ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ আশ্বিন ১৪৩০, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৫

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

২০ কোটি টাকার সম্পত্তি উদ্ধারের এক ঘণ্টা পর ফের দখল

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১৩৮ ঘণ্টা, মে ৩১, ২০২৩
২০ কোটি টাকার সম্পত্তি উদ্ধারের এক ঘণ্টা পর ফের দখল ফাইল ছবি।

চট্টগ্রাম: অবৈধ স্থাপনা গুঁড়িয়ে দিয়ে রেলওয়ের ২০ কোটি টাকার সম্পত্তি উদ্ধার করেছিল চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন। পরে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষকে এ সম্পত্তি বুঝিয়ে দেওয়া হয়।

কিন্তু এক ঘণ্টা পার হতেই সেই জায়গা পুনরায় দখলে নেন স্থানীয় নেতারা।  

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার (২৫ মে) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত নগরের সিটি কলেজ সংলগ্ন নিউমার্কেট এলাকায় রেলওয়ের জমিতে অবৈধভাবে নির্মিত দোকানপাট ও স্থাপনা উচ্ছেদ করে প্রায় ৩০ শতক জায়গা উদ্ধার করে জেলা প্রশাসন।

পরে সেই সস্পত্তি রেলওয়ে প্রশাসনকে বুঝিয়ে দেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাসুদ রানা। এর এক ঘণ্টা পর দখলে নেন অবৈধ দখলদারেরা।  

চান্দগাঁও সার্কেলের সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. মাসুদ রানা বাংলানিউজকে বলেন, অভিযানে প্রায় ২০ কোটি টাকার সম্পত্তি উদ্ধার করে রেলওয়েকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়। দীর্ঘদিন ধরে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী এসব দোকান অবৈধভাবে নির্মাণ করে ব্যবসা করে আসছিলো। রেলওয়ের আবেদনের প্রেক্ষিতে জেলা প্রশাসক এ উচ্ছেদ অভিযানের আদেশ দেন।  

তিনি আরও বলেন, পরে সে জায়গা উদ্ধার করে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়। এরপর সে সম্পত্তি রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব রেলওয়ের। তারা যদি মনে করেন- এ জায়গায় আবারও উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা দরকার, তাহলে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনে আবেদন করলে আমরা উদ্ধার অভিযানে যাবো।

রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের প্রধান ভূ-সম্পত্তি কর্মকর্তা সুজন চৌধুরী বাংলানিউজকে বলেন, রেলওয়ের বেদখল হওয়া জায়গা উদ্ধার করে আমরা প্রকৌশল বিভাগকে বুঝিয়ে দেই। বাকি দায়িত্ব তাদের। যদি উচ্ছেদকৃত জায়গা দখল হয়ে যায় তাহলে আমরা আবারও সেখানে অভিযান পরিচালনা করবো।

নগরের সিটি কলেজ সংলগ্ন নিউমার্কেট এলাকায় রেলওয়ের প্রায় ১০০ শতক জায়গা রয়েছে। সে জায়গার ৩০ শতক জমিতে অবৈধভাবে নির্মিত দোকানপাট ও স্থাপনা উচ্ছেদ করা হলেও এরমধ্যে কিছু জায়গা দাবি করছে রেলওয়ে পুলিশ।  

এক বছর আগে ১০০ শতক জায়গা জুড়ে সীমানা প্রাচীর নির্মাণের টেন্ডার হলেও এখনো কাজ হয়নি। ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান কয়েক দফা সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করতে গেলে স্থানীয় প্রভাবশালীদের বাধার সম্মুখীন হয়েছে বলে অভিযোগ এসেছে।

বিভাগীয় প্রকৌশলী (১) আব্দুল হামিদ বাংলানিউজকে বলেন, অভিযানের পর আমরা সীমানা প্রাচীর নির্মাণের প্রাথমিক কার্যক্রম শুরু করেছি। দুয়েক দিনের মধ্যেই পূর্ণাঙ্গ কাজ শুরু হবে। এ জায়গা পুনরায় দখলের সুযোগ নেই।

বাংলাদেশ সময়: ১১৩০ ঘণ্টা, মে ৩১, ২০২৩ 
বিই/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa