ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

বইমেলা

কলকাতা বইমেলায় দুই দিনব্যাপী বাংলাদেশ দিবস

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২৩০৯ ঘণ্টা, মার্চ ৩, ২০২২
কলকাতা বইমেলায় দুই দিনব্যাপী বাংলাদেশ দিবস

ঢাকা: ৪৫তম কলকাতা আন্তর্জাতিক বইমেলায় শুরু হয়েছে দুই দিনব্যাপী বাংলাদেশ দিবস।

বৃহস্পতিবার (৩ মার্চ) কলকাতা বইমেলা প্রাঙ্গণে এসবিআই অডিটোরিয়ামে আয়োজিত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধ ও বাংলাদেশ বিষয়ক একাধিক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয় ৷ এসব আয়োজনে তুমুল আগ্রহ নিয়ে সমবেত হয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের লেখক-পাঠক-প্রকাশকসহ নানা শ্রেণি পেশার মানুষ।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ উদযাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয় ৷

এতে বলা হয়, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে এবারের বইমেলায় বাংলাদেশকে নিয়ে নানান অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। গত ২৮ ফেব্রুয়ারি থেকে আগামী ১৩ মার্চ পর্যন্ত চলা এ বছরের কলকাতা আন্তর্জাতিক বইমেলা বঙ্গবন্ধুর নামে উৎসর্গ করা হয়েছে। থিম কান্ট্রি করা হয়েছে বাংলাদেশকে। সুদৃশ্য বাংলাদেশ প্যাভিলিয়নে প্রতিদিন ভিড় করছেন পশ্চিমবঙ্গের বিপুলসংখ্যক পাঠক। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির স্টলসহ বাংলাদেশের সরকারি-বেসরকারি মোট ৪০টি প্রকাশনীর স্টলেও আগ্রহী পাঠকের ভিড় লক্ষ্যনীয়। বাংলাদেশ দিবস উদযাপনের ১ম দিন, বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৩টায় শুরু হয় জমজমাট সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এরপর ছিল দুটি সেমিনার। বিকেল ৫টায় শুরু হওয়া ১ম সেমিনারের বিষয় ছিল "রাজনীতির কবি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ও তার ৩টি বই (অসমাপ্ত আত্মজীবনী, কারাগারের রোজনামচা ও আমার দেখা নয়াচীন)। মূল আলোচক ছিলেন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির প্রধান সমন্বয়ক ও বাংলাদেশের প্রখ্যাত কবি কামাল চৌধুরী। আরও আলোচনা করেন বাংলাদেশের কবি তারিক সুজাত, 'বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ মৈত্রী সম্মাননা' প্রাপ্ত পশ্চিমবঙ্গের বিশিষ্ট সাংবাদিক সুখরঞ্জন দাশগুপ্ত ও কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক চিন্ময় গুহ।

এ সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন বাংলা একাডেমির সভাপতি কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন। উপস্থাপনায় ছিলেন শিহাব শাহরিয়ার।

এতে আরও বলা হয়, সন্ধ্যা ৭টায় অনুষ্ঠিত ২য় সেমিনারের বিষয় ছিল ‘বাংলাদেশ-ভারত বই বিনিময় ও বিপণন: সমস্যা ও সম্ভাবনা’। সেমিনারে প্রধান আলোচক ছিলেন বাংলাদেশের প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান ইউনিভার্সিটি প্রেস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাহরুখ মহিউদ্দিন।  

আরও আলোচনা করেন বাংলাদেশ জ্ঞান ও সৃজনশীল প্রকাশনা সমিতির সভাপতি ফরিদ আহমেদ, বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও সৃজনশীল প্রকাশক সমিতির সহ-সভাপতি মাজহারুল ইসলাম, কলকাতা আন্তর্জাতিক বইমেলার আয়োজক পাবলিশার্স ও বুকসেলার্স গিল্ডের সাধারণ সম্পাদক ত্রিদিব কুমার চট্টোপাধ্যায় এবং পশ্চিমবঙ্গের প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান দেজ পাবলিশিং এর কর্নধার সুধাংশু শেখর দে।  

এ সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা। উপস্থাপনা করেন রূপা চক্রবর্তী।

সেমিনার পর্বে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন কলকাতায় নিযুক্ত বাংলাদেশের উপহাইকমিশনার তৌফিক হাসান। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্রের পরিচালক মিনার মনসুর।

বাংলাদেশ সময়: ২৩০৮ ঘণ্টা, মার্চ ০৩, ২০২২
এসকে/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa