ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৯ মে ২০২২, ১৭ শাওয়াল ১৪৪৩

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

পুরস্কার প্রতিটি লেখকের বাড়তি প্রাপ্তি: বিশ্বজিৎ চৌধুরী

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭১০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৭, ২০২২
পুরস্কার প্রতিটি লেখকের বাড়তি প্রাপ্তি: বিশ্বজিৎ চৌধুরী কথাসাহিত্যিক বিশ্বজিৎ চৌধুরীর সংবর্ধনা অনুষ্ঠান

চট্টগ্রাম: বাংলা একাডেমি পুরস্কারের জন্য মনোনীত কথাসাহিত্যিক বিশ্বজিৎ চৌধুরীর সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেছেন, বাংলাদেশের কথাসাহিত্যে এখন নেতৃত্ব দিচ্ছে চট্টগ্রাম। চট্টগ্রাম তথা বাংলাদেশের সাহিত্য জগতের উজ্জ্বল নক্ষত্র কথাসাহিত্যিক বিশ্বজিৎ চৌধুরী।

তিনি একাধারে সাহিত্যিক সাংবাদিক গবেষক।  

বৃহস্পতিবার (২৭ জানুয়ারি) চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তারা এসব কথা বলেন। ক্লাবের পিএইচপি ভিআইপি লাউঞ্জে সভাপতি আলহাজ আলী আব্বাসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী।  

আলী আব্বাস বলেন, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সাবেক সাংস্কৃতিক সম্পাদক কথাসাহিত্যিক বিশ্বজিৎ চৌধুরী দুই বাংলার সাহিত্যকে সমৃদ্ধ করে চলেছেন। তিনি লেখনীর গুণে মফস্বল জেলা থেকে পুরস্কার ছিনিয়ে এনেছেন। চট্টগ্রামের অনেক সাংবাদিক রয়েছেন যারা সাংবাদিকতার পাশাপাশি বাংলাসাহিত্যে গৌরবোজ্জ্বল ভূমিকা রেখে চলেছেন।  

নিজের অনুভূতি ব্যক্ত করে বিশ্বজিৎ চৌধুরী জানান, শৈশব থেকেই তাঁর সাহিত্যচর্চা শুরু। পরবর্তীতে এটি তাঁর নেশায় পরিণত হয়। এমনকি শৈশব কৈশোর যৌবনকাল লেখালেখিতেই পার হয়েছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।  

১৯৮২ সালে মাত্র ২২ বছর বয়সে তাঁর লেখা বই পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েও শেষপর্যন্ত না হওয়ায় আক্ষেপ করে বলেন, রাজধানীর বাইরে থেকে সাহিত্যচর্চা করা সত্যিই কঠিন কাজ। যদিও কোনো লেখক পুরস্কারের আশায় লেখালেখি করেন না, এরপরও পুরস্কার প্রাপ্তির আনন্দটাই আলাদা। পুরস্কার হচ্ছে প্রতিটি লেখকের বাড়তি প্রাপ্তি।  

যুগ্ম সম্পাদক নজরুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি সালাহ্উদ্দিন মো. রেজা, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে)র সহসভাপতি শহীদ উল আলম, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মোহাম্মদ আলী, সাধারণ সম্পাদক ম শামসুল ইসলাম ও কবি ওমর কায়সার।  

অনুষ্ঠানে কথাসাহিত্যিক বিশ্বজিৎ চৌধুরীকে প্রেস ক্লাবের পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা ও সম্মাননা স্মারক দেওয়া হয়।

এ সময় চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি মোস্তাক আহমদ, বিএফইউজে’র সাবেক যুগ্ম মহাসচিব আসিফ সিরাজ, প্রেস ক্লাবের সহসভাপতি স ম ইব্রাহীম, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সিনিয়র সহসভাপতি রতন কান্তি দেবাশীষ, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মহসিন চৌধুরী, চট্টগ্রাম সাংবাদিক কো-অপারেটিভ হাউজিং সোসাইটির সাবেক চেয়ারম্যান মইনুদ্দীন কাদেরী শওকত, প্রেস ক্লাবের অর্থ সম্পাদক রাশেদ মাহমুদ, সাংস্কৃতিক সম্পাদক নাসির উদ্দিন হায়দার, গ্রন্থাগার সম্পাদক মিন্টু চৌধুরী, ক্রীড়া সম্পাদক দেবাশীষ বড়ুয়া দেবু, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আলীউর রহমান, কার্যকরী সদস্য শহীদুল্লাহ শাহরিয়ার, দেবদুলাল ভৌমিক, মনজুর কাদের মনজু, স্থায়ী সদস্য জাহিদুল করিম কচি, শামসুল হক, প্রদীপ নন্দী, আফজল রহিম সিদ্দিকী, তাপস বড়ুয়া রুমু, শিশির বড়ুয়া, সুভাষ কারণ, মোহাম্মদ ফারুক, আলমগীর সবুজ, আবুল হাসনাত, বিপুল বড়ুয়া, তপন দাশবর্মন, সুভাষ কারণ, ফারুক তাহের, আবুল কালাম বেলাল, আরিফ রায়হান, অমিত বড়ুয়া, কামরুল হাসান বাদল, মান্নান মেহেদী, মিয়া মোহাম্মদ আরিফ, মাসুদুল হক, মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন, কুতুব উদ্দিন প্রমুখ।

অনুষ্ঠানের শুরুতে প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদ উদ্দিন চৌধুরীর শ্বশুর জমির উদ্দিন আহমেদের মৃত্যুতে এক মিনিট দাঁড়িয়ে নীরবতা পালন করা হয়।  

বাংলাদেশ সময়: ১৭০৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৭, ২০২২
এআর/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa