ঢাকা, শুক্রবার, ১৫ শ্রাবণ ১৪২৮, ৩০ জুলাই ২০২১, ১৯ জিলহজ ১৪৪২

ক্রিকেট

তাসকিনের ৪ উইকেট, ২৮৬ রানে থামলো শ্রীলঙ্কা

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭০৭ ঘণ্টা, মে ২৮, ২০২১
তাসকিনের ৪ উইকেট, ২৮৬ রানে থামলো শ্রীলঙ্কা ছবি: শোয়েব মিথুন

অধিনায়ক কুশল পেরেরার সেঞ্চুরি ও ধনঞ্জয়া ডি সিলভার ফিফটিতে ভর করে বাংলাদেশের সামনে ২৮৭ রানের লক্ষ্য ছুড়ে দিয়েছে শ্রীলঙ্কা।  

নির্ধারিত ৫০ ওভার ব্যাট করে ৬ উইকেট হারিয়েছে শ্রীলঙ্কা।

এর মধ্যে বাংলাদেশের পেসার তাসকিন আহমেদ একাই নিয়েছেন ৪ উইকেট। এর মাধ্যমে ওয়ানডে ক্রিকেটে ৫০ উইকেট শিকারের মাইলফলক স্পর্শ করেন তাসকিন।  ওয়ানডেতে তাসকিনের শিকারের সংখ্যা এখন ৫২টি।  

আজকের ম্যাচের আগে তাসকিনের ওয়ানডে পরিসংখ্যান ছিল ৩৮ ম্যাচে ৪৮ উইকেট। ৫০তম উইকেটের স্বাদ নিতে তার লেগেছে ৩৯ ম্যাচ। দ্রুত ৫০ উইকেট শিকারের তালিকায় বাংলাদেশের পক্ষে যৌথভাবে তৃতীয়স্থানে আছেন তাসকিন। তার পাশেই আছেন সাবেক বা-হাতি পেসার সৈয়দ রাসেল।

এই তালিকায় সেরার কাতারে কাটার মাস্টার মুস্তাফিজুর রহমান। ৫০ উইকেটের মাইলফলক স্পর্শ করতে মাত্র ২৭ ম্যাচ খেলেছিলেন 'দ্য ফিজ' খ্যাত এই পেসার। দ্বিতীয় দ্রুততম উইকেট বাঁ-হাতি স্পিনার আব্দুর রাজ্জাকের। ৩২তম ম্যাচে ৫০ উইকেট শিকার করেন বর্তমানে জাতীয় দলের অন্যতম নির্বাচক রাজ্জাক।

শুক্রবার (২৮ মে) মিরপুর শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ম্যাচটি দুপুর ১টায় শুরু হয়। টস জিতে টাইগারদের ফিল্ডিংয়ে পাঠান সফরকারী অধিনায়ক কুশল পেরেরা। এ ম্যাচ জিতলে লঙ্কানদের হোয়াইটওয়াশের লজ্জা দিতে পারবে স্বাগতিকরা।  

শুরুতে ব্যাটিংয়ে নেমে দুই ওপেনারের ব্যাটে দারুণ শুরু পায় লঙ্কানরা। প্রথম ১০ ওভারেই ৭৭ রান তুলে ফেলেন দুই ওপেনার কুশল পেরেরা ও দানুশকা গুনাথিলাকা। কিন্তু অবশেষে ইনিংসের ১২তম ওভারে জোড়া আঘাতে টাইগারদের স্বস্তি এনে দেন তাসকিন। গুনাথিলাকাকে (৩৯) বোল্ড করার পর পাথুম নিশাঙ্কাকে শূন্য রানে মুশফিকের ক্যাচে ফেরান তিনি। অপরপ্রান্তে অবশ্য রানের চাকা চালু রাখেন কুশল পেরেরা। কুশল মেন্ডিসকে নিয়ে পঞ্চাশোর্ধ্ব জুটিও গড়েন তিনি।  

কুশল মেন্ডিস অবশ্য ইনিংস লম্বা করতে পারেননি। ব্যক্তিগত ২২ রানে তাসকিনের তৃতীয় শিকারে পরিণত হন তিনি। তাকে তামিমের ক্যাচ বানিয়ে বিদায় করেছেন তাসকিন। পরে ধনঞ্জয়া ডি সিলভাকেও লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলেছিলেন তিনি ডানহাতি পেসার। আম্পায়ার আউটও দিয়েছিলেন। কিন্তু রিভিও নিয়ে বেঁচে যান ধনঞ্জয়া। রিপ্লেতে দেখা যায়, বল স্ট্যাম্পের অনেকটা উপর দিয়ে যেতো।

বাকিরা না পারলেও তিন বার জীবন পেয়ে সেঞ্চুরি তুলে নেন কুশল পেরেরা। দলের ইনিংস প্রায় একাই টেনে নেওয়ার পথে ব্যক্তিগত ৬৬, ৭৯ এবং ৯৯ রানে কুশলের ক্যাচ ফেলে দেন ফিল্ডাররা। সেই তিন ক্যাচ মিসের খেসারত দেয় বাংলাদেশ। ৯৯ বলে ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ ওয়ানডে সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন কুশল। ইনিংসটি তিনি ১০টি চার ও ১ ছক্কায় সাজিয়েছেন।  

তবে সেঞ্চুরির পরে তাকে খুব বেশিদূর যেতে দেননি শরিফুল ইসলাম। লঙ্কান ইনিংসের ৪০তম ওভারে বাংলাদেশের ডানহাতি পেসারের গুড লেন্থের বলে ড্রাইভ করতে গিয়ে ক্যাচ তুলে দেন কুশল। মিড অফ থেকে পেছন দিকে দৌড়ে গিয়ে দারুণ এক ক্যাচ লুফে নেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। প্যাভিলিয়নের পথে হাঁটার আগে ১২২ বলে ১১ চার ও ১ ছক্কায় ১২০ রানের ইনিংস খেলেছেন পেরেরা।

পেরেরার বিদায়ের পর লঙ্কান ইনিংসের গতি অনেকটা কমে যায়। মাঝে রান আউটের শিকার হন নিরোশান ডিকভেলা (৭)। এরপর ২১ বলে ১৮ রান করা ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গাকে মেহেদী হাসানের ক্যাচ বানিয়ে নিজের চতুর্থ উইকেট তুলে নেন তাসকিন। তবে অপরপ্রান্তে ফিফটি তুলে নেন ধনঞ্জয়া ডি সিলভা। শেষ পর্যন্ত ৭০ বলে ৪ চারে ৫৫ রানে অপরাজিত থাকেন ধনঞ্জয়া।  

বাংলাদেশ সময়: ১৭০৭ ঘণ্টা, মে ২৮, ২০২১
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa