ঢাকা, রবিবার, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

শিক্ষা

এসআইএমটিতে অ্যারোনেটিক্যাল ও মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে পড়ার সুযোগ

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩১৪ ঘণ্টা, জুন ১৮, ২০১২
এসআইএমটিতে অ্যারোনেটিক্যাল ও মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে পড়ার সুযোগ

শিক্ষা অর্জনের ক্ষেত্রে জ্ঞানের বিকাশের পাশাপাশি দুটো বিষয়কে সর্বাধিক গুরুত্ব দেওয়া হয়ে থাকে। প্রথম, দ্বিতীয়ত এটি শেষ করে যেনো চাকরি পাওয়া যায় তার নিশ্চয়তা।

আর এ ক্ষেত্রে অভিজ্ঞদের মতামত হচ্ছে পড়ার জন্য এমন বিষয় বেছে নিতে হবে যাতে কোর্স শেষে কারও বসে থাকতে না হয়।

সে হিসেবে এসএসসি/সমমান উত্তীর্ণরা বর্তমান সময়ে কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের অধীনে ৪বছর মেয়াদী অ্যারোনটিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং ও মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং বেছে নিতে পারে। আর এ দুটো কোর্সই চালু রয়েছে ওয়ার্ল্ড ব্যাংক অনুদানপ্রাপ্ত বেসরকারি পলিটেকনিক সাইক ইন্সটিটিউট অব ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড টেকনোলজি(এসআইএমটি)-তে।

অ্যারোনটিক্যাল কোর্সটি করে একজন শিক্ষার্থী উড়োজাহাজের ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে পরিচিত হন। কোর্সটি আপনাকে হতে কলমে শিখাবে বিমান তৈরি করা, তার ওজন নেওয়া প্রভৃতি কাজ। আকাশে ওড়ার আগে পর্যন্ত বিমানের রক্ষণাবেক্ষণ ও পরিচর্চাও করতে হয় তাদের। শিক্ষা জীবন শেষ হওয়ার পরই রয়েছে চাকরির সুযোগ।

আর মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং। আপনার পেশার সঙ্গে যদি বৈচিত্র্য আর রোমাঞ্চ খুঁজে পেতে চান, তাহলে পেশা হিসেবে বেছে নিতে পারেন মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং। এটি দেয় সমুদ্রের হাতছানি। এ পেশাটা সম্পূর্ণ ব্যতিক্রমধর্মী ও আকর্ষণীয়। এ পেশায় অন্যান্য পেশাগুলো থেকে আরামদায়ক জীবন যাপনের পাশাপাশি উপার্জনও হয় অনেক বেশি।

ভতি যোগ্যতা: অ্যারোনটিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং তথা এয়ারক্রাফট মেইনটেন্যান্স ইঞ্জিনিয়ারিং(এ্যারোস্পেস/এ্যাভিওনিক্স)বিজ্ঞান বিভাগে এসএসসি/এইচএসসি পাশ হতে হবে। ন্যূনতম জিপিএ ৪.০/৩.৫০ প্রাপ্ত হতে হবে। অন্যদিকে মেরিন/শিপবিল্ডিং ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ভর্তির জন্য এসএসসিতে ন্যূনতম জিপিএ ৩.০০ প্রাপ্ত হতে হবে।

বিশেষত্ব: ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষায় শীর্ষমান ধরে রাখা এ প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষার্থীরা এমনিতেই বেশি সুযোগ সুবিধা পেয়ে থাকে। তার পরে ওয়াল্ড ব্যাংকের বিশেষ অনুদান শিক্ষা কার্যক্রমকে করে তুলছে আরো গতিশীল। শিক্ষার্থীদের জন্য বিভিন্ন এয়ারলাইন্সে ইন্ডাস্ট্রিয়াল ট্রেনিংয়ের ব্যবস্থাসহ রয়েছে প্রায় শতভাগ ব্যবহারিক ক্লাসের নিশ্চয়তা, দক্ষ ট্রেনিংপ্রাপ্ত শিক্ষকমণ্ডলী। ডুয়েল কোরের ১৫০টি কম্পিউটার সমৃদ্ধ ৩টি আধুনিক ল্যাবসহ ওয়াইফাই নেটওয়ার্কিং সমৃদ্ধ আধুনিক ক্যাম্পাস। প্রতিষ্ঠানটিতে রয়েছে জব প্লেসমেন্ট বিভাগ। বিভাগটি সদ্য বের হওয়া শিক্ষার্থীদের ভালো চাকরি পেতে সব ধরনের সহযোগিতা করে থাকে।

আগ্রহী শিক্ষাথী-অভিবাবকেরা সরেজমিন ক্যাম্পাস পরিদর্শন করে ভর্তির সিদ্ধান্ত নিতে পারেন।

এসআইএমটি, বাড়ি- ০১, রোড- ০২, ব্লক-বি, সেকশন- ০৬, মিরপুর, ঢাকা।
ফোন: ০১৯৩৬০০৫৮১৬-১৮, ৮০৩৩০৩৪, ০১৭৬৭৭১৭০৫০, ০১৭৬৭-৭১৭০৫৬

বাংলাদেশ সময়: ১২৫৫ঘণ্টা, জুন ১৮, ২০১২
পিআর/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa