ঢাকা, শুক্রবার, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০, ০১ মার্চ ২০২৪, ১৯ শাবান ১৪৪৫

বইমেলা

বইমেলায় সোহরাব সুমনের অনুবাদে নতুন তিন বই

তানিম কবির, সিনিয়র নিউজরুম এডিটর | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১১৪ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ৯, ২০১৬
বইমেলায় সোহরাব সুমনের অনুবাদে নতুন তিন বই

বইমেলা থেকে: বইমেলায় সোহরাব সুমনের অনুবাদে দিব্যপ্রকাশ থেকে এসেছে এনিড ব্লাইটনের বিখ্যাত কিশোর উপন্যাস ‘শ্যাডো দ্য শিপ-ডগ’। ২৫০ পৃষ্ঠার বইটির দামও ২৫০ টাকা।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ৫৪৫-৫৪৮ নম্বর স্টলে বইটি পাওয়া যাবে। বই হিসেবে প্রকাশের আগে অনুবাদ উপন্যাসটি বাংলানিউজের ইচ্ছেঘুড়ি বিভাগে ধারাবাহিকভাবে প্রকাশিত হয়।

এছাড়াও বইমেলায় আসছে সোহরাব সুমনের অনুবাদে আরও দু’টি অনুবাদের বই— এনিড ব্লাইটনের রহস্য দ্বীপ ও ইতালির শ্রেষ্ঠ গল্প। এ বই দু’টিও চলতি সপ্তাহ থেকেই বইমেলায় পাওয়া যাবে বলে অনুবাদক জানান।

এর আগে কবিতা ও অনুবাদ মিলিয়ে সোহরাব সুমনের মোট নয়টি বইটি প্রকাশিত হয়েছে। এই মেলায় প্রকাশিত শ্যাডো দ্য শিপ-ডগ তার দশম বই।

বইটি সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটি একটি কিশোর উপন্যাস। লিখেছেন বিখ্যাত ব্রিটিশ লেখক এনিড ব্লাইটন। এই বইয়ের গল্প খামারে জন্ম নেয়া শিপ-ডগ প্রজাতির এক কুকুর, শ্যাডোকে নিয়ে। খামারের শিপ-ডগ জেসির তিনটি বাচ্চা হয়। যার দু’টি বিক্রি করে দেয়া হয়, পরে তৃতীয়টিকেও বিক্রি করা হয়, কিন্তু সেটি বারবার ফিরে আসায়, কৃষকের ছেলে জনিকে তা রাখবার অনুমতি দেয়া হয়, এই শর্তে যে খামারের অন্যান্য কুকুরদের মতোই তাকেও জীবিকার জন্য খামারে কাজ করতে হবে।
 
জনি তার এই কুকুরের নাম দেয় শ্যাডো। সব সময় সে ওর সঙ্গে থাকে। বাচ্চাটিকে সে নিজেই প্রশিক্ষণ দেয়। খামারের কুকুর জেসি বাড়ি, এর আশপাশ এবং উঠান পাহারা দেয়। টিঙ্কার, রাফে, ড্যান্ডি ভেড়া রাখার কাজ করে। ওরা সবাই শিপ-ডগ প্রজাতির কুকুর। রাখাল এন্ডির কুকুর বব সঙ্কর প্রজাতির হলেও তাকেও ভেড়া রাখার কাজ করতে হয়। খামারের সব কুকুরের কাছ থেকেও শ্যাডো বিভিন্নভাবে আরো অনেক কিছু শেখে। তারপর একদিন এমন সময় আসে, যখন শ্যাডোর এইসব দক্ষতা, অভিজ্ঞতা, এবং সাহসিকতা জনির জীবন রক্ষায় বারবার কাজে আসে।

খামারের অন্য কুকুরেরা বাচ্চা অবস্থায় শ্যাডোকে কুকুরদের যাবতীয় আচার আচরণ এবং ভেড়া রাখার নিয়ম কানুনসহ আরও অনেক কিছু শেখায়। এভাবে সবার গভীর ভালোবাসা আর আদর যত্নের মাধ্যমে শ্যাডো বেড়ে ওঠে। শিপ-ডগের ট্রেইলে অংশ নেবার পর সে সবচেয়ে দ্রুতগামী কুকুরের খেতাব অর্জন করে। জনি তাকে খুব ভালোবাসে এবং প্রতিরাতে সে তার ছোট্ট প্রভুর সঙ্গে একই বিছানায় ঘুমায়। কুকুরটি তাকে যা যা বলতে চেষ্টা করে তার সবই জনি বুঝতে পারে এবং শ্যাডোও জনি এবং তার বাবা-মায়ের সব কথা বুঝতে পারে।
 
তিনি বলেন, এই গল্পে আলাদা করে কোনো প্লট নেই। প্রতিটা অধ্যায় এক একদিন শ্যাডোকে নিয়ে ঘটে যাওয়া বিশেষ বিশেষ ঘটনা। বইয়ের একেবারে শেষে, খামারটি আর্থিক দৈন্য দশার মুখোমুখি হয় ও ট্রেইল জিততে দেখে একজন আমেরিকান চড়া দামে শ্যাডোকে কিনে নেবার আগ্রহ প্রকাশ করে। এবং কৃষকও চমৎকার কুকুরটি বিক্রি করতে রাজি হয়ে যান। তবে শেষ পর্যন্ত শ্যাডোকে বিক্রি করা সম্ভব হয় না। দুর্ঘটনা বসত শ্যাডো কিছু দিনের জন্য অন্ধ হয়ে যায়, তবে কুকুরটি শিগগিরই সেরে ওঠে এবং পরিবারটির সঙ্গে বসবাস করতে থাকে।
 
এই বইয়ের মাঝামাঝি কোনো এক অধ্যায়ে দেখা যাবে, কৃষক জনি এবং শ্যাডোকে কয়েকটি ভেড়া এবং শাবক দিয়ে বাজারে পাঠান। কিন্তু পথে একটা শাবক খোয়া যায়। জনি গুনতে ভুলে গেলে শাবক হারাবার বিষয়টি শ্যাডো ঠিকই আঁচ করতে পারে। কিন্তু তারপরও জনি বাজারে যায়। একপর্যায়ে সে তার ভুল বুঝতে পারে এবং শ্যাডো হারানো শাবকটি উদ্ধার করে বাজারে নিয়ে আসে। জনির বাবা একা একা বাজারে ভেড়া নিয়ে যাওয়ায় তার প্রশংসা করে। কিন্তু সততার কারণে, জনি বাবার কাছে পথে ভেড়া হারানো এবং গুনতে ভুলে যাবার কথা স্বীকার করে, এবং শ্যাডোর শাবক উদ্ধার করার কথা জানায়। তারপরও ভুল স্বীকার এবং সততার জন্য জনির বাবা তার প্রশংসা করে।
 
অন্য এক ঘটনায় দেখা যাবে, এক দুষ্ট ছেলে জনিকে বিরক্ত করে প্রতিদিন স্কুলে পৌঁছাতে দেরি করিয়ে দেয়। কথাটা জনি আর কাউকে না জানালেও তার প্রিয় কুকুর শ্যাডোকে জানায়। শ্যাডো জানায় খামারের বাকি কুকুরদের। এরপর খামারের সব কুকুর মিলে ছেলেটির পথ আগলাতে থাকে, এবং জনিকে আর বিরক্ত করবে না এই প্রতিশ্রুতি আদায় করবার আগপর্যন্ত তারা তাকে ছাড়ে না। এবং শেষে উত্তেজক এবং বিজয় দৃপ্ত এক ঘটনার মাঝ দিয়ে দীর্ঘ এই গল্পের শেষ হয়।
 
তিনটি বই অনুবাদ প্রসঙ্গে সোহরাব সুমন বলেন, এবারই প্রথম দুটি কিশোর উপন্যাস ‘শ্যাডো দ্য শিপ-ডগ’ এবং ‘রহস্য দ্বীপ’ অনুবাদ করলাম। দুটি বই-ই বিখ্যাত ব্রিটিশ লেখক এনিড ব্লাইটনের সাড়া জাগানো সাহিত্য কর্ম। তাছাড়া এবারকার ছোটগল্প সংকলন তথা ইতালির শ্রেষ্ঠ গল্প বইটির গবেষণা লব্ধ দীর্ঘ ভূমিকা থেকে পাঠক ইতালিসহ বিশ্ব সাহিত্য এবং এর ধারাবাহিক বিবর্তণ সম্পর্কে বিশেষ ধারণা পেতে সক্ষম হবেন বলে আশা করছি।
 
সোহরাব সুমন অনূদিত ইতালির শ্রেষ্ট গল্প মেলায় আনছে ইত্যাদি গ্রন্থ প্রকাশ। এবং রহস্য দ্বীপ প্রকাশিত হবে গদ্যপদ্য থেকে।
 
অনুবাদগুলো কোন সময়ে করা— জানতে চাইলে তিনি বলেন, শ্যাডো দ্য শিপ-ডগ অনুবাদ করেছি গত বছর জুন জুলাইতে। এটা বাংলানিউজের ইচ্ছেঘুড়িতে ধারাবাহিকভাবে ছাপা হচ্ছে গত মাস দুয়েক ধরে। রহস্য দ্বীপ অনুবাদ করি গত বছরের নভেম্বর ডিসেম্বরে। আর ইতালির গল্পগুলোসহ এর গবেষণা লব্ধ দীর্ঘ ভূমিকার বেশির ভাগ কাজ শেষ হয় গত ২০১৪ এবং ২০১৫ সালের নানান সময়ে। এর বেশির ভাগ গল্প এবং ভূমিকা প্রবন্ধ আকারে বিভিন্ন পত্র পত্রিকা, সাহিত্য সাময়িকী ও ঈদ সংখ্যায় ছাপা হয়।
 
বই প্রকাশের জন্য বইমেলার সময়টিকেই বেছে নিলেন কেন? এমন প্রশ্নের জবাবে সোহরাব সুমন: সত্যি বলতে কি আমার প্রতিটি বই বইমেলাতেই প্রকাশিত হয়েছে। অবশ্য এ ব্যাপারে আমার নিজের কোনো হাতই ছিল না বা এখনো নেই। একজন লেখক এবং সাংবাদিক হিসেবে যতটুকু জানি বইমেলাকে কেন্দ্র করেই এদেশে সবচেয়ে বেশি বই বিক্রি হয়। তাই বেশিরভাগ প্রকাশক ও পুস্তক ব্যবসায়ী বই প্রকাশ এবং ছাপার ক্ষেত্রে বিশেষ এই সময়টিকেই বেছে নেন। দেশব্যাপী মননশীল এবং সৃজনশীল বইয়ের অপর্যাপ্ত আর দুর্বল বিপণন এবং জেলা, থানা ও উপজেলা পর্যায়ে বিক্রয় কেন্দ্র এবং লাইব্রেরির যথেষ্ট অভাব, সর্বোপরি এধরনের বই পাঠে উৎসাহের ভাটাও এর অন্যতম কারণ হিসেবে চিহ্নিত হয়ে আসছে।
 
শ্যাডো দ্য শিপ-ডগ বইটির প্রচ্ছদ করেছেন প্রচ্ছদ শিল্পী মোবারক হোসেন লিটন। ইতালির শ্রেষ্ঠ গল্প বইটির প্রচ্ছদ করেছেন শিল্পী ধ্রুব এষ। তবে প্রকাশিতব্য রহস্য দ্বীপ বইটির প্রচ্ছদ কে করছেন তা জানাতে পারেন নি সোহরাব সুমন।
 
বইমেলার যেকোনো বই ঘরে বসে পেতে ভিজিট করুন www.rokomari.com অথবা ডায়াল করুন 16297 নাম্বারে।
 
বাংলাদেশ সময়: ২১১৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ৯, ২০১৬
টিকে/এএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।