ঢাকা, শনিবার, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ২৮ রবিউস সানি ১৪৪৩

আরও

রহস্যে ঘেরা ঘসেটি বেগমের ধনভাণ্ডার  

অনেকের মতে, মতিঝিল ছিলো ভাগীরথী নদীর একটি সর্পিল বাঁকা গতিপথ। আবার অনেকে মনে করেন, নবাব আলীবর্দীর সময় মুর্শিদাবাদে বহু অট্রালিকা

বরফ পাটায় চাপা জীবন!

বাক্সের তিন দিক কাঠ দিয়ে আটকানো। ওপরের অংশ খোলা। পাশেই বসার টুল। হাতে শোভা পাচ্ছিল মোটালাঠি। সেই ছোট বাক্সের ভেতর বরফের পাটা ফেলছেন

পড়াশোনার জন্য বকাঝকাও করেছিলেন মা

এ ফলাফলের পেছনে আমার মা স্বপ্না বড়ুয়া, বাবা সাংবাদিক-গল্পকার বিপুল বড়ুয়া এবং বিদ্যালয়, প্রমিলা টিচিং হোমের শিক্ষক, রাসেল স্যার ও

কঠোর অধ্যবসায় ছাড়া মাদ্রাসায় জিপিএ-৫ অর্জন খুবই কষ্টের

আমার যখন দাখিল পরীক্ষা শুরু হয় তখন আমি শারীরিকভাবে গুরুতর অসুস্থ ছিলাম। কিন্তু তারপরও অনেক বাধা-বিপত্তি পেরিয়ে দাখিল পরীক্ষায় অংশ

নরসুন্দার পাড়ে ঘুড়ি উড়ানো বিকেল 

সবার নজর অসীম আকাশে। লাল, নীল, সাদা আর হলুদ রাঙা কাগুজে ঘুড়ি সেখানে যেন ভাসছে দুলে দুলে।  ছোট-বড় নাটাই হাতে পাড়ায় পাড়ায় ভাগ হয়ে চলছে

একজন আদর্শ চিকিৎসক হিসেবে সেবা দিতে চাই

বিগত কতগুলো বছর ধরে আমাকে কঠোর পরিশ্রম করতে হয়েছে, এ পরিশ্রমে শিক্ষক-শিক্ষকা, বাবা-মা সবাই অংশীদার। স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষিকারা ছিলো

সার্টিফিকেট নয়, চাই প্রকৃত শিক্ষা অর্জন করতে

অভিভাবকদের বিশ্বাস, তাদের স্বপ্ন আমাকে যুগিয়েছে প্রেরণা, শক্তি, মনোবল। শুধু তারাই নয় আমার পাশে আরও একজন থেকে সবসময় আমাকে এগিয়ে চলার

বাবা বলেছিল, তোমার যোগ্যতা দিয়ে যা পাবে তাতেই খুশি

কিন্তু অন্য কিছু কথা নিজেকে অবাকও করছে। কিছুদিন আগের ঘটনা। প্রাক-নির্বাচনী পরীক্ষা শেষ হওয়ার কিছুদিন পর মনে হয়েছিল আমি জিপিএ-৫ পাবো

পড়ালেখার সময় সবকিছুই যেনো ভুলে যেতাম

পরীক্ষা নিয়ে সবাই কিছুটা ভয়ে থাকে তবুও মনে প্রচণ্ড আত্মবিশ্বাস ছিলো আমার। ভালো কিছু করার জন্য মনে অদম্য ইচ্ছাও ছিলো। আর ছিলো

বিশ্বের প্রথম ডাকটিকেটের প্রচলন

তাই ইতিহাসের দিনপঞ্জি মানুষের কাছে সবসময় গুরুত্ব বহন করে। এই গুরুত্বের কথা মাথায় রেখে বাংলানিউজের পাঠকদের জন্য নিয়মিত আয়োজন

একজন আদর্শ ডাক্তার হতে চাই আমি

আমার বাবা শাহাদৎ আলম ঝুনু বগুড়া পুলিশ লাইন্স স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ। আর মা মাহবুবা আলম। আমি তাদের প্রথম সন্তান।    সে

হাজার দুয়ারি প্রাসাদে শেকলবন্দি নবাব

প্রাসাদের নামকরণ সম্পর্কে সঠিক তথ্য পাওয়া যায় না, তবে সাধারণভাবে প্রচলিত যে, এই প্রাসাদে এক হাজার দরজা রয়েছে। প্রাসাদে ৯শটি আসল

বাবা-মায়ের মুখে হাসি ফোটাতে পারাটাই বড় পুরস্কার

এসএসসি পরীক্ষাও প্রতিটি মানুষের জীবনে এমনই এক ধাপ। যে ধাপ আমি মানতাকা জুননুরাইন আদৃত জিপিএ-৫ পেয়ে কৃতিত্বের সঙ্গে অতিক্রম করতে

আঁই টিপসই করি ন

পাশাপাশি পরবর্তী সাতদিন স্বেচ্ছাসেবী টিম তার টিউটোরিয়াল মনিটিরং করবে। সাত দিন পর সাক্ষরতার পরীক্ষা। এভাবে একেকটি ওয়ার্ডের

স্বপ্ন দেখার সাহস আরও বাড়িয়ে দিলো এ সাফল্য  

আমার সাফল্যের পেছনে যার অবদান ছিলো অপরিসীম। ছোটবেলা থেকে স্বপ্ন দেখতাম সফল চিকিৎসক হওয়ার। আজ সে স্বপ্ন পূরণের পথে আরও এক ধাপ এগিয়ে

ছুটির দিন কাটুক ঐতিহ্যের সোনারগাঁওয়ে

ইট পাথরের শহরের মানুষগুলোর জন্য চার দেয়ালের বাইরে যাবার তেমন স্থান না থাকলেও এখনো ছুটির দিনে মানুষের পছন্দের ঘোরাঘুরির স্থান

আমার বাবা সবসময় অনুপ্রেরণা দিয়েছেন

যখন আমি ফল জানতে পারি তখন আমি খুশিতে প্রায় আত্মহারা হয়ে যাই। এই ফল শুধু এক বছরের কষ্টের সাধনা নয়, এই সাফল্যজনক ফলের পেছনে রয়েছে দীর্ঘ

ভালো ফলের পেছনে উদ্যম ও কঠোর পরিশ্রম

তাছাড়া ফুলবাড়িয়া-২ (আছিম) কেন্দ্র থেকে মাদ্রাসা বোর্ডের একমাত্র জিপিএ-৫ ধারী ছাত্র আমিই। আমার এই সাফল্যের পেছনে আমার মা ফেরদৌসী

নিজের আর মায়ের স্বপ্নের কথা মাথায় রেখে পড়তাম

যখন আমি পরীক্ষার ফলাফল শুনতে পাই তখনই আমার মাকে (জাকিয়া আহমেদ রেবা) জড়িয়ে ধরে কেঁদে ফেলি। আমার নিজের দেখার সাহস হয়নি বলে ভাইয়াকে

স্বপ্নের আরও এক ধাপ এগিয়ে গেলাম  

আমার স্বপ্ন ছিলো যেনো স্কুল জীবনের শেষ পরীক্ষায় ভালো ফলের মাধ্যমে উত্তীর্ণ হতে পারি। আজ আমার স্বপ্ন সত্যি হয়েছে। এ স্বপ্ন সত্যি

Alexa