ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ৩০ মে ২০২৪, ২১ জিলকদ ১৪৪৫

এভিয়াট্যুর

সাত গন্তব্যে উড়বে ময়ূরপঙ্খী-মেঘদূত, উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর

বিশেষ সংবাদদাতা | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৫৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ৫, ২০১৫
সাত গন্তব্যে উড়বে ময়ূরপঙ্খী-মেঘদূত, উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ঢাকা: দেশের অভ্যন্তরীণ সাতটি গন্তব্যে আবারও চলবে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ফ্লা্ইট। বিমানের বহরে যুক্ত হয়েছে ড্যাশ-৮-কিউ-৪০০ মডেলের দু’টি এয়ারক্র্যাফ্ট।



ময়‍ূরপঙ্খী ও মেঘদূত নামের এই দুই উড়োজাহাজ দিয়েই অভ্যন্তরীণ রুট সচল হচ্ছে। রোববার (৫ এপ্রিল’২০১৫)প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আনুষ্ঠানিকভাবে এই ফ্লাইট পরিচালনার উদ্বোধন করেন।

শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ভিভিআইপি বন্দরে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটের এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। কেক কেটে আনু্ষ্ঠানিকভাবে দুটি ফ্লাইটের যাত্রার উদ্বোধন করেন শেখ হাসিনা।

জনগণকে তার সরকারের দেওয়া আমাদের প্রতিশ্রুতি পুরণ হতে যাচ্ছে এই নতুন দুটি ফ্লাইট চালু করার মধ্য দিয়ে, বলেন প্রধানমন্ত্রী।

এর মধ্য দিয়ে তিন বছর বন্ধ থাকার পর আবারও চট্টগ্রাম, সিলেট, রাজশাহী, যশোর, বরিশাল, সৈয়দপুর এবং কক্সবাজারে বিমানের ফ্লাইট পুনরায় চালু হলো।

সাতটি রুটে সপ্তাহে ১২০টি ফ্লাইট আসা-যাওয়া করবে। যার মাধ্যমে ১২ হাজারের বেশি যাত্রী আনা-নেওয়া সম্ভব হবে বলে এসময় জানান বিমান চেয়ারম্যান ‍জামাল উদ্দিন আহমেদ।   

প্রধানমন্ত্রী তার বক্তৃতায় আরও বলেন, এর মধ্য দিয়ে দেশের মানুষের দীর্ঘদিনের আকাঙ্খা পূরণ হলো।

তবে কেবল যাত্রী পরিবহন করেই নয়, কার্গো সার্ভিস চালুর ওপরও গুরুত্ব দেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, কার্গো সার্ভিস ছাড়া কোনও এয়ারলাইন্সই লাভজনক হতে পারে না।

কেবল রুট চালু করাই বড় কথা নয়, যাত্রী সেবার মান বাড়াতে হবে, এই মত দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের আন্তর্জাতিক মানের যাত্রীসেবা নিশ্চিত করতে হবে। গ্রাউন্ড হ্যান্ডলিংয়ের মান বাড়ানোর ওপর জোর দেন প্রধানমন্ত্রী।

পাশাপাশি বিমান কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আপনাদের মনে রাখতে হবে, বিমান বাংলাদেশ এয়ার লাইন্স বিদেশেও বাংলাদেশের পরিচয় তুলে ধরে। আপনাদের পেশাদারিত্বের উপর তাই দেশের সম্মানও জড়িত।

বিমানকে বিশ্বের উন্নত বিমান সংস্থাগুলোর সমকক্ষ করতে প্রয়োজনীয় অবকাঠামো উন্নয়নের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আধুনিক তথ্য-প্রযুক্তির ব্যবহার নিশ্চিত করা হয়েছে। ই-টিকেটিং চালু, অনলাইন বুকিং, যাত্রীদের আসন সংরক্ষণ ব্যবস্থা আধুনিকায়ন করা হয়েছে। দেশের অভ্যন্তরে ক্রেডিট কার্ড দিয়েই এখন টিকেট কেনা সম্ভব।

হযরত শাহ্জালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে যাত্রী সুবিধা আগের চেয়ে বাড়ানো হয়েছে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, বিমানবন্দরের রানওয়ের উন্নয়ন, পার্কিং ফ্যাসিলিটি বৃদ্ধি এবং আপগ্রেডেশন বাস্তবায়নের কাজ চলছে। তৃতীয় টার্মিনাল ও দ্বিতীয় রানওয়ে নির্মাণের কাজও হাতে নেওয়া হয়েছে।  

কক্সবাজার বিমানবন্দরকে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উন্নীত করতে ইতোমধ্যে কাজ শুরু হয়েছে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, অনেক পর্যটক আসেন। বিশ্বের সবচেয়ে দীর্ঘ স্যান্ডি বিচ আমাদের এই কক্সবাজার। একে পর্যটকদের গন্তব্য করে তুলবে এই বিমানবন্দর জরুরি।

পূর্ব থেকে পশ্চিমে যারা যাবেন তারা প্রয়োজনে এই বন্দরে যাত্রাবিরতি করে কিছুটা সময় কাটিয়ে যেতে পারবেন, বলেন প্রধানমন্ত্রী।

ভূটানের সঙ্গে বাণিজ্য সম্পর্ক বাড়ানোর লক্ষ্যে সৈয়দপুরের বিমানবন্দরটিও আন্তর্জাতিক মানের করার চিন্তা-ভাবনা চলছে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী।

এছাড়া মংলা পোর্টকে আরও কার্যকর করতে বাগেরহাটে একটি বিমানবন্দর নির্মাণের পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বাংলাদেশ বিমানের যাত্রী পরিবহনের সক্ষমতা বৃদ্ধির লক্ষে ৪টি বোয়িং ৭৭৭-৩০০ ইআর উড়োজাহাজ বিমান বহরে যুক্ত হয়েছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আশা করি এ বছরের মধ্যিই আরও ২টি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ উড়োজাহাজ বহরে যুক্ত হবে।

বিমানের অভ্যন্তরীণ রুটগুলো সাশ্রয়ী ও আনন্দদায়ক হবে বলে ঘোষণা দেন বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাইল হেউড। তিনি বলেন, এটি একটি চ্যালেঞ্জ, আশাকরি আমরা তা জয় করতে পারবে।

আর বেসরকারি বিমান ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন বলেন, বিমান এখন ঘুরে দাঁড়িয়েছে, লাভের মুখ দেখছে। অভ্যন্তরীণ রুটে জনগণের চলাচল বেড়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, আশাকরি নতুন করে চালু হওয়া সাতটি রুটই লাভজনকভাবে পরিচালিত হবে।

এরই মধ্যে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট চালু উপলক্ষে  ট্যাক্সসহ মাত্র ২৭০০ টাকা ভাড়া অফার করেছে বিমান। সব রুটেই এক ভাড়া। যদিও বিমানের এই বিশেষ অফারের টিকেট এপ্রিল মাসের মধ্যে কিনতে হবে এবং আগামী ১৫ থেকে ৩০ জুনের মধ্যে ভ্রমণ করতে হবে।

২০১২ সালে বিমানের অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটের জন্য উপযোগী এফ-২৮ উড়োজাহাজ উড্ডয়ন অনুপযোগী ঘোষণা করে। এরপর থেকেই বিমানের অভ্যন্তরীণ সব ফ্লাইট বন্ধ হয়ে যায়।
 
বাংলাদেশ সময় ১৭৫৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ০৫, ২০১৫
এমএমকে

** ‘বিমান বিদেশেও বাংলাদেশের পরিচয় তুলে ধরে’

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।