ঢাকা, বুধবার, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২২ মে ২০২৪, ১৩ জিলকদ ১৪৪৫

শিল্প-সাহিত্য

প্রকাশিত হলো আব্দুর রাজ্জাকের 'ভারতের রাজনৈতিক দল' গ্রন্থ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৯২৬ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৩০, ২০২২
প্রকাশিত হলো আব্দুর রাজ্জাকের 'ভারতের রাজনৈতিক দল' গ্রন্থ

ঢাকা: ‘৭২ বছর আগে, ১৯৫০ সালে লেখা জ্ঞানতাপস অধ্যাপক আব্দুর রাজ্জাকের থিসিস বই প্রকাশের ঘটনা একটি মাইলফলক। এই বইয়ের মধ্য দিয়ে অধ্যাপক আব্দুর রাজ্জাককে পাঠকেরা পুনরায় আবিষ্কার করবেন।

একজন ভালো গবেষক হতে হলে প্রতিষ্ঠিত চিন্তাকে প্রশ্ন করতে হবে বলে অধ্যাপক রাজ্জাক তার বইয়ে উল্লেখ করেছেন। এই বইটি গণতান্ত্রিক রাজনীতির বৈশিষ্ট্য ও সমাজের বিকাশে বুদ্ধিজীবীর সমালোচনামূলক ভূমিকার কথা বলেছেন লেখক। ’
 
জ্ঞানতাপস অধ্যাপক আব্দুর রাজ্জাকের অপ্রকাশিত থিসিস ‘Political Parties in India (ভারতের রাজনৈতিক দল)’ থেকে পাঠ করে এসব কথা উল্লেখ করেছেন আলোচকরা।  

শনিবার (২৯ জানুয়ারি) বিকেলে জ্ঞানতাপস অধ্যাপক আব্দুর রাজ্জাক-এর লেখা ‘Political Parties in India’ থিসিসেস গ্রন্থাকারে প্রকাশনা উৎসব অনুষ্ঠিত হয়।

৭২ বছর আগে অধ্যাপক আব্দুর রাজ্জাকের অপ্রকাশিত থিসিসটি এবারই প্রথম দি ইউনিভার্সিটি প্রেস লিমিটেড (ইউপিএল) গ্রন্থাকারে প্রকাশ করেছে। গ্রন্থটি সম্পাদনা করেছেন জ্ঞানতাপস আব্দুর রাজ্জাক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক অধ্যাপক আহরার আহমদ। বইয়ের মুখবন্ধ লিখেছেন রাষ্ট্রবিজ্ঞানী ও সেন্টার ফর পলিসি ডায়লগ (সিপিডি)-এর ভিজিটিং ফেলো অধ্যাপক রওনক জাহান।

প্রকাশনা অনুষ্ঠানে আলোচকরা বলেন, অধ্যাপক আব্দুর রাজ্জাক নিজ বইয়ে তুলে ধরেছেন, ভারতে কি আদৌ কোনো রাজনৈতিক দল আছে? গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক দল বলতে যা বোঝায় তা ভারতে নেই। কারণ গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক দলের যেসব বৈশিষ্ট্য তা এসব দলের নেই। রাজনৈতিক দল হতে হলে ইতিবাচক রাজনৈতিক কর্মসূচি থাকতে হবে। বিভিন্ন দলের ঐক্যমত্য গঠন করতে হবে। ভারতের দলগুলো ইংরেজি শিক্ষিত মধ্যশ্রেণির প্রতিনিধি হিসেবে বৃটিশবিরোধী আন্দোলন করছে এসব দল। রাজনৈতিক দলের মতো কাজ করেনি বলে অধ্যাপক আব্দুর রাজ্জাক তার থিসিসে মত দিয়েছেন।

আলোচকরা বলেন, সৃষ্টিশীল সাহিত্যের ওপর ভিত্তি করে অধ্যাপক আব্দুর রাজ্জাক এই বইটি লিখেছেন বলে বইয়ে উল্লেখ করেছেন। এতো বছর ধরে এই বইটি প্রকাশ না করার কারণ, এতে যেসব বক্তব্য দেওয়া আছে তা গ্রহণ করার মতো কেউ ছিল না। এটি একটি সম্পূর্ণ বই। এরপর আমাদের দায়িত্ব হলো এটিকে যথোপযুক্তভাবে বাংলায় রূপান্তর করে প্রকাশ করা। আশা করি বইটি ব্যাপকভাবে পঠিত ও সমাদৃত হবে।

বই প্রকাশনা অনুষ্ঠানে আলোচক হিসেবে বক্তব্য দেন- লেখক ও রাজনীতিবিদ বদরুদ্দীন উমর, সেন্টার ফর পলিসি ডায়লগ (সিপিডি)-এর চেয়ারম্যান রেহমান সোবহান, মানবাধিকার কর্মী ও গবেষক হামিদা হোসেন, রাষ্ট্রবিজ্ঞানী ও সেন্টার ফর পলিসি ডায়লগ (সিপিডি)-এর ভিজিটিং ফেলো রওনক জাহান, দৈনিক প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমান, মুক্তিযুদ্ধ যাদুঘরের প্রতিষ্ঠাতা ট্রাস্টি মফিদুল হক, দৈনিক ডেইলি স্টারের সম্পাদক ও প্রকাশক মাহফুজ আনাম, ইউনিভার্সিটি অফ লিবালের আর্টস (ইউল্যাব) বাংলাদেশ-এর অধ্যাপক সলিমুল্লাহ খান, যুক্তরাষ্ট্রের ব্ল্যাক হিলস স্টেট ইউনিভার্সিটির এমেরিটাস অধ্যাপক আহরার আহমদ ও আব্দুর রাজ্জাক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক এবং জ্ঞানতাপস আব্দুর রাজ্জাক ফাউন্ডেশনের বোর্ড অব ট্রাস্টিজ আবুল খায়ের লিটু।

অনুষ্ঠানের শুরুতে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন দি ইউনিভার্সিটি প্রেস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাহ্রুখ মহিউদ্দীন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক লুভা নাহিদ চৌধুরী।  

বাংলাদেশ সময়: ০৯২৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৯, ২০২২
এইচএমএস/আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।