ঢাকা, রবিবার, ১৪ মাঘ ১৪২৯, ২৯ জানুয়ারি ২০২৩, ০৬ রজব ১৪৪৪

বইমেলা

বইমেলায় মুজিব ইরমের ‘চম্পূকাব্য’

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৬১৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৭
বইমেলায় মুজিব ইরমের ‘চম্পূকাব্য’ মুজিব ইরমের ১৩তম কাব্যগ্রন্থ ‘চম্পূকাব্য’

অমর একুশে গ্রন্থমেলায় (২০১৭) প্রকাশিত হয়েছে কবি মুজিব ইরমের ১৩তম কাব্যগ্রন্থ ‘চম্পূকাব্য’। 

আনওয়ার ফারুকের প্রচ্ছদে ৬৪ পৃষ্ঠার এ কাব্যগ্রন্থটি প্রকাশ করেছে ‘চৈতন্য’। গ্রন্থটির মূল্য ১৩৫ টাকা।

বইমেলার ৬৩৪-৬৩৫ (সোহরাওয়ার্দী উদ্যান) নম্বর ও ৭০ (লিটলম্যাগ চত্বর) স্টলে চম্পূকাব্য পাওয়া যাবে।

কাব্যগ্রন্থটি নিয়ে মুজিব ইরম বলেন, চম্পূকাব্য আমার ১৩তম কবিতার বই। প্রায় এক যুগ ধরে চম্পূগুলো লিখেছি। বিভিন্ন মাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। এই মেলায় তার আপাত পরিসমাপ্তি ঘটলো। পেলো তার গ্রন্থরূপ।  

‘আলঙ্কারিক দণ্ডী তাঁর ‘কাব্যাদর্শ’ গ্রন্থে বলেছিলেন: ‘গদ্যপদ্যময়ী কাচিৎ চম্পূরিতাভিধীয়তে’ অর্থাৎ ‘গদ্য ও পদ্যে রচিত কাব্যকে চম্পূকাব্য বলা হয়’। অন্য এক আলঙ্কারিক বিশ্বনাথ কবিরাজ ‘সাহিত্যদর্পণ’ বইয়ে বলেছিলেন: ‘গদ্য-পদ্যময় কাব্য হলো চম্পূ’। চম্পূ শব্দের ব্যুৎপত্তিতে বলা হচ্ছে: ‘চম্পূয়তি যোজয়তি গদ্যেপদ্যে ইতি চম্পূঃ’। অর্থাৎ ‘যে কাব্যে গদ্য ও পদ্য যোজনা করা হয়, সেটিই চম্পূ’। অতএব বুঝতেই পারছেন, এই বইয়ের চম্পূগুলোতে আমি গদ্য-পদ্যের অসম বিবাহ দিতে চেষ্টা করেছি, ধরতে চেয়েছি মাধ্যমিক মন, মনের বেদনা। ’ 

কবি মুজিব ইরমের জন্ম মৌলভীবাজার জেলার নালিহুরী গ্রামে। প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ: মুজিব ইরম ভনে শোনে কাব্যবান (১৯৯৬), ইরমকথা (১৯৯৯), ইরমকথার পরের কথা (২০০১), ইতা আমি লিখে রাখি (২০০৫), উত্তরবিরহচরিত (২০০৬), সাং নালিহুরী (২০০৭), শ্রী (২০০৮), আদিপুস্তক (২০১০), লালবই (২০১১), নির্ণয় ন জানি (২০১২), কবিবংশ (২০১৪), শ্রীহট্টকীর্তন (২০১৬)।  

উপন্যাস/আউটবই: বারকি (২০১১), মায়াপীর (২০০৯), বাগিচাবাজার (২০১৫)। গল্পগ্রন্থ: বাওফোটা (২০১৫)। শিশুসাহিত্য: এক যে ছিলো শীত ও অন্যান্য গপ (২০১৬)।  

এছাড়া প্রকাশিত হয়েছে ধ্রুবপদ থেকে মুজিব ইরম প্রণীত কবিতাসংগ্রহ: ইরমসংহিতা (২০১৩), বাংলা একাডেমি থেকে নির্বাচিত কবিতার বই: ভাইবে মুজিব ইরম বলে (২০১৩), Antivirus Publications, Liverpool, England থেকে নির্বাচিত কবিতার অনুবাদ গ্রন্থ: Poems of Mujib Erom (2014), ধ্রুবপদ থেকে উপন্যাসসমগ্র: মুজিব ইরম প্রণীত আউটবই সংগ্রহ (২০১৬)।  

মুজিব ইরম ভনে শোনে কাব্যবান-এর জন্য পেয়েছেন বাংলা একাডেমি তরুণ লেখক প্রকল্প পুরস্কার (১৯৯৬)। বাংলা কবিতায় সার্বিক অবদানের জন্য পেয়েছেন সংহতি সাহিত্য পদক (২০০৯), কবি দিলওয়ার সাহিত্য পুরস্কার (২০১৪)। কবিবংশ কাব্যগ্রন্থের জন্য পেয়েছেন ব্র্যাক ব্যাংক-সমকাল সাহিত্য পুরস্কার (২০১৪)। শ্রীহট্টকীর্তন কাব্যগ্রন্থের জন্য পেয়েছেন সিটি-আনন্দ আলো সাহিত্য পুরস্কার (২০১৬)।

যোগাযোগ

বাংলাদেশ সময়: ১২০৯ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৭
এসএনএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa