ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৩ আষাঢ় ১৪২৯, ০৭ জুলাই ২০২২, ০৭ জিলহজ ১৪৪৩

এভিয়াট্যুর

শাহজালালে বিমান দুর্ঘটনা মোকাবেলা মহড়া

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩৪৭ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৪, ২০১৬
শাহজালালে বিমান দুর্ঘটনা মোকাবেলা মহড়া ছবি: দীপু মালাকার/বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ঢাকা: হয়রত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিমান দুর্ঘটনা মোকাবেলা মহড়া অনুষ্ঠিত হয়েছে।
 
রোববার (২৪ জানুয়ারি) সকালে মহড়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বেসামরিক বিমান চলাচল ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন।


 
আরও উপস্থিত ছিলেন বেসামরিক বিমান চলাচল ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব খোরশেদ আলম চৌধুরী, সিভিল অ্যাভিয়েশনের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল এম সানাউল হকসহ সংশ্লিষ্ট সংস্থার কর্মকর্তারা।
মহড়া পূর্ব অনুষ্ঠানে রাশেদ খান মেনন বলেন, বিশ্বমানের নিরাপত্তা বলয় গড়ার জন্য এ মহড়ার আয়োজন করা হয়েছে।
 
তিনি বলেন, বিমান দুর্ঘটনা কেউ চায় না, কিন্তু ঘটে যায়। এ কারণে দুর্ঘটনা পরবর্তী মোকাবেলা কিভাবে করবো তার জন্য প্রস্তুতি নেওয়া প্রয়োজন।

বিমানবন্দরের নিরাপত্তা সম্পূর্ণ নিশ্চিত করার জন্য বেশ কিছু পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। যে কারণে সাধারণ যাত্রীদের কিছুটা সমস্যা হচ্ছে। তবে নিরাপত্তার জন্য এসব সমস্যা মেনে নিতে অনুরোধ জানান মন্ত্রী।

 আন্তর্জাতিক বেসামরিক বিমান চলাচল সংস্থার নির্দেশনা অনুযায়ী প্রতিটি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে প্রতি দুই বছরে একবার জরুরি দুর্যোগ মোকাবেলা অনুষ্ঠানের বাধ্য বাধকতা রয়েছে। সে অনুযায়ী এ মহড়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

ফায়ার ক্রুদের দক্ষতা, সচেতনতা ও পেশাগত জ্ঞান বৃদ্ধি করাসহ দুর্যোগের সময় সংশ্লিষ্ট যন্ত্রপাতিগুলোর ব্যবহারের উপযোগিতা যাচাই করা এবং এক্ষেত্রে কোনো ত্রুটি-বিচ্যুতি থাকলে তা সমাধানের মাধ্যমে উদ্ধার কাজের জন্য প্রস্তুত থাকার জন্য এ মহড়া বলে জানান সিভিল অ্যাভিয়েশনের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল এম সানাউল হক।
 
এছাড়া বিমানবন্দরের নিরাপত্তার জন্য যাত্রীদের প্রবেশে টিকিট ও আইডি কার্ড দেখাতে হবে। যাত্রীর সঙ্গে আসা পরিদর্শনকারীকেও যেকোনো আইডি কার্ড দেখাতে হবে বলেও জানান তিনি।

এম সানাউল হক জানান, বিমানবন্দরে নিরাপত্তা বলয় নিশ্চিত করার জন্য বন্দর কর্তৃপক্ষের জন্য স্পেশাল আইডি কার্ড করে দেওয়া হয়েছে। তাদের ব্যক্তিগত ডাটাও তৈরি করা হয়েছে।
 
তিনি বলেন, যাত্রীদের সেভিংক্রিমসহ তরল জাতীয় পদার্থ, ব্যাগ অনেক কিছু চেক করা হচ্ছে। প্রতিটি ব্যাগ দু’বার করে চেক করা হয়। ডগ স্কোয়াড দিয়েও চেক করা হয়।

বিমানবন্দরের নিরাপত্তার জন্য সাধারণ যাত্রীদের কিছুটা দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, অ্যাভিয়েশন সিকিউরিটি ফোর্স গঠনের প্রক্রিয়া চলছে। বর্তমানে এয়ারফোর্স, পুলিশ ও আনসারের দুইশ’ ৫০ জন সদস্য আমাদের সহায়তায় রয়েছেন।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৩৪৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৪, ২০১৬
এফবি/এএসআর

** শাহজালালে ফ্লাইট ওঠানামা স্বাভাবিক
** ঘন কুয়াশায় শাহজালালে ফ্লাইট ওঠানামায় বিঘ্ন

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa