষ্টি মিষ্টি কথা বলে ভোলানোর চেষ্টা করছে, বাগে ফেলার চেষ্টা করছে, না না। আমি তো না বলছি, কিন্তু আপনার মনে তো দাগ কাটতে পারেনি। আমরা ইতোমধ্যে ১৭০টি নির্বাচন করেছি, আপনাদের কী কোনো অভিযোগ আছে, পরামর্শ আছে?

নির্বাচন কমিশনার আহসান হাবিব বলেন, আমাদের দরকার সহযোগিতা। আমাদের ডাকে আসছেন, তার মানে এই না যে আমাদের সব কথা মেনে নেবেন। দাওয়াতে আসছেন, স্বীকার করতে পারেন, অস্বীকার করতে পারেন তাতে কোনো অসুবিধা নেই। আপনারা আমাদের পর্যবেক্ষণ করেন, দেখেন, মনিটর করেন। আমরা কথার পরিপ্রেক্ষিতে একটা কথা বলি, কথার ভিত্তিতে। সেটা কিন্তু ভাইরাল হয়। কিন্তু আগে কী ছিল পরে কী ছিল, সেটা কিন্তু আমরা মূল্যায়ন করতে পারি না।

তিনি বলেন, আমার চেহারা দেখছেন, আবেগ দেখছেন, অনুভূতি দেখছেন। যারা কাছে নেই তারা কি সেটা অনুভব করতে পারবেন? পারবেন না। আসুন, আমরা বারবার বসবো, আপানাদের ডাকব। আপনাদের সহযোগিতা আমাদের দরকার। আমি মনে করি, এটা আমাদের দায়িত্ব, দেশের গণতন্ত্রের জন্যে গণতন্ত্রকে সুপ্রতিষ্ঠিত করার জন্য। আশা করি, আপনারা এবং মিডিয়ার মাধ্যমে যারা দেখছেন, বিশেষ করে যারা না আসার কথা বলছেন, তাদেরও অনুরোধ জানাবো আসেন, দেখেন, সিদ্ধান্ত আপনাদের। অনুগ্রহ করে আসেন আমাদের সঙ্গে এক কাপ চা খেয়ে যান।  

বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তিজোটের সংগঠন প্রধান আবু লায়েস মুন্নার নেতৃত্বে সংলাপে ১১ সদস্যের প্রতিনিধি দল অংশ নিয়েছে। এছাড়া প্রধান নির্বাচন কমিশনার, অন্য নির্বাচন কমিশনাররাসহ ইসির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও এতে অংশ নিয়েছেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৩২ ঘণ্টা, জুলাই ১৮, ২০২২
ইইউডি/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa