ঢাকা, শনিবার, ৪ বৈশাখ ১৪২৮, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ০৪ রমজান ১৪৪২

ক্রিকেট

মনে হচ্ছিলো যেন জেলখানায় আছি: মিরাজ

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৪৬ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২১
মনে হচ্ছিলো যেন জেলখানায় আছি: মিরাজ কোয়ারেন্টিনের চতুর্থ দিনে হোটেল রুমের বাইরে তামিম-মিরাজরা/ছবি: সংগৃহীত

সংক্ষিপ্ত পরিসরের সিরিজ খেলতে নিউজিল্যান্ডে অবস্থান করছে বাংলাদেশ দল। সেখানে পৌঁছানোর পরই পুরো দলকে ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনে কাটাতে হচ্ছে।

এর মধ্যে প্রথম ৩ দিন পুরোপুরি হোটেলরুমে বন্দি ছিলেন তামিম-মিরাজরা।

চতুর্থ দিন থেকে অবশ্য প্রতিদিন ৩০ মিনিট করে হাঁটাচলার সুযোগ পাচ্ছেন সবাই। কিন্তু এমন পরিবেশ বাংলাদেশ দলের জন্য একেবারেই নতুন। কারণ করোনাকালে এটাই টাইগারদের প্রথম বিদেশ সফর। আর সেখানে গিয়েই ক্রাইস্টচার্চের সরকারি কোয়ারেন্টিন সেন্টারে কোয়ারেন্টিনে আছে বাংলাদেশ দল।

কোয়ারেন্টিনে প্রথম ৩ দিনের অভিজ্ঞতা নিয়ে রোববার বাংলাদেশের অফ-স্পিনার-অলরাউন্ডার মেহেদি হাসান মিরাজ বলেন, ‘তিন দিন পর আধা ঘণ্টা করে বের হওয়ার সুযোগ পেয়েছি। প্রথম দিন বের হয়ে মাথা একটু ঘুরছিল। ১০-১৫ মিনিট পর ঠিক হয়ে গেছে। তিন দিন বন্দি ছিলাম, মনে হচ্ছিলো জেলখানায় আছি। ’

তরুণ এই অলরাউন্ডার আরো বলেন, ‘সারাদিন রুমে থাকতে তো ভালো লাগে না। তিনটা দিন একই রুমে কাটানো- এটা আমাদের জন্য অস্বস্তিকর। বাইরের আবহাওয়া মানিয়ে নেওয়ার পর ভালো লেগেছে। রুমে গিয়ে ফ্রেশ মনে হয়েছে। মাঠে যেতে পারলে ভালো লাগবে। কিছু জিম বা ওয়ার্কআউট করতে পারলে ভালো হতো। সময়ও কেটে যেত, ফিটনেসও ভালো থাকতো। ’

কোয়ারেন্টিনের সপ্তম দিন থেকে গ্রুপ করে অনুশীলনের সুযোগ পাবে বাংলাদেশ দল। প্রতি গ্রুপে থাকবেন ৫ জন করে। ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকার পর পুরো দল মিলে অনুশীলনের অনুমতি মিলবে। এর আগে বাংলাদেশ দলের প্রথম ধাপের করোনা টেস্টের ফলাফল নেগেটিভ এসেছে। তবে প্রথম সপ্তাহের মধ্যেই আরও দুইবার করোনা পরীক্ষা করানো হবে।
জৈব সুরক্ষা বলয়ে থাকার অভিজ্ঞতা অবশ্য আগেই হয়েছে বাংলাদেশ দলের। ঘরোয়া দুই টুর্নামেন্ট এবং ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের সময় এই ব্যবস্থা ছিল। কিন্তু নিউজিল্যান্ডে বিষয়টা অনেকটাই আলাদা। এই অভিজ্ঞতা বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের কাছে একেবারেই নতুন।  

নতুন এই অভিজ্ঞতা নিয়ে ডানহাতি পেসার তাসকিন আহমেদ বলেন, ‘এ ধরনের আইসোলেশন একেবারেই আলাদা কিছু। আগে কখনো এরকম সময় কাটাইনি। দুই মিটার দূরত্ব বজায় রেখে মাত্র ৩০-৪০ মিনিট হাঁটার অনুমতি পেয়েছি। এটা অনেকটা হোটেল বন্দি থাকার মতো ব্যাপার। প্রথমবার করোনা পরীক্ষায় সবাই নেগেটিভ আসার পর আমরা হাঁটার অনুমতি পাই। আরও দুই পরীক্ষা বাকি। এরপর অনুশীলন শুরু করব। সবমিলিয়ে এটা একেবারেই নতুন অভিজ্ঞতা। আশা করি দ্রুতই এটা শেষ হবে। ’

হোটেলবন্দি অবস্থায় সময় কেমন কাটছে জানতে চাইলে তাসকিন বলেন, ‘ফোনে পরিবারের সঙ্গে কথা বলে কিংবা মুভি দেখে আমাদের সময় কাটছে। শারীরিক অনুশীলনের জন্য কিছু জিনিসপত্র বিসিবি দিয়েছে। হোটেল কক্ষে এগুলো দিয়ে অনুশীলন চালিয়ে যাচ্ছি। এভাবেই সময় কাটছে। ’

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজটি শুরুতে ১৩ মার্চ থেকে মাঠে গড়ানোর কথা থাকলেও করোনা সংক্রান্ত ঝামেলার কারণে ২০ মার্চ পর্যন্ত পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। তিন ওয়ানডে ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে যথাক্রমে ২০, ২৩ এবং ২৬ মার্চে। তিন ওয়ানডের ভেন্যু হচ্ছে- ডানেডিন, ক্রাইস্টচার্চ এবং ওয়েলিংটন। এরপর মার্চের ২৮, ৩০ এবং ১ এপ্রিল যথাক্রমে হ্যামিল্টন, ন্যাপিয়ার এবং অকল্যান্ডে গড়াবে টি-টোয়েন্টি সিরিজের তিন ম্যাচ।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৪৬ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২১
এমএইচএম/এমএমএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa