ঢাকা, রবিবার, ১ কার্তিক ১৪২৮, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

ক্রিকেট

পদ্মার পাড়ে নির্মিত হচ্ছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১৩৪ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১২, ২০২১
পদ্মার পাড়ে নির্মিত হচ্ছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম

ঢাকা: দেশে নির্মিত হতে যাচ্ছে আরও একটি আন্তর্জাতিকমানের ক্রিকেট স্টেডিয়াম। মানিকগঞ্জের পাটুরিয়ায় পদ্মা নদীর পাড়ঘেঁষে নতুন স্টেডিয়াম তৈরির পরিকল্পনা চূড়ান্ত করেছে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়।

 

যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল বলেছেন, এক সপ্তাহের মধ্যে ফিজিবিলিটি স্টাডির জন্য ওয়ার্ক অর্ডার দেওয়া হবে।  

শনিবার (১১ সেপ্টেম্বর) বিকেলে স্টেডিয়ামের জন্য প্রস্তাবিত জায়গা পরিদর্শন করে এ কথা জানিয়েছেন যুব ও  ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল।  

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিশ্রুতি মোতাবেক মানিকগঞ্জে নির্মিত হতে যাচ্ছে ক্রিকেট স্টেডিয়ামটি। বছর দুয়েক ধরেই অনানুষ্ঠানিকভাবে চলছিল এ বিষয়ে আলোচনা। শনিবার যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীর প্রস্তাবিত জায়গা পরিদর্শনের মাধ্যমে শুরু হলো এর আনুষ্ঠানিকতা।

মানিকগঞ্জ-পাটুরিয়া ফেরিঘাটের ডান দিকে পদ্মা রিভারভিউ রিসোর্টের পেছনের একটি জমি বাছাই করা হয়েছে স্টেডিয়াম বানানোর জন্য। যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জানিয়েছেন, যত দ্রুত সম্ভব কাজ শেষ করে প্রধানমন্ত্রীর নামে নামকরণ করা হবে স্টেডিয়ামটির।

যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন মানিকগঞ্জে একটি ক্রিকেট স্টেডিয়াম তৈরির ব্যাপারে। সে অনুযায়ী আমরা কাজ শুরু করেছি। আগেই শুরু হয়েছিল, মাঝে করোনার জন্য থেমে যায়। ফিজিক্যালি পরিদর্শনের পর টেকনিক্যাল টিমের কাজ শুরু হবে শিগগির। এরই মধ্যে টেন্ডার আহ্বান করা হয়েছে। আশা করছি আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে ফিজিবিলিটি স্টাডির জন্য ওয়ার্ক অর্ডার দিতে পারব।

চলতি অর্থবছরই কাজ শুরুর আশা ব্যক্ত করে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘টেকনিক্যাল টিমের পরিদর্শনে বিভিন্ন ধরনের সমীক্ষা হয়, এখানকার মাটি উপযুক্ত কিনা, কত নিচে যেতে হবে এসব পরীক্ষার পরই করতে হয়। সাধারণত এটার জন্য তিন থেকে ছয় মাস সময় লাগতে পারে জায়গা অনুযায়ী। যেহেতু প্রধানমন্ত্রীর অগ্রাধিকার প্রকল্প, উনি নিজে ঘোষণা করেছেন, আমরা চেষ্টা করব এ অর্থবছরই যেন স্টেডিয়ামটির নির্মাণকাজ শুরু করতে পারি। ফিজিক্যাল স্টাডির জন্য আমরা এরই মধ্যে প্রায় ৪ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছি।  

তিনি আরও বলেন, ফিজিবিলিটি স্টাডি করার পর যদি এখানে আন্তর্জাতিক স্টেডিয়াম নির্মাণের জন্য উপযুক্ত বিবেচিত হয় তবে আমরা ২৫ একর জমির উপর একটি আধুনিক ও স্বয়ংসম্পূর্ন স্টেডিয়াম নির্মাণ করার প্রাথমিক চিন্তা করেছি। এ স্টেডিয়ামে অত্যাধুনিক ডরমিটরিসহ আন্তর্জাতিকমানের সকল সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করা হবে।  

পরিদর্শন শেষে প্রতিমন্ত্রী পদ্মা রিভারভিউ রিসোর্ট প্রাঙ্গনে স্থানীয় প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি, গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও ক্রীড়া ব্যক্তিত্বদের সঙ্গে প্রস্তাবিত স্টেডিয়ামের বিষয়ে মতবিনিময় সভায় অংশগ্রহণ করেন।  

এ সময়ে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি মো. আব্দুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব, মানিকগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক নাইমুর রহমান দুর্জয়, জাকিয়া তাবাসসুম এমপি, মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোশাররফ হোসেন মোল্লা, জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের সচিব মাসুদ করিম, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, জেলা প্রশাসক আবদুল লতিফ, পুলিশ সুপার মোঃ গোলাম আজাদ, সদর উপজেলা ইউএনও জেসমিন পারভীন উপস্থিত ছিলেন।  

বাংলাদেশ সময়: ০১৩৪ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১২, ২০২১
এমআইএইচ/এমএইচএম 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa