bangla news

শুধু ব্লু-ইকোনমি থেকে ৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জন হবে

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭-১১-২২ ১:২৭:৪২ এএম
পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল/ছবি: শাকিল

পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল/ছবি: শাকিল

ঢাকা: সমুদ্রসীমা নির্ধারণ হওয়ায় ‘ব্লু-ইকোনমি’ অর্থনীতিতে একটি অসাধারণ ক্ষেত্র সৃষ্টি করেছে। ২০৩০ সাল নাগাদ ব্লু-ইকনোমি অর্থনীতি থেকে বর্ধিত ৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জন হবে।

পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বুধবার (২২ নভেম্বর) হোটেল সোনারগাঁওয়ে দ্বিতীয় ব্লু-ইকনোমি বিষয়ক আন্তর্জাতিক সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বিভিন্ন দেশ ব্লু-ইকোনমি কাজে লাগিয়ে নিজেদের সমৃদ্ধশালী করছে। তারা পারলে আমাদেরও পারতে হবে।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম তার বক্তব্যে বলেন, ব্লু-ইকনোমি খাতে উন্নয়ন করতে উপকূলীয় মানুষকে সম্পৃক্ত করতে হবে। সমুদ্র সম্পদ আহরণে অন্যদের অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে সমন্বিতভাবে কাজ করতে হবে। প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ তদারকিতে কিভাবে সমুদ্র সম্পদের উন্নয়ন করা যায় সে ব্যাপারে বিভিন্ন পরিকল্পনা নেয়া হচ্ছে এবং সে অনুযায়ী কাজ করা হচ্ছে।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন ইন্টারন্যাশনাল সি বেড অথরিটির সেক্রেটারি জেনারেল মিশেল লজ, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব ড. কামাল আব্দুল নাসের।

মিশেল লজ বলেন, বাংলাদেশের বিশাল সমুদ্র সীমানা রয়েছে। বাংলাদেশকে এই সম্পদের মর্ম বুঝতে হবে এবং সেই অনুযায়ী পরিকল্পনা করতে হবে। সমুদ্র থেকে প্রাপ্ত সম্পদের মাধ্যমে একটি দেশের আর্থ সামাজিক অবস্থার পরিবর্তন সম্ভব। 

ড. কামাল আব্দুল নাসের বলেন, সরকার যে সব উন্নয়নমূলক কাজ করে যাচ্ছে তার মধ্যে এই বিষয়কেও প্রাধান্য দেয়া হচ্ছে। ব্লু ইকোনোমির উন্নয়নে বিভিন্ন দেশের সঙ্গে স্বল্পমেয়াদী ও দীর্ঘমেয়াদী চুক্তি করারও পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে।

সম্মেলনে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়, পরিবেশ ও বন, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ, নৌ-পরিবহন, শিক্ষা, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগ, সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ, বাংলাদেশ কোস্ট গার্ড, বাংলাদেশ ভূ-তাত্বিক জরিপ অধিদফতর এবং বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) শীর্ষ কর্মকর্তারা বক্তব্য রাখেন।

এ সময় বক্তারা বলেন, ভারত ও মিয়ানমারের সঙ্গে সমুদ্রসীমা নির্ধারণ হওয়ার পর অর্থনৈতিক এলাকা সম্প্রসারিত হয়েছে। দেশের মূল ভূখণ্ডের সমপরিমাণ (প্রায় ৮১ ভাগ) সমুদ্র থেকে সম্পদ আহরণের যে সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে, সমুদ্রের পরিবেশ নষ্ট না করে যথাযথভাবে তা কাজে লাগাতে সম্ভাব্য সব কিছু করতে হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১২১৬ ঘণ্টা, নভেম্বর ২২, ২০১৭
কেজেড/এসএইচ/আরআই

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2017-11-22 01:27:42