ঢাকা, রবিবার, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২২ মে ২০২২, ২০ শাওয়াল ১৪৪৩

এভিয়াট্যুর

ঢাকা ‍ও চট্টগ্রাম থেকে মাস্কাটে ইউএস-বাংলার অতিরিক্ত ফ্লাইট

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৫৫৬ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৭, ২০১৬
ঢাকা ‍ও চট্টগ্রাম থেকে মাস্কাটে ইউএস-বাংলার অতিরিক্ত ফ্লাইট ছবি:ফাইল ফটো

গত ১১ নভেম্বর ঢাকা ও চট্টগ্রাম থেকে ওমানের রাজধানী মাস্কাট রুটে ফ্লাইট পরিচালনা শুরুর পর যাত্রী সাধারণের মধ্যে অভাবনীয় সাড়া ফেলতে সক্ষম হয়েছে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স।

ঢাকা: গত ১১ নভেম্বর ঢাকা ও চট্টগ্রাম থেকে ওমানের রাজধানী মাস্কাট রুটে ফ্লাইট পরিচালনা শুরুর পর যাত্রী সাধারণের মধ্যে অভাবনীয় সাড়া ফেলতে সক্ষম হয়েছে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স।

প্রাথমিকভাবে সপ্তাহে চারটি ফ্লাইট পরিচালিত হলেও এই রুটে আগামী ১৮ ডিসেম্বর থেকে সপ্তাহে ৬টি ফ্লাইট পরিচালনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স।

বর্তমানে ৮টি বিজনেস ক্লাসসহ মোট ১৬৪ আসন বিশিষ্ট বোয়িং ৭৩৭-৮০০ এয়ারক্রাফট দিয়ে ঢাকা-মাস্কাট রুটের ফ্লাইট পরিচালিত হচ্ছে।

ইতিমধ্যেই অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটের ধারাবাহিকতায় অন-টাইম ফ্লাইট পরিচালনা বজায় রাখতে সক্ষম হয়েছে ঢাকা-চট্টগ্রাম-মাস্কাট রুটের সবগুলো ফ্লাইট।

এছাড়া আন্তর্জাতিক ফ্লাইট অবতরণের পর ঢাকা ও চট্টগ্রামের বিমানবন্দরে যাত্রীরা দীর্ঘসময় অপেক্ষা না করে মাত্র ১০ মিনিটে লাগেজ গ্রহণ করতে পারছেন। যার মাধ্যমে বাংলাদেশের এভিয়েশন ইতিহাসে একটি স্মরণীয় অধ্যায়ের সূচনা করেছে ইউএস-বাংলা।

ঢাকা ও চট্টগ্রাম থেকে মাস্কাটে ন্যূনতম ওয়ান ওয়ের ভাড়া ১৭,৭৬০ টাকা। এছাড়া ঢাকা থেকে মাস্কাট রিটার্ন ভাড়া ৩৮,৬০৭ টাকা ও চট্টগ্রাম থেকে মাস্কাট রিটার্ন ভাড়া ৪০,৫৫৭ টাকা। সকল ভাড়ায় ট্যাক্স ও সারচার্জ অন্তর্ভূক্ত। শনিবার ছাড়া ঢাকা থেকে সপ্তাহের প্রতিদিন রাত ৯টা ৩০ মিনিটে এবং চট্টগ্রাম থেকে রাত ১০ টা ৪৫ মিনিটে মাস্কাটের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায় ইউএস বাংলার ফ্লাইট।

মাস্কাটে পৌঁছায় স্থানীয় সময় রাত ২.০০ টায়। আবার মাস্কাট থেকে রোববার ছাড়া সপ্তাহের প্রতিদিন রাত ৩.০০ টায় চট্টগ্রাম ও ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসে। বর্তমানে প্রায় ৬ লাখ বাংলাদেশি ওমানে অবস্থান করছেন।

ইতিমধ্যে একটি নির্ভরযোগ্য এয়ারলাইন্স হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স। বর্তমানে মাস্কাট ছাড়াও আন্তর্জাতিক রুট কাঠমান্ডু ও কলকাতায় ফ্লাইট পরিচালনা করছে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স। এছাড়া ফ্লাইট পরিচালনা করছে বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ ৮টি রুটে। সপ্তাহে প্রায় ২০০টির অধিক অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করে থাকে ইউএস-বাংলা।

১৭ জুলাই ২০১৪ সালে যাত্রা শুরু করার পর আড়াই বছরে প্রায় ১৯ হাজার ফ্লাইট পরিচালনা করেছে ইউএস-বাংলা যা বাংলাদেশে বিমান চলাচলের ইতিহাসে একটি রেকর্ড।

বর্তমানে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স এর বহরে দু’টি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ সহ মোট পাঁচটি এয়ারক্রাফট রয়েছে। আগামী জানুয়ারি মাসে আরো একটি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ এয়ারক্রাফট বহরে যুক্ত হচ্ছে।

আগামী বছরের শুরুতে সিঙ্গাপুর, কুয়ালালামপুর, ব্যাংকক, গুয়াংজুহ, দোহা সহ বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক রুটে ফ্লাইট পরিচালনা শুরু করতে যাচ্ছে বাংলাদেশের অন্যতম এই বেসরকারি বিমান সংস্থা।

২০১৫ সালে অভ্যন্তরীণ রুটের সেরা এয়ারলাইন্সের মর্যাদা লাভ করে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স ।

বাংলাদেশ সময়: ১১৪৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৭, ২০১৬
আরআই

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa