ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ মাঘ ১৪২৯, ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১০ রজব ১৪৪৪

বইমেলা

একুশ উপলক্ষে বইমেলায় বাড়তি নজরদারি

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৬৪৯ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০১৭
একুশ উপলক্ষে বইমেলায় বাড়তি নজরদারি একুশ উপলক্ষে বইমেলায় বাড়তি নজরদারি-ছবি-ডি এইচ বাদল

ঢাকা: একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও বইমেলা অঙ্গাঙ্গিভাবে জড়িত। নামকরণে অমর একুশে গ্রন্থমেলা যেন পরিপূর্ণতা পায় একুশে ফেব্রুয়ারিতে এসে।

মঙ্গলবার (২১ ফেব্রুয়ারি) ভাষা দিবসের প্রথম প্রহর থেকেই কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ফুলেল শ্রদ্ধা জানাতে শুরু করেন সর্বস্তরের মানুষ। শ্রদ্ধা শেষে সেসব মানুষের ঢল দেখা গেছে বইমেলাতেও।

 

এদিন সকাল ৮টায় শুরু হয় বইমেলা। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভিড় বাড়ছে। মেলার জনসমাগমকে মাথায় রেখে প্রবেশপথ ও মেলা প্রাঙ্গণজুড়ে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর বাড়তি নজরদারি লক্ষ্য করা গেছে।

টিএসসি ও দোয়েল চত্বর এলাকায় ব্যারিকেড দিয়ে রাস্তা আটকে দেওয়া হয়েছে। পায়ে হেঁটে প্রবেশের জন্য রাস্তার খানিকটা খুলে রাখা হলেও সার্বক্ষণিক নজরদারিতে বাড়তি পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

মেলার সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশে নারী-পুরুষের জন্য আলাদা প্রবেশপথ রাখা হয়েছে। সবাইকে আর্চওয়ের ভেতর দিয়ে প্রবেশ করতে হচ্ছে। এছাড়া মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে তল্লাশি করছে পুলিশ। দর্শনার্থীদের প্রতিটি ব্যাগ তল্লাশি শেষে ভেতরে প্রবেশের অনুমতি মিলছে।

পুলিশ ও র্যাবের কন্ট্রোল রুম সূত্রে জানা গেছে, এবারের মেলায় সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

একুশ উপলক্ষে বইমেলায় বাড়তি নজরদারি-ছবি-ডি এইচ বাদলডিএমপি কন্ট্রোল রুম থেকে জানা গেছে, মেলার নিরাপত্তায় পুলিশের ৫টি ওয়াচ টাওয়ার থেকে সার্বক্ষণিক নজরদারি চলছে। মেলা প্রাঙ্গণ ও এর আশেপাশে মোতায়েন করা হয়েছে বিপুল সংখ্যক আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য।

মেলার নিরাপত্তায় দোয়েল চত্বর থেকে শুরু করে শামসুন্নাহার হল পর্যন্ত রাস্তায় ২৫০টি ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা লাগানো হয়েছে। বাংলা একাডেমি, শাহবাগ থানা ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে স্থাপিত তিনটি কন্ট্রোল রুম থেকে এসব ক্যামেরা মনিটরিং করা হচ্ছে।

জানা গেছে, মেলার প্রবেশপথে ২২টি আর্চওয়ে রয়েছে। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের রমনা কালীমন্দির লাগোয়া অংশে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করতে বাড়তি নজরদারি রয়েছে।

মেলায় আসা বিদেশি অতিথিরা চাইলে প্রত্যেককে একজন করে নিরাপত্তাকর্মী দেওয়ার কথাও জানিয়েছে পুলিশ।

একুশে ফেব্রুয়ারিতে মেলার নিরাপত্তা প্রসঙ্গে রমনা বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) মারুফ হেসেন সরদার বলেন, আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে বাড়তি জনসমাগমের কথা চিন্তা করে নিরাপত্তা ব্যবস্থা ঢেলে সাজানো হয়েছে। সার্বক্ষণিক নিরাপত্তায় বাড়তি পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

গত ১৯ ফেব্রুয়ারি ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া সাংবাদিকদের বলেন, বইমেলায় নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা বলতে যা বোঝায় এবার তেমনটাই নেওয়া হয়েছে। অতীতে আমাদের যে ব্যর্থতা রয়েছে সে অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে এবার নিরাপত্তা ব্যবস্থা হাতে নেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১২৫০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০১৭
পিএম/আরআর/জেডএস

**একুশের আভা আসছে বইমেলায়

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa