ঢাকা, শুক্রবার, ১৬ চৈত্র ১৪২৯, ৩১ মার্চ ২০২৩, ০৮ রমজান ১৪৪৪

বইমেলা

ক্রমশ প্রাণের স্পন্দন গ্রন্থমেলায়

সাজেদা সুইটি, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৫২ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ৪, ২০১৬
ক্রমশ প্রাণের স্পন্দন গ্রন্থমেলায় ছবি: দীপু মালাকার/ বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

অমর একুশে গ্রন্থমেলা থেকে: ক্রমশ প্রাণসঞ্চার হচ্ছে প্রাণের গ্রন্থমেলায়। কেনাকাটায় মনোযোগ বাড়ছে ক্রেতাদের।

ঘুরে-ফিরে দেখতে এসেও কেউ কেউ কিনে নিচ্ছেন পছন্দের বই। ছোট আড্ডা, ছোট জটলা, নতুন বইয়ের ঘ্রাণ- সব মিলিয়ে ধীরে ধীরে মেলা পাচ্ছে তার ঝলমলে রূপ।

বৃহস্পতিবারের (০৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুর এর কিছুটা আভাস দিচ্ছিলো। বিকেল ৩টার আগেই ফটকের আশেপাশে আনাগোনা বইপ্রেমীদের। ছোট ছোট লাইনে ভেতরে ঢোকার অপেক্ষা। স্টলে স্টলে ঘুরে বেড়াচ্ছেন ইউনিফর্ম পরা শিক্ষার্থীরাও। আলাপে জানালেন, দেখে রাখলে পরে কিনতে সুবিধা।

পাঁচ হাজার টাকার বই কিনেছেন নেভির ক্যাপ্টেন কাওসার মোস্তফা।

আমেরিকা প্রবাসী ফরিদা ইয়াসমিন জানালেন, আপাতত তিনটি বই কিনেছেন। লিস্ট করে এসেছেন তিনি। একদিনেই বেশি কিনবেন না। ধীরে ধীরে পছন্দের সবকটি বই নিয়ে আমেরিকা ফিরবেন আবার আগামী গ্রন্থমেলার অপেক্ষায়।

বিকেল ৪টায় গ্রন্থমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় ‘বাংলা একাডেমির হীরকজয়ন্তী:
গবেষণা কার্যক্রম, অতীত থেকে বর্তমান’ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। এ বিষয়ে ড. আবুল আহসান চৌধুরীর লিখিত প্রবন্ধ তার অনুপস্থিতিতে পাঠ করা হয়।

আলোচনায় অংশ নেন অধ্যাপক মনসুর মুসা, ড. ভূঁইয়া ইকবাল, ড. আমিনুর রহমান সুলতান। সভাপতিত্ব করেন ড. মনিরুজ্জামান।

প্রাবন্ধিক বলেন, প্রতিষ্ঠার পর থেকে ষাট বছর ধরে বাংলা ভাষা, সাহিত্য, সংস্কৃতিসহ প্রাসঙ্গিক বিষয়ে বাংলা একাডেমি অসাধারণ সব গবেষণাকর্ম সম্পাদন করেছে।

সাম্প্রতিক সময়ে একাডেমির গবেষণাকার্যে নতুন গতি সঞ্চার হয়েছে। দুই খণ্ডে প্রকাশিত প্রমিত বাংলা ভাষার ব্যাকরণ (২০১২) এর কল্যাণে বাংলা ভাষার বিজ্ঞানসম্মত প্রামাণ্য ব্যাকরণের অভাব মোচন হয়েছে, বলেন তিনি।

জানানো হলো, চার খণ্ডে প্রকাশের পরিকল্পনা রয়েছে বাংলা ও বাঙালির ইতিহাস গ্রন্থমালার। এখন পর্যন্ত মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক খণ্ডের চারটি পর্ব প্রকাশ পেয়েছে। আরেকটি প্রকল্পের অধীনে বাংলাদেশের লোকজ সংস্কৃতি গ্রন্থমালা প্রকাশিত হচ্ছে। এর মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের লোকসংস্কৃতির একটি পূর্ণচিত্র লাভ সম্ভব হবে।

চার খণ্ডে পরিকল্পিত রবীন্দ্রজীবনীর দু’টি খণ্ড প্রকাশিত হয়েছে রবীন্দ্রজীবন (২০১২) নামে, লেখক প্রয়াত আবদুশ শাকুর। প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের রবীন্দ্রজীবনী ও প্রশান্তকুমার পালের রবিজীবনী’র দৃষ্টান্ত থাকার পরও আবদুশ শাকুরের এ প্রয়াসের গুরুত্ব স্বীকার করতে হয়।

সভাপতির বক্তব্যে ড. মনিরুজ্জামান বলেন, বাংলা একাডেমি প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে গবেষণা কার্যক্রমে মনোযোগ দিয়ে আসছে। বাংলা ভাষা ও সাহিত্যের খ্যাতনামা পণ্ডিত এবং গবেষকরা অত্যন্ত নিষ্ঠার সঙ্গে, কোনো স্বীকৃতির আশা না করে বাংলা একাডেমিতে যুক্ত থেকে গবেষণা কার্যক্রম পরিচালনা করেছেন। এর মধ্য দিয়ে ভাষা ও সাহিত্যের অনেক নতুন তথ্য-তত্ত্ব উদঘাটিত হয়েছে। তবে এখন প্রয়োজন গবেষণা পদ্ধতির সনাতনী ধরন পরিবর্তন করে বিশ্ব-গবেষণাধারায় একাডেমিকে যুক্ত করা।
 
সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করেন শিল্পী সাদী মহম্মদ, খায়রুল আনাম শাকিল, ফেরদৌস আরা, রাহাত আরা গীতি, মহিউজ্জামান চৌধুরী এবং নার্গিস চৌধুরী। যন্ত্রাণুষঙ্গে ছিলেন রবীন্দ্রনাথ পাল (তবলা), গাজী আবদুল হাকিম (বাঁশি), রবিন্স চৌধুরী (কি-বোর্ড), নাজমুল আলম খান (মন্দিরা)।

মেলায় শিশুপ্রহর ঘোষণা
মেলার ৫ম দিনে (০৫ ফেব্রুয়ারি, শুক্রবার) মেলা শুরু হবে সকাল ১১টায় এবং চলবে রাত ৮টা পর্যন্ত। সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত শিশুদের অভিভাবকদের কেনাকাটার সুবিধায় শিশুপ্রহর ঘোষণা করা হয়েছে।

মেলায় নতুন বই
মেলার ৪র্থ দিনে বাংলা একাডেমির দেওয়া হিসেবে পাওয়া যায়, এদিন নতুন বই এসেছে ৯৩টি।

উল্লেখযোগ্য বইগুলো হলো, প্রথম দেখা আমেরিকা (প্রদীপ দেব), উত্তাল একাত্তর (রানা জামান), ছায়ায় ঢাকা মায়ার পাহাড় (আল মাহমুদ),
কেবলই মুজিব (সমীরণ চক্রবর্তী শংকু), হৃদয় আমার নাচেরে আজিকে (হার্ট অ্যাটাকের সংকেত) লিখেছেন অধ্যাপক ডা. ইকবাল হাসান মাহমুদ, মেঘে ঢাকা তারা (ঋত্বিক কুমার ঘটক), মুহম্মদ নূরুল হুদার উপন্যাস জোড়া উপন্যাস, অধ্যাপক ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত প্রবন্ধ হৃদয় আমার, থিওরি অব রিলেটিভিটি (আবদুল গাফফার রনি), মাহবুবুল হকের লোকসংস্কৃতি ও লোকসাহিত্য, সাহসের সমাচার (আল মাহমুদ), সুরের বরপুত্র শহীদ আলতাফ মাহমুদ (দিনু বিল্লাহ), চাঁদের আলো মৃত্য দেখা (নঈম নিজাম), একজন আমলা কবির উপাখ্যান (শাহাবুদ্দীন নাগরী), শতাব্দীর জননেতা মওলানা ভাসানী (আনম আবদুস সোবহান), মন মেজাজের কাউন্সেলিং (ড. সুজাতা মুখোপাধ্যায়)।

এছাড়া আগামী প্রকাশনা থেকে কর্নেল শওকত আলী স্মৃতিচারণ গ্রন্থ 'গণ পরিষদ থেকে নবম জাতীয় সংসদ’, রশীদ হায়দারের আমার প্রেমের গল্প, হাসার হাফিজুর রহমানের কবিতা নিয়ে বিমুখ প্রান্তর, জেড. আলমার গল্প পথের খোঁজে, ব্রিগ্রেডিয়ার জেনারেল মো. জাবেদ আলী (অব.) ‘আল কোরআনের আলোকে মহান আল্লাহ ও নবী রাসূলদের পরিচয় এবং মানবের করনীয়’, হাসান হাফিজুর রহমানের ভবিষ্যতের সাঁকো, রানা জামানের ‘আমার পাখি আমার প্রাণী’ (শিশু ও কিশোর ছড়া), মামুন রশীদের অর্থনীতি বিষয়ক মধ্যবিত্তের বিকাশ ও ভোগবাদের উত্থান, জিকরুর রেজা খানমের ভ্রমণ কাহিনী হাজার বছরের ইস্তাম্বুল, সাইফুল আহসান বুলবুলের প্রবন্ধ দক্ষিণ বাংলার লোকধর্ম, শিহাব সরকারের কবিতা সমগ্র, আখতার হোসেনের শিশু সাহিত্য অহংকারী তোতা পুনর্কথন, তানহা ঈমিতার কিশোর রহস্য গল্প জাদুকরের পয়সা, আখতার হোসেনের প্রকৃত শিষ্য পুনর্কথন (শিশু সাহিত্য), প্রদীপ দেবের বিজ্ঞান বিষয়ক পৃথিবী সূর্যের তৃতীয় গ্রহ, তানহা ঈমিতার কিশোর রহস্য গল্প পোলেন নগরী ইত্যাদি নতুন এসেছে।

শুক্রবারের সকাল-বিকেল-সন্ধ্যা
সকালের চিত্রাঙ্কন: অমর একুশে উদযাপনের অংশ হিসেবে শুক্রবার সকাল সাড়ে ৮টায় বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে শিশুকিশোরদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে প্রতিযোগিতা উদ্বোধন করবেন শিল্পী সমরজিৎ রায়চৌধুরী।
 
বিকেলের আলোচনা: গ্রন্থমেলার মূলমঞ্চে বাংলা একাডেমির হীরকজয়ন্তী: অভিধান ও ব্যাকরণ কর্মসূচি, অতীত থেকে বর্তমান শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন অধ্যাপক স্বরোচিষ সরকার।

আলোচনায় অংশ নেবেন অধ্যাপক জীনাত ইমতিয়াজ আলী, অধ্যাপক হাকিম আরিফ ও অধ্যাপক মোহাম্মদ আজম। এতে সভাপতিত্ব করবেন অধ্যাপক আহমদ কবির।

সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান: সন্ধ্যায় যথারীতি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান থাকবে বইপ্রেমীদের ভালোলাগায়, জানিয়েছে একাডেমীর জনসংযোগ বিভাগ।

বাংলাদেশ সময়: ২১৫৪ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি, ০৪, ২০১৬
এসকেএস/এসএস

** অসুস্থ ও প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জন্য মেলায় হুইলচেয়ার
** সামাজিক মেলবন্ধনের গ্রন্থমেলা
** মেলায় ফাগুন হাওয়ার মিষ্টি ধ্বনি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa