ঢাকা, শুক্রবার, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৭ মে ২০২২, ২৫ শাওয়াল ১৪৪৩

বাজেট

‘এনবিআর সক্ষম’, আস্থা অর্থমন্ত্রীর

রহমত উল্যাহ, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০৫৮ ঘণ্টা, জুন ৪, ২০১৬
‘এনবিআর সক্ষম’, আস্থা অর্থমন্ত্রীর অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত/ছবি- জি এম ‍মুজিবুর

ঢাকা: আগামী অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে রাজস্ব লক্ষ্যমাত্রা ‘উচ্চাভিলাষী’ হলেও জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) তা অর্জনে সক্ষম-এমন আস্থা অর্থমন্ত্রীর।
 
২০১৬-১৭ অর্থবছরের জন্য প্রস্তাবিত ৩ লাখ ৪০ হাজার ৬০৫ কোটি টাকার বাজেটের মধ্যে ২ লাখ ৩ হাজার ১৫২ কোটি টাকা এনবিআরের রাজস্ব লক্ষ্যমাত্রা।


 
সুশীল সমাজ, উন্নয়ন সংস্থার প্রতি উত্তরে এনবিআর সক্ষম এমন আস্থা নিয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, ‘ইয়েস, আগামী অর্থবছরের রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা উচ্চাভিলাষী। ’
 
তিনি বলেন, গত সাতবছরে রাজস্ব আদায়ের ক্ষমতা ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি করা হয়েছে। কয়েক হাজার জনবল নিয়োগ ও নতুন নতুন কর অফিস হয়েছে। ৯৬টি উপজেলায় কর অফিস রয়েছে। প্রত্যেক উপজেলায় অফিস হবে। কর্মকর্তাদের অনেক প্রশিক্ষণ হয়েছে।
 
আস্থা নিয়ে মুহিত বলেন, গত সাতবছর কর্মকর্তাদের কাজ করতে দেখেছি। দিস ইনস্টিটিউশন হ্যাজ দ্য ক্যাপাসিটি টু গো ম্যাচ। সেজন্য আমি ৩৫ শতাংশ অতিরিক্ত কর আদায়ের প্রস্তাব করেছি।
 
৩৫ শতাংশ কর আদায়ের জন্য অনেক কষ্ট করতে হবে। এজন্য একটি পরিকল্পনা রয়েছে। আগামী জুন মাস থেকে এর কার্যক্রম শুরু হবে বলে জানান অর্থমন্ত্রী।
 
মন্ত্রীর সাফ কথা, সাত বছর ধরে আমি এ মন্ত্রণালয়ে আছি। এ সাতবছর কতটুকু দক্ষতা বৃদ্ধি পেয়েছে তার ব্যক্তিগত ধারণা আমার আছে। বর্তমানে এনবিআরের মাঠ পর্যায়ের যে কর্মকর্তা রয়েছেন তারা এ লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সক্ষম হবেন। তাদের ওপর ভিত্তি করে এ রাজস্ব লক্ষ্যমাত্রা করা হয়েছে।
 
এনবিআর চেয়ারম্যান ও অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. নজিবুর রহমান বলেন, অর্থমন্ত্রী সবসময় বড় ধরনের চিন্তা করেন, বড় ধরনের লক্ষ্যমাত্রা দেন।
 
এনবিআরও সে লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সক্ষম। এনবিআরের সব দিকের সক্ষমতা অন্য যেকোনো সময়ের চেয়ে বহুগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। এ লক্ষ্যমাত্রা অর্জনও সম্ভব।
 
রাজস্ব পরিধি, টার্গেট অর্জনে কর্মকর্তাদের চ্যালেঞ্জ নেওয়া, চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করা-সব কর্মকর্তাদের দ্বারা সম্ভব হবে।
 
তিনি আরো বলেন, চলতি অর্থবছরের রাজস্ব লক্ষ্যমাত্রা কমিয়ে যে ১ লাখ ৫০ হাজার কোটি টাকা করা হয়েছে, সহকর্মীরা ইতোমধ্যেই বলেছেন ১ লাখ ৬০ হাজার কোটি টাকা আদায় সম্ভব।
 
শুক্রবার (০৩ জুন) রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে বাজেটোত্তর সংবাদ সম্মেলনে এনবিআর ও এনবিআরের কর্মকর্তাদের বিষয়ে এমন জোর মন্তব্য করেন অর্থমন্ত্রী।
 
বাংলাদেশ সময়: ০০৫৪ ঘণ্টা, জুন ০৪, ২০১৬
আরইউ/জেডএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa