ঢাকা, মঙ্গলবার, ১২ শ্রাবণ ১৪২৮, ২৭ জুলাই ২০২১, ১৬ জিলহজ ১৪৪২

ক্রিকেট

এবাদত-জিয়া ঝড়ের পর সোহান-তানবীরের তাণ্ডব

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪৫০ ঘণ্টা, জুন ২৩, ২০২১
এবাদত-জিয়া ঝড়ের পর সোহান-তানবীরের তাণ্ডব

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ টি-টোয়েন্টির সুপার লিগে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের বিপক্ষে ৭ উইকেটের দারুণ জয় তুলে নিয়েছে শেখ জামাল ধানমণ্ডি ক্লাব। সুপার লিগে এনিয়ে তিন ম্যাচের দুটিতে জয় পেয়েছে শেখ জামাল।

তবে ঐতিহ্যবাহী মোহামেডান সবকটিতেই হেরেছে।

বুধবার (২৩ জুন) মিরপুর শেরে বাংলায় প্রথম ব্যাট করা মোহামেডান এবাদত হোসেন ও জিয়াউর রহমানের তোপে নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৩৩ রান করতে পারে। জবাবে খেলতে নেমে প্রথমে মোহাম্মদ আশরাফুলের ঝড় এবং পরে নুরুল হাসান সোহান ও তানবীর হায়দারের তাণ্ডবে ৩ উইকেট হারিয়ে ও এক ওভার বাকি থাকতে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় শেখ জামাল।

১৩৪ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে অবশ্য প্রথম ওভারেই আবু জায়েদ রাহীর শিকারে শূন্য রানে মাঠ ছাড়েন শেখ জামাল ওপেনার সৈকত আলী। তবে এর পর ইমরুল কায়েসেরে সঙ্গে ৫৪ রানের জুটি গড়ে দলকে ভালো অবস্থানে নিয়ে যান আশরাফুল। শুভাগত হোমের বলে বোল্ড হওয়ার আগে ইমরুল ২১ বলে ২৫ করেন।

প্রথমে আক্রমণাত্মক খেলা আশরাফুল নিজের ইনিংসের শেষদিকে মন্থর হয়ে যান। দিতে থাকেন একের পর এক ডট। শেষ পর্যন্ত তিনি ৪২ বলে ৪টি চার ও একটি ছক্কায় ৩৮ রান করেন। কিন্তু এরপর মাঠে নামা অধিনায়ক সোহান ও তানবীর ঝড়ো ব্যাট চালিয়ে দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যান। সোহান ৩১ বলে ৩৬ করেন। তানবীর ১৭ বলে ৩টি চার ও ২টি ছক্কায় ৩২ রান করেন। দুজনেই অপরাজিত থাকেন।

টস হেরে এর আগে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে এবাদত-জিয়ার তোপে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে মোহামেডান। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৪০ বলে ৪৯ রান করেন শামসুর রহমান। আর ওপেনার পারভেজ হোসেন ইমন ৩৫ বলে ৪৬ রানের ইনিংস খেলেন।

এবাদত ও জিয়া ৩টি করে উইকেট ভাগ করে নেন। পেসার এবাদত ম্যাচ সেরার পুরস্কার পান।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৪৮ ঘণ্টা, জুন ২৩, ২০২১
এমএমএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa