ঢাকা, মঙ্গলবার, ১০ কার্তিক ১৪২৮, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

শিক্ষা

ছুটির সময় ঠেকানো যাচ্ছে না শিক্ষার্থীদের ভিড়

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৩৬ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২০, ২০২১
ছুটির সময় ঠেকানো যাচ্ছে না শিক্ষার্থীদের ভিড় ছবি: রাজীন চৌধুরী

ঢাকা: স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রায় দেড় বছর পরে রোববার (১২ সেপ্টেম্বর) খুলে দেওয়া হয় সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা হলেও ছুটির সময় ঠেকানো যাচ্ছে না ছাত্র-ছাত্রীদের ভিড়।

অভিবাবকরা বলছেন, স্কুলে প্রবেশ ও ছুটির সময় ছাত্র-ছাত্রীদের ভিড় নিয়ন্ত্রণ করা গেলে করোনাভাইরাস সংক্রমিত হওয়ার ঝুঁকি কম থাকবে।

সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত রাজধানীর মিরপুর এলাকার স্কুল ও কলেজ ঘুরে এমন চিত্র দেখা যায়।  

সরেজমিনে দেখা যায়, স্কুল ও কলেজের সামনে বসেছে হরেক রকমের হকারে দোকান। এসব দোকানের পাশে দাঁড়িয়ে বসে অপেক্ষা করতে দেখা গেছে অভিভাবকদের। স্কুলগুলোর সামনে পুরুষ অভিভাবকদের তুলনায় নারী অভিভাবকদেরই ভিড় করতে দেখা গেছে।  

মিরপুর বাংলা উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় বালিকা শাখার পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী আফরোজা মনোয়ারা বাংলানিউজকে বলেন, আমাদের স্কুলের স্বাস্থ্যবিধি মেনে নেওয়া হচ্ছে ক্লাস। সপ্তাহে ছয়দিন ক্লাস হচ্ছে। প্রতিদিন আমার তিনটি করে ক্লাস হচ্ছে। প্রতি বেঞ্চে একজন করে বসতে দেওয়া হচ্ছে।

বাংলা উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মো. আবু তাহের বলেন, স্কুল ছুটির সময় যেন গেটে কোনো গেদারিং না হয় সেজন্য ছাত্রীদের বিভিন্ন সিডিউল করে ক্লাস নেওয়া হচ্ছে। সরকার নির্ধারিত স্বাস্থ্যবিধি মেনেই আমরা ক্লাস নিচ্ছি। কিছু ছাত্রী ক্লাস শুরু হওয়ার আগে স্কুলের গেটের সামনে অপেক্ষা করায় একটু ভিড় হচ্ছে।

মনিপুর উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের সপ্তম শ্রেণির ছাত্র মো. আফনান বারি বাংলানিউজকে বলেন, মোটামুটিভাবে আমাদের স্কুলের স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে। প্রবেশ পথে মাপা হচ্ছে শরীরের তাপমাত্রা। মূল প্রবেশ পথে ব্যবহার করা হচ্ছে জীবাণুনাশক টানেল। এছাড়াও স্কুলের প্রবেশ গেটে রাখা হয়েছে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা। প্রতি বেঞ্চে দুজন করে বসেছি আমরা। রুটিন অনুযায়ী প্রতিদিন দুটি করে ক্লাস নেওয়া হচ্ছে।

একই স্কুলের সপ্তম শ্রেণির ছাত্রের অভিভাবক হাবিবুর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, স্কুল প্রবেশপথে ও ছুটির সময় যাতায়াতের ভিড় নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে না কর্তৃপক্ষরা। এর ফলে থেকেই যাচ্ছে ছাত্র-ছাত্রীদের করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হওয়ার ঝুঁকি।

তিনি আরও বলেন, স্কুল ছুটি ও প্রবেশ পথে যেন অভিভাবকদের ভিড় না করতে পারে সেই জন্য যেন ব্যবস্থা গ্রহণ করে স্কুল কর্তৃপক্ষ। এছাড়াও স্কুলের আশেপাশে যেন বসতে না দেওয়া হয় বিভিন্ন ধরনের হকারদের। হকারদের কাছ থেকে করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হওয়ার সম্ভাবনা আছে ছাত্র-ছাত্রীদের বলে জানান তিনি।

এর আগে, রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) সকালে যাত্রাবাড়ী আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ পরিদর্শনকালে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো থেকে এখনো করোনা সংক্রমণের কোনো খবর আসেনি।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৩৩ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২০, ২০২১
এমএমআই/এসআইএস 


 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa