ঢাকা, বুধবার, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৮ মে ২০২২, ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩

জলবায়ু ও পরিবেশ

তাপমাত্রা বাড়লেও মেঘাচ্ছন্ন রাজশাহীর আকাশ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮১৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২২, ২০২২
তাপমাত্রা বাড়লেও মেঘাচ্ছন্ন রাজশাহীর আকাশ

রাজশাহী: রাজশাহীতে দ্বিতীয় দফার মৃদু শৈত্যপ্রবাহ কেটেছে দুদিন হলো। শনিবার (২২ জানুয়ারি) একলাফে তাপমাত্রাও প্রায় ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস বেড়েছে।

কিন্তু আবহাওয়া মেঘাচ্ছন্ন থাকায় শীতের প্রকোপ এখনও কমেনি।

শনিবার দিনের বেশিরভাগ সময়ই রাজশাহীর আকাশ ছিল মেঘে ঢাকা। সকালের দিকে সূর্যের মুখ দেখা গেলেও দুপুরের পর থেকে কালো মেঘ যেন সন্ধ্যা নামিয়ে নিয়ে এসেছিল আগেভাগেই। তাই বিকেল পেরিয়ে সন্ধ্যা গড়াতেই অন্ধকারে মুড়ে আসে রাজশাহী শহরসহ আশপাশের অঞ্চল।

দিনভর বৃষ্টি নামবে নামবে মনে হলেও এখনও তার দেখা মেলেনি। তাই মৃদু শৈত্যপ্রবাহ কেটে গেলেও নতুন করে মেঘমেদুর আবহাওয়ার কবলে পড়েছে বিভাগীয় এ শহর। নতুন বিধিনিষেধের কারণে শনিবার স্কুল-কলেজসহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ছিল বন্ধ। এর ওপর মেঘলা আবহাওয়ায় বাড়তি শীত অনুভূত হচ্ছে। তাই বিকেল থেকেই সড়কে মানুষের চলাচল কিছুটা কম লক্ষ্য করা যাচ্ছে।

রাজশাহী আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের ভারপ্রাপ্ত আবহাওয়া কর্মকর্তা রেজওয়ানুল হক বাংলানিউজকে জানান, শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) রাজশাহীতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছিল ১০ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৪ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর শনিবার (২২ জানুয়ারি) রাজশাহীর সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১২ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস।  

আর সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ২৪ দশমিক ০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। অর্থাৎ একদিনের ব্যবধানে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস বেড়েছে। সাধারণ তাপমাত্রা ৮ থেকে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে নামলে তাকে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ হিসেবে ধরা হয়। সে অনুযায়ী রাজশাহীর মৃদু শৈত্যপ্রবাহ কেটেছে। তবে আকাশ মেঘলা থাকায় শীতের প্রভাব কমেনি।

এর আগে বৃহস্পতিবার (২০ জানুয়ারি) রাজশাহীর সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছিল ৯ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এটিই এখন পর্যন্ত চলতি মৌসুমের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। এর আগে গত ২০ ডিসেম্বর রাজশাহীতে মৌসুমের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছিল ৯ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। এরপর মেঘ কেটে গেলে রাজশাহীসহ উত্তরাঞ্চলের আবহাওয়া পরিস্থিতি উন্নতির সম্ভাবনা রয়েছে।

এদিকে আবহাওয়া অধিদপ্তর থেকে শনিবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে- পশ্চিমা লঘুচাপের বর্ধিতাংশ হিমালয়ের পাদদেশীয় পশ্চিমবঙ্গ এবং তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। উপ-মহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ বিহার ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে।

মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। এজন্য খুলনা, বরিশাল ও ঢাকা বিভাগের দু’এক জায়গায় হালকা অথবা গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। এছাড়া দেশের অন্যত্র আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে।  

সারাদেশে মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত হালকা থেকে মাঝারি কুয়াশা পড়তে পারে। সারাদেশে রাতের তাপমাত্রা ১ থেকে ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস বাড়তে পারে এবং দিনে সামান্য কমতে পারে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮১১ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২২, ২০২২
এসএস/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa