ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ আশ্বিন ১৪২৯, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

আগস্ট ঢুকলেই আমাদের হৃদয়ে রক্তক্ষরণ শুরু হয়: এমআর আজিম

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৪৩ ঘণ্টা, আগস্ট ৮, ২০২২
আগস্ট ঢুকলেই আমাদের হৃদয়ে রক্তক্ষরণ শুরু হয়: এমআর আজিম বক্তব্য দেন নগর যুবলীগ নেতা এমআর আজিম।

চট্টগ্রাম: নগর যুবলীগ নেতা এমআর আজিম বলেছেন, আগস্ট মাস ঢুকলেই আমাদের হৃদয়ে রক্তক্ষরণ শুরু হয়। আগস্ট ঢুকলে আমরা বিভিন্ন আতঙ্কে আতঙ্কিত থাকি।

আবার কখন ওই শত্রুপক্ষ ছোবল মারছে, আবার কখন নাশকতা চালাচ্ছে। আবার কখন ব্রাশফায়ার করছে।

সোমবার (৮ আগস্ট) দুপুরে নগরের হামজারবাগ এলাকার আজাদ কমিউনিটি সেন্টারে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভা ও কর্মজীবী নারীদের সেলাই মেশিন বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্য তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিণী ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মুক্তিযুদ্ধ থেকে শুরু করে বাঙালির অধিকার আদায়ের সব আন্দোলনে তাঁর ভূমিকা অতুলনীয়। বঙ্গবন্ধুকে বঙ্গবন্ধু উপাধি পাওয়ার জন্য যিনি সহযোগিতা করেছিলেন, তিনি হলেন বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব। আজ তার জন্মবার্ষিকীতে পঁচাত্তরের শহীদদের আমি হৃদয়ের গভীর থেকে শ্রদ্ধা জানাচ্ছি।  

সাবেক ছাত্রলীগ নেতা এমআর আজিম বলেন, আজকের দিনে আমাদের শপথ করতে হবে। আবারও আমরা অশনিসংকেত দেখছি। গতকাল আতুরার ডিপু এলাকায় জামায়াত শিবির মিছিল করার সাহস দেখিয়েছে। আমার বন্ধুদের আহবান জানাই, যেখানে জামায়াত-শিবির, বিএনপি পাওয়া যাবে যেখানে তাদের গণধোলাই দিতে হবে। মাঠে থেকে এদের প্রতিরোধ ও প্রতিহত করতে হবে। এর কোনো বিকল্প নেই। যারা ৭১ ও ৭৫ সালের খুনিদের মদদ জুগিয়েছে তাদের বাংলার মাটিতে রাজনীতি করার অধিকার থাকতে পারে না।

তিনি আরও বলেন, বীর চট্টলা মহিউদ্দিন চৌধুরীর শহর। এ চট্টগ্রামে যত আন্দোলন সংগ্রাম হয়েছে আমাদের প্রয়াত নেতা মহিউদ্দিন চৌধুরীর নেতৃত্বে হয়েছে। তারই সুযোগ্য সন্তান মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল আমাদের নেতা, তার সঙ্গে আমরা আছি। তিনি আমাদের সঙ্গে আছেন। সবাইকে নিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে বীর চট্টগ্রামের মাটিকে আমরা শেখ হাসিনার ঘাঁটিতে পরিণত করবো। যেকোনো ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে আগামী নির্বাচনে নৌকার পক্ষে কাজ করবো এই আশা রাখি।

অনুষ্ঠানে ষোলশহর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোবারক আলী বলেন, বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে বাঙালি জাতি দীর্ঘ লড়াই সংগ্রামের মধ্য দিয়ে তার শ্রেষ্ঠ অর্জন স্বাধীনতা লাভ করে। বাঙালি জাতির জন্য বঙ্গবন্ধুর এই আজীবন লড়াই-সংগ্রাম-আন্দোলনের নেপথ্যের প্রেরণাদাত্রী ছিলেন তার সহধর্মিণী ফজিলাতুন্নেছা মুজিব।

তিনি বঙ্গবন্ধুর সমগ্র রাজনৈতিক জীবন ছায়ার মতো অনুসরণ করে তার প্রতিটি রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে অফুরান প্রেরণার উৎস হয়ে ছিলেন। তিনি এমন এক নারী, যিনি জাতির পিতা শেখ মুজিবকে বঙ্গবন্ধু বানিয়েছেন। তাঁর সংসার, তাঁর কর্ম আমাদের জন্য অনুকরণীয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৯২০ ঘণ্টা, আগস্ট ৮, ২০২২
বিই/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa