ঢাকা, শুক্রবার, ৮ মাঘ ১৪২৭, ২২ জানুয়ারি ২০২১, ০৮ জমাদিউস সানি ১৪৪২

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

গাঁজা বিপজ্জনক মাদক নয়, জাতিসংঘের সিদ্ধান্তে সায় দিল ভারতও

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১৪৬ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৫, ২০২০
গাঁজা বিপজ্জনক মাদক নয়, জাতিসংঘের সিদ্ধান্তে সায় দিল ভারতও ...

কলকাতা: দীর্ঘ ৫৯ বছর বিপজ্জনক মাদকের তালিকায় ছিল গাঁজা। এমনকী, চিকিৎসাক্ষেত্রেও এর ব্যবহার নিয়ে ছিল তীব্র আপত্তি।

কিন্তু উনষাট বছর পর বিপজ্জনক মাদকের তালিকা থেকে গাঁজা এবং চরসকে সরানোর প্রস্তাব পেশ করলো জাতিসংঘ।

মোট ৫৩টি সদস্য দেশের মধ্যে ২৭টি দেশ জাতিসংঘের পক্ষে সায় দিয়েছে, এবং উল্লেখযোগ্যভাবে সেই তালিকায় ভারতও রয়েছে। তবে জাতিসংঘের পক্ষে সায় দিলেও ভারতে এখনও গাঁজা চাষ করা এবং নিজের কাছে রাখা আইন অনুযায়ী দণ্ডনীয় অপরাধ হিসেবেই গন্য করা হবে।  

বুধবার (০২ ডিসেম্বর) জাতিসংঘের মাদক বিষয়ক কমিশনের ৬৩তম অধিবেশন ছিল। সেখানে ভোট হয় এই বিষয়ে। ভারতসহ আমেরিকা এবং ইউরোপের অধিকাংশ দেশই বিপজ্জনক মাদকের তালিকা থেকে গাঁজা ও চরসকে বাদ দেওয়ার পক্ষে সায় দেয়।
তবে বিপক্ষে ছিল ২৫টি দেশ। যাদের মধ্যে রয়েছে চীন, রাশিয়া ও পাকিস্তানের মত দেশগুলো। তবে একমাত্র দেশ হিসেবে ইউক্রেন কোনো দিকে মত দেয়নি।

জাতিসংঘ একটি প্রেস বিবৃতিতে জানিয়েছে, ১৯৬১ সালের নিষিদ্ধ মাদকের তালিকা থেকে গাঁজাকে বাদ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাতিসংঘ। এই ভোটকে ঐতিহাসিক বলে আখ্যা দেওয়া হয়েছে। কারণ, নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ায় এই ধরনের মাদকগুলো ওষুধ তৈরিতে ব্যবহারের রাস্তা খুলে গেলো।

২০১৯ এর জানুয়ারি মাসে বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা জাতিসংঘের বিপজ্জনক মাদকের তালিকা নিয়ে ৬টি প্রস্তাব দেয়। তার মধ্যে অন্যতম ছিল গাঁজা ও চরসকে বিপজ্জনক মাদকের তালিকা থেকে বাদ দেওয়ার প্রস্তাব। অবশেষে বুধবার সেই ভোটাভুটির মধ্য দিয়ে ‘হু’এর মতকে সায় দিল জাতিসংঘ।

বাংলাদেশ সময়: ১১৪৬ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৫, ২০২০
ভিএস/এইচএডি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa