ঢাকা, রবিবার, ৮ বৈশাখ ১৪৩১, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ১১ শাওয়াল ১৪৪৫

এভিয়াট্যুর

বিআইটিএফ-২০১৫

ভিড় বাড়ছে ভ্রমণবিলাসীদের

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭০২ ঘণ্টা, মে ২২, ২০১৫
ভিড় বাড়ছে ভ্রমণবিলাসীদের ছবি: রাজিব / বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক কনফারেন্স সেন্টার থেকে: রাজধানীতে শুরু হওয়া তিনদিনের আন্তর্জাতিক পর্যটন মেলায় ভিড় করছেন ভ্রমণবিলাসীরা।

শুক্রবার (২২ মে) মেলার দ্বিতীয়দিন সাপ্তাহিক ছুটির দিনে ভ্রমণপ্রেমীরা আসছেন মেলায়।



রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক কনফারেন্স সেন্টারে বৃহস্পতিবার শুরু হয় এ মেলা। অবশ্য প্রথম দিনে সেভাবে লোকসমাগম দেখা যায়নি।
 
একই ভেন্যুতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একটি অনুষ্ঠান ছিল বৃহস্পতিবার। তাই তার নিরাপত্তা বিবেচনায় মেলাটি কয়েকঘণ্টা বন্ধ রাখতে হয়েছিল। এরপর মেলা আবার শুরু হয় সন্ধ্যার দিকে। তখনও মেলায় আগতদের ভোগান্তিতে পড়তে হয়, বাইরে ছিল তুমুল বৃষ্টি। এছাড়া কর্মদিবস হওয়ায় রাস্তায় প্রচন্ড যানজটে নাকাল হয়েছেন অনেকে।
 
সেসব দিক থেকে শুক্রবার বেশ ভালো দিন বলছেন আয়োজকরা। একদিকে ছুটি, রাস্তায় যানজট কম, অন্যদিকে আবহাওয়াও অনুকূলে।
 
বিএফটিডি চেয়ারম্যান এইচ এম হাকিম আলী ও বিভিন্ন স্টলের কর্মকর্তারা আশা করছেন, এ ভিড় আরও বাড়বে। শনিবার (২৩ মে) অনেকের ছুটি থাকে। মেলার শেষদিন বলে সেদিনও ভিড় হবে বলে আশা তাদের।
 
আয়োজকরা জানান, মেলায় ১১০টি স্টল রয়েছে। এরমধ্যে ভুটানের ২টি, কম্বোডিয়া ও ত্রিপুরার ১টি করে স্টল রয়েছে। নেপাল ও ইন্দোনেশিয়াসহ কয়েকটি দেশ স্টল না নিলেও বন্ধু দেশ হিসেবে মেলায় সংশ্লিষ্টতা রেখেছে। সার্ক ও ভারতের সরাসরি সহযোগিতা রয়েছে বলেও কর্মকর্তারা জানান।
 
বিভিন্ন এয়ারলাইন্স, হোটেল-মোটেল, ট্রাভেল এজেন্সির স্টলে আগ্রহীদের ভিড় রয়েছে। বিভিন্ন দেশে কম খরচে ট্যুরের প্যাকেজগুলো নিয়ে আগতদের বেশ আগ্রহী দেখছেন বলে স্টলের কর্মকর্তারা জানান।
 
এরমধ্যে আবার মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড, সিঙ্গাপুরের প্যাকেজগুলোতে আগ্রহ কিছুটা বেশি।
 
মেলায় ঢুকতেই চোখে পড়বে ফোর্ডের লাল-কালো দুটি গাড়ি, একের পর এক আকর্ষণীয় প্যাকেজ নিয়ে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, ভুটানের ২টি গোছানো স্টল হারমনি হলে, কম্বোডিয়ার একটি স্টল। বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশনের স্টলটিতে একজনকে দেখা যাবে জামদানি বুনতে, পাশেই আবার শঙ্খের সামগ্রী।

কুয়ালালামপুরের মার্ক হোটেলের স্টলে ভিড় করছেন অনেকে, বাংলাদেশ বিমান ও রিজেন্ট এয়ারওয়েজ টিকিটের দামে ছাড়ের ঘোষণা দিয়েছে, পর্যটন পুলিশরা একটি স্টল নিয়ে বসেছেন নিরাপত্তা দেওয়ার আশ্বাসে।
 
আগত ভ্রমণবিলাসীরা ঘুরে ঘুরে দেখছেন, স্টলগুলোর সামনে রাখা কাগজপত্র ঘেঁটে কেউ কেউ ব্যাগে ভরছেন সেসব।
 
খাওয়ার ব্যবস্থাও রয়েছে ঢোকার পথে হাতের ডানে, তবে দামটা কারও কারও পছন্দ হবে না।
 
বয়স্ক দম্পতি, ছোট শিশুসহ তরুণ দম্পতিরা এসেছেন, সমবয়সী বন্ধুদের নিয়ে মেলায় ঘুরছেন কেউ কেউ।
 
মো. সিরাজুল ইসলাম (৩৫) পেশায় ব্যবসায়ী। দু’এক মাসের মধ্যে দেশের বাইরে বেড়াতে যেতে চান। তাই মেলায় এসেছেন, স্টলগুলো ঘুরে প্যাকেজগুলো যাচাই করছেন। স্ত্রী অসুস্থ বলে আসতে পারেননি। সিরাজুল বাড়িতে গিয়ে স্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করবেন, যেটি পছন্দ হবে সেই প্যাকেজ শনিবার (২৩ মে) বুকিং দিতে আসবেন।
 
সোহানুর রহমান সোহাগ মেলা প্রসঙ্গে বাংলানিউজকে বলেন, অনেকদিন ধরে দেশের বাইরে যাওয়ার আগ্রহ। এখানে স্টলগুলো ঘুরে নানা সুযোগ জানতে পারছি। প্যাকেজগুলো আকর্ষণীয় ও সাশ্রয়ী। বিশেষ করে মেলা উপলক্ষে ছাড় দেওয়াটা বেশ পছন্দ হয়েছে। এবার মনে হচ্ছে বাইরে একটু ঘুরে আসতে পারবো।
 
এ মেলার মূল আয়োজক বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন ফর ট্যুরিজম ডেভেলপমেন্ট (বিএফটিডি), তাদের সহযোগিতা দিচ্ছে টুয়াব, এমসিটিবি।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৭০৪ ঘণ্টা, মে ২২, ২০১৫
এসকেএস/একে/এমজেএফ

** বিলাসীদের আগ্রহ মার্কের মালয়েশিয়া-প্যাকেজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।