ঢাকা, সোমবার, ১৮ শ্রাবণ ১৪২৮, ০২ আগস্ট ২০২১, ২২ জিলহজ ১৪৪২

অর্থনীতি-ব্যবসা

সুতার মূল্য স্থিতিশীল রাখতে সরকারকে আহ্বান বিকেএমইএ ও বিজিএমইএ-র

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩৪১ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১০

ঢাকা: সুতার মূল্য স্থিতিশীল রাখতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে বিকেএমইএ ও বিজিএমইএ।

দেশের অভ্যন্তরীণ বাজারে সুতার মূল্যের অস্বাভাবিক বৃদ্ধিতে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে এ আহ্বান জানানো হয়।



বুধবার বিকেএমইএ ও বিজিএমইএ’র এক যৌথ জরুরি বৈঠকে এ সহযোগিতা চাওয়া হয়।

সভায় স্পিনিং মিলের মালিক ও বিটিএমএ নেতৃবৃন্দের প্রতি সুতার মূল্য স্থিতিশীল রাখারও অনুরোধ জানানো হয়। এর পাশাপাশি সুতার একটি যৌক্তিক ও সহনশীল মূল্য নির্ধারণে বিকেএমইএ, বিজিএমইএ এবং বিটিএমএ’র একটি সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহণেরও প্রস্তাব করা হয়।

বিকেএমইএ ও বিজিএমইএ’র যৌথ বৈঠকে বলা হয়, একদিকে বিশ্বমন্দা ও  অন্যদিকে অস্থিতিশীল সুতার বাজার বা লাগামহীন সুতার মূল্য বৃদ্ধি এ দুই ঘটনায় দেশের নীটশিল্প বিপাকে।

বিদেশি ক্রেতাদের সাথে আসন্ন মৌসুমে নীটওয়্যার রপ্তানির জন্য জুলাই-আগস্ট মাসে প্রতিকেজি সুতার সর্বোচ্চ দর ৩.৫০ মার্কিন ডলার ধরে চুক্তি চূড়ান্ত হয়েছিল।

এদিকে, ঈদের সপ্তাহখানেক আগে প্রতিকেজি সুতার মূল্য বেড়ে দাঁড়ায় ৩.৭০ মার্কিন ডলারে। এখন তা আবার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪.৪০ মার্কিন ডলারে।

বৈঠকে বলা হয়, এ অবস্থায় রপ্তানি কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে হিমশিম খাচ্ছেন নীটওয়্যার রপ্তানিকারকরা। সরকারের সহযোগিতায় এ খাতের উদ্যোক্তারা গ্যাস-বিদ্যুতের সমস্যা সত্ত্বেও ঈদুল ফিতরের আগে শ্রমিকদের বেতনভাতাসহ সকল পাওনাদি পরিশোধ করে পরিস্থিতি শান্ত রাখতে পেরেছেন। সে কারণে, এবার প্রথমবারের মতো মালিক-শ্রমিকরা শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ঈদ উদযাপন করার সুযোগ পেয়েছেন।

সভায় আরো উদ্বেগ প্রকাশ করে বলা হয়, সুতার অস্বাভাবিক মূল্য বৃদ্ধির ফলে আসন্ন ঈদ-উল-আযহার আগে আবার এ খাতের পরিস্থিতি অশান্ত হয়ে উঠতে পারে। কারণ, তখনই সরকার ঘোষিত নতুন বেতন কাঠামোর বাস্তবায়নের সময়।

বাংলাদেশ সময় : ১৩৩০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa